Alexa
শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

গবাদিপশুর দাম নিয়ে শঙ্কায় খামারিরা

আপডেট : ০৪ জুলাই ২০২২, ১৩:৪২

গবাদিপশুর দাম নিয়ে শঙ্কায় খামারিরা ঈদুল আজহা উপলক্ষে পর্যাপ্ত গবাদিপশু থাকলেও দাম নিয়ে শঙ্কায় ময়মনসিংহের খামারিরা। গত কয়েক মাসের ব্যবধানে লাগামহীনভাবে বেড়েছে গোখাদ্যের দাম। এতে পশুপালনের খরচ বেড়েছে। তাই পালন করা পশু বিক্রি করে পর্যাপ্ত দাম পাওয়া নিয়ে চিন্তিত গ্রামাঞ্চলের খামারিরা। খামারিদের দাবি, সরকার যেন বিদেশ থেকে পশু আমদানি বন্ধ রাখে। তাহলে তাঁরা পশুর ভালো দাম পাবেন বলে আশা করছেন। জেলা প্রাণিসম্পদ অফিস থেকে বলা হয়েছে, ক্রেতাদের চাহিদা এবং সুবিধার কথা চিন্তা করে হাটের পাশাপাশি অনলাইনে গরু কেনাবেচার সুযোগ রাখা হবে। হাটগুলোয় মেডিকেল টিম কাজ করবে।

ময়মনসিংহের ত্রিশালের হরিরামপুর গ্রামের খামারি রাসেল আহম্মেদ জানান, ‘২০ বছর ধরে তিনি গবাদিপশু পালনের সঙ্গে জড়িত। দুই বছর আগেও কোরবানির হাট ঘিরে গবাদিপশু পালন করতেন চার থেকে পাঁচটি। কিন্তু এ বছর তিনি একটি গরু পালছেন।’ রাসেল আরও বলেন, ‘গম, ভুসি, কলাই, খইল, খড় সবকিছুর দাম বেড়েছে। ফলে কোনোভাবেই চার থেকে পাঁচটি গরু লালনপালন সম্ভব হচ্ছে না। একটি গরু কোরবানির জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে, দামের আশা করা হচ্ছে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা হবে। কিন্তু বাজারে কী দাম পাওয়া যায়, তার ওপর তাকিয়ে রয়েছি। কম হলেও ছেড়ে দিতে হবে গরু।’

পার্শ্ববর্তী গ্রামের কৃষক লাল মিয়া বলেন, ‘চার দফা গোখাদ্যের দাম বাড়ানো হয়েছে গত তিন মাসে। যে কারণে ঈদ ঘিরে যেসব প্রান্তিক খামারি ৫ থেকে ৬টি করে গরু মোটাতাজা করত, তারা এবার তা পারছে না।’

শুধু প্রান্তিক কৃষকেরাই নয়, গোখাদ্যের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধির কারণে কোরবানি ঘিরে পশুপালন কমিয়েছেন বড় খামারিরাও।

হরিরামপুর ডেইরি খামারের ম্যানেজার তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘করোনার একটা প্রভাব ছিল, সেটা কাটতে না কাটতেই গোখাদ্যের দাম বেড়েছে। সব মিলিয়ে খরচের সঙ্গে বাজারে বাড়েনি গরুর দাম। তাই অন্যান্য বছর ২৫ থেকে ৩০টি গরু কোরবানির হাটের জন্য প্রস্তুত করলেও এবার তা কমে দাঁড়িয়েছে ৯টিতে। সেখানেও লোকসানের আশঙ্কা রয়েছে।’

প্রাণিসম্পদ বিভাগের তথ্যমতে, ময়মনসিংহ বিভাগের চার জেলায় খামারি এবং কৃষক পর্যায়ে কোরবানির জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে ৫ লাখ ৫৮ হাজার গবাদিপশু। যা চাহিদার তুলনায় প্রায় ২ লাখ বেশি।

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ময়মনসিংহ বিভাগীয় পরিচালক ডা. মনোরঞ্জন ধর বলেন, ‘কোরবানির জন্য চাহিদার চেয়েও বেশি পশু রয়েছে। এবারও ক্রেতাদের চাহিদার কথা এবং সুবিধার কথা চিন্তা করে হাটের পাশাপাশি অনলাইনে গরু কেনাবেচার ব্যবস্থা রাখা হবে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    ভরা বর্ষায়ও সেচ দিয়ে আমন চাষ

    বন্ধ হয়ে যাচ্ছে মুরগির খামার

    ব্লাড ক্যানসারে আক্রান্ত মারিয়া বাঁচতে চায়

    আমন চাষের শুরুতেই বাড়তি খরচের বোঝা

    তিন দিনে আ.লীগ নেতার ৩ ঘেরে বিষ দিল দুর্বৃত্তরা

    পাঁচ দিনে চিনির দাম বাড়ল ৭ টাকা

    বিএনপির সমাবেশস্থলে ছাত্রলীগের হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগ

    শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি বাড়ানোর বিষয়ে ভাবা হচ্ছে: শিক্ষামন্ত্রী

    আওয়ামী লীগ নেতার বাড়িতে গুলি, রিমান্ডে মুখ খোলেনি আসামি

    বিএনপিকে কর্মসূচি পালন করতে দেওয়াও একটা প্রতারণা: ফখরুল

    শোক দিবস উপলক্ষে এতিমদের খাবার বিতরণ করল র‍্যাব

    সেনাবাহিনীতে চাকরির সুযোগ, আবেদন শুরু আজ থেকে