মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

সেকশন

 

দেবিদ্বারে যৌন হয়রানির অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে অবরুদ্ধের ঘটনায় গ্রেপ্তার আতঙ্ক

ছবি ১: 
ছবি ২: 
ছবি ৩: 

আপডেট : ১৯ মার্চ ২০২৩, ১৭:৪২

কুমিল্লার দেবিদ্বারে মাশিকাড়া উচ্চবিদ্যালয়। ছবি: আজকের পত্রিকা কুমিল্লার দেবিদ্বারের মাশিকাড়া উচ্চবিদ্যালয়ে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ প্রধান শিক্ষক মো. মোক্তল হোসেনকে অবরুদ্ধের পর পুলিশ-জনতার সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেপ্তার আতঙ্কে রয়েছেন আশপাশের কয়েক গ্রামের পুরুষ। এ ঘটনার পর এখনো বেশির ভাগ শিক্ষার্থী বিদ্যালয়ে আসছে না। আজ রোববার ও গতকাল শনিবার বিদ্যালয়সহ আশপাশের কয়েক গ্রাম ঘুরে এমন চিত্র দেখা গেছে। 

এ নিয়ে দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমল কৃষ্ণ ধর বলেন, ‘মাশিকাড়া উচ্চবিদ্যালয়ের ঘটনায় আমরা কোনো শিক্ষার্থীকে আটক করব না। তবে ভিডিও ফুটেজ দেখে দেখে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় জড়িতদের শনাক্ত করা হচ্ছে এবং তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। তা ছাড়া এই সংঘর্ষের ঘটনায় দেবিদ্বার থানায় দুটি মামলা হয়েছে। এর মধ্য পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা করেছে। অপরটি করেছে ওই ছাত্রীর বাবা। এসব মামলায় এ পর্যন্ত ১৭ জনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।’ 

মাশিকাড়া উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীশূন্য শ্রেণিকক্ষ। ছবি: আজকের পত্রিকা 

আজ রবিবার (১৯ মার্চ) বেলা ১১টার দিকে মাশিকাড়া উচ্চবিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেছে, চারপাশে এখনো থমথমে পরিস্থিতি। ক্লাস চললেও শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি তেমন নেই। এ সময় কথা হয় বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মো. বাহলুল হকের সঙ্গে। তিনি আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এ ঘটনার পর এখনো আতঙ্ক কাটেনি। তবে বিদ্যালয়ে আগের মতো ক্লাস শুরু হয়েছে। শিক্ষার্থীদের ক্লাসে আনার জন্য শিক্ষকদের বাড়ি বাড়ি পাঠানো হচ্ছে। এ নিয়ে আমরা শিগগিরই অভিভাবক সমাবেশ ডাকব। সেখানে দেবিদ্বার থানার পুলিশও উপস্থিত থাকবে।’

গতকাল শনিবার বিকেলে মাশিকাড়া বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, পুরো বাজার পুরুষশূন্য। দু-একটি ফার্মেসি ছাড়া বন্ধ রয়েছে বেশির ভাগ দোকানপাট। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মাশিকাড়া, রামপুর, পদ্মকোট, গণেশপুর, শাকতলা, উত্তর পোনরা, দক্ষিণ পোনরা, ভূষণা, বারেরা গ্রামের এক অংশ ও ধামতির গ্রামের এক অংশসহ এসব গ্রামের পুরুষেরাও গ্রেপ্তার আতঙ্কে রয়েছেন। 

মাশিকাড়া বাজারে বেশির ভাগ দোকানপাট বন্ধ। ছবিটি গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় তোলা। আজকের পত্রিকা  মাশিকারা বাজারের ফার্মেসি ব্যবসায়ী শরীফুল ইসলাম বলেন, ‘তিন দিন ধরে দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। আতঙ্কে বাজারে কোনো মানুষ উঠছে না। বাড়িঘরেও মানুষ নেই। দিনের বেলায় কয়েকজন মুরব্বিকে দেখা গেলেও ১৮-৩০ বছর বয়সী কোনো পুরুষকে দেখা যায় না। সবাই আতঙ্কে রয়েছেন।’

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন নারী বলেন, ‘দুপুরে কে বা কারা বলছে, বাজারে পুলিশ অভিযানে এসেছে। এ কথা শোনার পর বাড়িঘরে যারা ছিলেন, তাঁরা এদিক-সেদিক দ্রুত পালিয়ে যান। এভাবে ভয়ে থাকতে হচ্ছে সবাইকে। কে কখন গ্রেপ্তার হয়, সে আতঙ্কে কাটছে দিন।’ 

উল্লেখ্য, গত বুধবার সকালে মাশিকাড়া উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর এক ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ ওঠে প্রধান শিক্ষক মোক্তল হোসেনের বিরুদ্ধে। এরপর তাঁকে নিজের কক্ষে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ শুরু করে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। পরে দুপুরে পুলিশের একটি দল বিদ্যালয়ে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়। একপর্যায়ে দেবিদ্বার-বিপাড়া সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. আমিরুল্লা, দেবিদ্বার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কমল কৃষ্ণ ধর, পরিদর্শক (তদন্ত) খাদেমুল বাহার বিন আবেদসহ পুলিশের আরও একটি দল বিদ্যালয়ে যান। তাঁরাও পরিস্থিতি শান্ত করতে পারেননি। এ সময় স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। দিনভর স্থানীয়দের বিক্ষোভ চলে। রাত ৯টার দিকে কুমিল্লার পুলিশ সুপার মো. আব্দুল মান্নান, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোশারফ হোসেন, ইউএনও ডেজী চক্রবর্তীসহ বিপুল পরিমাণ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য বিদ্যালয়ের দোতলায় অবরুদ্ধ থাকা প্রধান শিক্ষক ও পুলিশ সদস্যদের উদ্ধার করতে যান। এ সময় উত্তেজিত জনতা পুলিশের ওপর বৃষ্টির মতো ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে পুলিশ রাবার বুলেট ও শটগানের গুলি ছোড়ে। এ ঘটনায় পুলিশের একজন সদস্যসহ অন্তত আরও ২০ আহত হন। 

মাশিকাড়া বাজারে বেশির ভাগ দোকানপাট বন্ধ। ছবিটি গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় তোলা। আজকের পত্রিকা  এ ঘটনার পরদিন বৃহস্পতিবার দুপুরে দেবিদ্বার থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মোক্তার আহমেদ বাদী হয়ে পুলিশের কাজে বাধা, বিস্ফোরকদ্রব্য আইনসহ ১২টি ধারায় অজ্ঞাতনামা ২১০ জনকে আসামি করে মামলা করেন। অপর দিকে শ্লীলতাহানির অভিযোগ আনা ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে প্রধান শিক্ষক মো. মোক্তল হোসেনকে একমাত্র আসামি করে আরেকটি মামলা করেছেন। ওই মামলায় মো. মোক্তল হোসেন কারাগারে রয়েছেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     

    মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এল আরও ১৭ জান্তা সদস্য

    চট্টগ্রামে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

    মাদারীপুরে বজ্রপাতে ২ জনের মৃত্যু

    সড়ক কার্পেটিংয়ের সময় বিটুমিনের ড্রাম বিস্ফোরণে ছয়জন দগ্ধ

    থানায় হামলা: স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাসহ ৯ জন ৬ দিনের রিমান্ডে

    চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় বিদেশি শিক্ষার্থীর মৃত্যু

    মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এল আরও ১৭ জান্তা সদস্য

    রহমতগঞ্জকে হারিয়ে সেমিফাইনালে বসুন্ধরা কিংস

    জমি নিয়ে বিরোধ: ভাগনেকে পিটিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ, মামা-মামি আটক

    চট্টগ্রামে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

    নতুন বছরে আমরা কেউ যেন নিরাপত্তাহীনতায় না থাকি: ড. ইউনূস

    বিশ্ববাজারে স্বর্ণ প্রতি ভরি ১ লাখ ৩৫ হাজার টাকা ছাড়িয়ে যাওয়ার পূর্বাভাস