Alexa
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 

ছাত্রীদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যে ক্ষমা চেয়েছেন শাবিপ্রবি ভিসি, জানাল জাবি কর্তৃপক্ষ

আপডেট : ২৪ জানুয়ারি ২০২২, ১৭:৩২

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। ফাইল ছবি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করায় আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চেয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। 

জাবির জনসংযোগ অফিসের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মোহাম্মদ মহিউদ্দিনের স্বাক্ষর করা এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আজ সোমবার বেলা ১১টা ৫৯ মিনিটে জাবির উপাচার্য ড. ফারজানা ইসলামকে মোবাইলে ফোন করে দুঃখ প্রকাশ করেন ফরিদ উদ্দিন আহমেদ। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ফোনে ভিসি ফরিদ উদ্দিন বলেছেন, ‘তাঁর বক্তব্য সম্পাদনা (এডিট) করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হয়েছে। এতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। একই সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং সংশ্লিষ্ট সবাই আহত হয়েছেন। তিনি এ বিষয়টি অনুধাবন করছেন।’ 

এ বিষয়ে শাবিপ্রবির উপাচার্য গণমাধ্যমকে বলেন, ‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও উপাচার্যের সাথে আমার কথা হয়েছে। আমার কণ্ঠে যে অডিও রেকর্ড ফাঁস হয়েছে সেটি এডিট করা হয়েছে। যা হয়েছে তার জন্য আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত। কোনও একটি মহল শিক্ষার্থীদের উসকে দেওয়ার জন্য এই বক্তব্য এডিট করেছে।’

জাবির ভিসির কাছে ফরিদ উদ্দিন আশা প্রকাশ করেছেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের উদার ও প্রগতিশীল শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা তাঁকে ক্ষমা করে দেবেন।’

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের ৪৬ ব্যাচের ছাত্রী সুমাইয়া ফেরদৌস বলেন, ‘আমরা শাবিপ্রবি উপাচার্যের বক্তব্যে আস্থা রাখতে পারছি না। কারণ তিনি প্রকারান্তরে কৃত অপরাধ অস্বীকার করেছেন। এ ছাড়া আমাদের পক্ষ থেকে শাবিপ্রবির শিক্ষার্থীদের ন্যায্য আন্দোলনে সংহতি রয়েছে। তাঁদের দাবি অনুসারে উপাচার্য ফরিদ পদত্যাগ না করলে আমাদের আন্দোলন চলবে।’

শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে এখন আন্দোলন করছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা। এর মধ্যেই গত ২০ জানুয়ারি উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের একটি অডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। সেখানে ভিসিকে বলতে শোনা যায়, ‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মেয়েদের সহজে কেউ বউ হিসেবে নিতে চায় না। কারণ এরা রাত বিরাতে বাইরে ঘোরাঘুরি করে।’

এ মন্তব্যের প্রতিবাদে গত বুধবার ফরিদ উদ্দিন আহমেদের কুশপুতুল পোড়ান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীরা। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি ও বঙ্গবন্ধু শিক্ষক পরিষদ পৃথক বিবৃতিতে ফরিদ উদ্দিন আহমেদের বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানান। এরপর গত শনিবার বিকেলে ফরিদ উদ্দিনের পদত্যাগের দাবিতে প্রতীকী অনশন এবং মধ্যরাতে মশালমিছিল করেন জাহাঙ্গীরনগরের ছাত্রীরা।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    জাহাঙ্গীরনগরে চুক্তিভিত্তিক রেজিস্ট্রার নিয়োগ, কর্মকর্তাদের ক্ষোভ

    সাভারে শিক্ষক হত্যা: সেই ছাত্রী বললেন জিতু তাঁর ‘ভাতিজা’

    কাবিন জালিয়াতির মামলায় রাজবাড়ীর মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কারাগারে

    পরিবার থেকে ঘৃণা করলে সিংহভাগ দুর্নীতি কমে যাবে: দুদক মহাপরিচালক

    আরেফিন সিদ্দিককে নিয়ে জাপা এমপির মন্তব্যের প্রতিবাদ ঢাবি সাংবাদিকতা বিভাগের

    অটোরিকশায় শিশু শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ, চালক গ্রেপ্তার

    ৩৫ রানে হেরে সিরিজে পিছিয়ে গেল বাংলাদেশ 

    জিততে হলে বাংলাদেশকে করতে হবে ১৯৪ রান

    রাজশাহীতে জন্মদিনে খুন হলেন শ্রমিক নেতার ছেলে

    শুদ্ধাচার পুরস্কার পেলেন সচিব মামুন আল রশীদ

    ব্যাঙ শিকারের দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অর্থদণ্ড

    কনকা অ্যান্ড্রয়েড ভয়েস কন্ট্রোল টেলিভিশন