বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

সেকশন

 

দরিদ্রদের তালিকায় সচ্ছলেরা

আপডেট : ১৮ মার্চ ২০২৩, ১০:৫৬

দরিদ্রদের তালিকায় সচ্ছলেরা যশোরের মনিরামপুর উপজেলায় দরিদ্র নারীদের সহায়তা প্রকল্পের (ভিডব্লিউবি) তালিকা তৈরিতে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার কুলটিয়া ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) দরিদ্র নারীদের বাদ দিয়ে তালিকায় সচ্ছল ও পাকা ঘরের মালিকদের নাম রয়েছে। তালিকার ৩৮ জনের মধ্যে প্রায় অর্ধেকই সচ্ছল নারীর বলে এক ইউপি সদস্য অভিযোগ করেন।

অভিযোগের পর উপজেলার কুলটিয়া ইউপিতে জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি–দুই মাসের চাল বিতরণ বন্ধ রয়েছে। তালিকা সংশোধনের জন্য ওই ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) (৪, ৫ ও ৬ নম্বর) ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য রমা দত্ত জেলা ও উপজেলা প্রশাসকের দপ্তরসহ নানা দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

এদিকে ইউপি সদস্যের করা অভিযোগের ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)। কমিটিকে পাঁচ কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। কাল রোববার তদন্ত শুরু হবে বলে জানা গেছে।

ইউপি সদস্য রমা দত্তের অভিযোগ, তাঁর ওয়ার্ডে ভিডব্লিউবির নতুন চক্রে ৩৮ জনের নাম চূড়ান্ত করা হয়েছে। যার ১৮টিতে রয়েছে সচ্ছল ব্যক্তির স্ত্রীর নাম। তাঁদের কারও দালানঘর, মাছের ঘের ও ৪-৫ বিঘা করে চাষের জমি রয়েছে। কুলটিয়া ইউপির চেয়ারম্যান ও ৪, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের পুরুষ ইউপি সদস্যরা টাকার বিনিময়ে এবং স্বজনপ্রীতি করে এসব নাম তালিকাভুক্ত করেছেন।

রমা দত্ত বলেন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের তালিকার জেসমিন বেগমের স্বামী মাহাবুর রহমানের পাকা ঘর ও মাঠে পাঁচ বিঘা কৃষিজমি রয়েছে। আড়সিংগাড়ী গ্রামের রেশমা বেগমের স্বামী শফিকুলের পাকা ঘর আছে। পোড়াডাঙা গ্রামের ফিরোজা বেগমের স্বামী তবিবুর রহমানের পাকা ঘর রয়েছে।

ইউপি সদস্য রমা দত্ত আরও বলেন, ‘আমার দেওয়া দুস্থ আরতী শীল, মায়া দত্ত, নাজমা বেগম, শাহীনা খাতুনসহ ১৫ জনের নাম কেটে দেওয়া হয়েছে। এঁরা সবাই দিন এনে দিন খান। থাকার ভালো ঘরও নেই।’

সম্প্রতি সরেজমিন কুলটিয়া ইউনিয়নের ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ড ঘুরে ইউপি সদস্য রমা দত্তের অভিযোগের সত্যতা মিলেছে। স্থানীয়রা বলছেন, কুলটিয়া ইউনিয়নের তিনটি ওয়ার্ডে যদি এত অনিয়ম হয়, তাহলে পুরো ইউনিয়নের ১২৪ জনের তালিকায় না জানি কত অনিয়ম আছে। নতুন করে পুরো তালিকা যাচাই-বাছাইয়ের দাবি তাঁদের।

কুলটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখর চন্দ্র আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘জলাবদ্ধতার কারণে আমার ইউনিয়নে সাত বছর ফসল হয় না। যাঁদের পাকা ঘর ও মাঠে কৃষিজমি আছে, তাঁরা আবাদ করতে না পেরে এখন খারাপ অবস্থায় আছেন। তাঁরা লোকলজ্জায় না পারছেন কামলা দিতে, না পারছেন মাছ মারতে। ভাঙা ঘরের লোকজন খেটে খেতে পারছেন। আমার ইউনিয়নে এখন ধনীরা গরিব আর গরিবেরা ধনী হয়েছেন।’

মনিরামপুরে ভিডব্লিউবি ২০২৩-২৪ চক্রে দুই বছর মেয়াদি বিনা মূল্যে মাসিক ৩০ কেজি করে চাল বিতরণের জন্য নতুন ২ হাজার ৭১৭ জন নারীর নাম তালিকাভুক্ত করা হয়। গত বছরের নভেম্বরে অনলাইনে আবেদনের মাধ্যমে এই তালিকা তৈরির কাজ শুরু হয়। প্রাথমিকভাবে উপজেলা মহিলাবিষয়ক দপ্তর তালিকা যাচাই করে প্রতি ইউনিয়ন থেকে কিছু নাম বাদ দেন। পরে বাদ পড়া নামের বিপরীতে নতুন নাম দেন চেয়ারম্যানরা। অভিযোগ উঠেছে, ইউপি চেয়ারম্যানদের দেওয়া সংশোধিত নাম পুনরায় যাচাই না করে তালিকাভুক্ত করেছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর।

উপজেলা মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তা মৌসুমী আক্তার আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘ভিডব্লিউবির নতুন চক্রে কুলটিয়া ইউনিয়নের তালিকা প্রাথমিক যাচাই করে ১২৪ জনের নাম চূড়ান্ত হয়েছিল। পরে নারী ইউপি সদস্য রমা দত্ত অভিযোগ করেন, তাঁর দেওয়া কোনো নাম চেয়ারম্যান রাখেননি। এখন তালিকা সংশোধন করা হবে।’

মৌসুমী আক্তার আরও বলেন, ‘অন্য ইউপি চেয়ারম্যানদের দেওয়া তালিকা যাচাই-বাছাই করে কিছু নাম বাদ দেওয়া হয়েছিল। পরে আর সংশোধিত নাম যাচাই করা হয়নি।’
মনিরামপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জাকির হোসেন বলেন, ‘ভিডব্লিউবি নিয়ে কুলটিয়া ইউপি সদস্য রমা দত্তের অভিযোগ তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি করা হয়েছে। প্রতিবেদন হাতে পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    দুদিনেও উইকেটের দেখা পাননি শান্তরা

    সাক্ষাৎকার

    আগে থেকেই পরিকল্পনা ছিল ‘তুফান টু’ বানানোর

    সামিটের এলএনজি টার্মিনাল সিঙ্গাপুরে, গরমে বাড়বে লোডশেডিং

    ঈদের চতুর্থ দিনের টিভি আয়োজন

    আবারও টালিউড সিনেমায় তারিন

    মারজুকের সঙ্গে আলী হাসানের ‘নানা-নাতি’

    দুদিনেও উইকেটের দেখা পাননি শান্তরা

    কোটিপতি কমলেও ক্ষুদ্র হিসাব বেড়েছে

    শুধু শান্ত নয়, অন্য দলের টপ অর্ডারও ভুগছে: হাথুরু

    সিলেটসহ পাঁচ জেলায় পানিবন্দী ১৪ লাখ মানুষ

    চামড়াশিল্প নগরীর সিইটিপি পুরো প্রস্তুত, পরিদর্শন শেষে শিল্পসচিব