Alexa
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩

সেকশন

epaper
 

পাওনা নিয়ে জটিলতায় কিডনি ইনস্টিটিউটে ডায়ালাইসিস বন্ধ করল স্যানডোর

আপডেট : ২২ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭:৫৫

পাওনা নিয়ে জটিলতায় কিডনি ইনস্টিটিউটে ডায়ালাইসিস বন্ধ করল স্যানডোর বকেয়া পাওনা নিয়ে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান স্যানডোরের সঙ্গে সরকারের জটিলতা যেন কাটছেই না। গত বছর রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে জাতীয় কিডনি অ্যান্ড ইউরোলজি ইনস্টিটিউট (নিকডু) ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে কোনো ধরনের পূর্বঘোষণা ছাড়াই বন্ধ করে দিয়েছিল ডায়ালাইসিস সেবা। এবারও একই পথে কোম্পানিটি। জাতীয় কিডনি অ্যান্ড ইউরোলজি ইনস্টিটিউট ডায়ালাইসিস কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

আজ রোববার প্রায় ছয় ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর আবারও খুলে দেওয়া হয়েছে। তবে কাল সোমবার সেটি একেবারে বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে বলে স্যানডোর সূত্রে জানা গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, দেশের একমাত্র কিডনি বিশেষায়িত হাসপাতালে প্রতিদিন তিন শিফটে চার ঘণ্টা করে প্রায় ৪০০ জনকে ডায়ালাইসিস সেবা দেওয়া হয়। ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ডায়ালাইসিস সেন্টার চালু থাকে। সরকারের পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ প্রকল্পের আওতায় স্যানডোর ডায়ালাইসিস সেবা দিয়ে আসছে।

অন্য দিনের মতো রোববার সকালে পূর্বনির্ধারিত তালিকা অনুযায়ী রোগীরা সেন্টারে আসেন। কিন্তু স্যানডোরের পক্ষ থেকে জানানো হয়, কাঁচামালের সংকটের কারণে কিছুটা সময় লাগছে। অপেক্ষা করতে হবে। এতে করে দুশ্চিন্তায় পড়ে যান ডায়ালাইসিস নিতে আসা রোগীরা। পড়েন ভোগান্তিতে। পরে রোগীদের কথা বিবেচনা করে বেলা দুইটার দিকে পুনরায় সেবা চালু করে প্রতিষ্ঠানটি।

স্যানডোর বলছে, শেষ দিকে এসে ডায়ালাইসিসের কাঁচামালের সংকট দেখা দেয়। এ জন্য সরকারের কাছ থেকে বকেয়া টাকার জন্য চাপ দেওয়া হয়। তবে সরকারের পক্ষ থেকে একাধিকবার আশ্বাস দিলেও এখন পর্যন্ত পরিশোধ করেনি।

বর্তমানে সরকারের কাছে অন্তত ৩০ কোটি টাকা পাওনা। এতে করে কাঁচামাল আমদানিতে সমস্যা হচ্ছে। এই নিয়ে গত সপ্তাহে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ে চিঠিও দেওয়া হয়। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে আশ্বাস ছাড়া কিছুই পাওয়া যায়নি।

কিডনি ইনস্টিটিউট স্যানডোরের ব্যবস্থাপক মো. নিয়াজ খান আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘কাঁচামালের সংকট থাকায় সরকারের কাছে পাওনা টাকার জন্য একাধিকবার চিঠি দেওয়া হয়েছে, কিন্তু এখনো সাড়া পাচ্ছি না। টাকা না পেলে আগামীকাল আবারও বন্ধ রাখার সম্ভাবনা বেশি।’

তবে হাসপাতালের কর্মকর্তারা বলছেন, ‘কিছু টাকা বকেয়া থাকলেও এভাবে সেবা কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া ঠিক হচ্ছে না স্যানডোরের। সরকার তো টাকা দিয়েই এসেছে। হয়তো একটু সময় লাগছে, কিন্তু দেবে।’

হাসপাতালটির পরিচালক অধ্যাপক আক্তারুজ্জামান আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘শুনেছি, ডায়ালাইসিস বন্ধ করে দিয়েছিল, পরে আবার চালু করেছে। স্যানডোরের চুক্তি হাসপাতালের সঙ্গে নয়, মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে। তারা সেখানে যোগাযোগ করুক। কিন্তু ডায়ালাইসিস বন্ধ করা কোনো সমাধান নয়।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    সাটুরিয়ায় সড়কের কাজে ধীর গতি, জনদুর্ভোগ চরমে

    বাকি খাইয়ে প্রায় দেউলিয়া, ঢাবির জসীমউদ্দিন হলের ক্যানটিন বন্ধ

    মাছ কাটা নিয়ে ঝগড়া, গায়ে আগুন দিয়ে গৃহবধূর ‘আত্মহত্যা’

    চট্টগ্রামে কম খরচে বোন ম্যারো প্রতিস্থাপন করল এভারকেয়ার হাসপাতাল

    ১১৩ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কারের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিল ঢাবি

    দক্ষিণখানে পোশাক শ্রমিকদের আন্দোলন, সংহতি এমপির 

    চিকিৎসা খাতে অবদান রাখছে রোবট

    নতুন ডানায় পরবর্তী প্রজন্মের বাণিজ্যিক বিমান

    স্মার্টফোন বিক্রিতে এগিয়ে ছিল যারা

    নাটক ছাড়ছেন না মেহজাবীন

    শুরু হচ্ছে সিসিমপুরের নতুন মৌসুম

    এভাবেও প্রচারণা হয়!