বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

সেকশন

 

মামলার অগ্রগতি নেই, আংশিক খুলে দেওয়া হয়েছে বিএম ডিপো

আপডেট : ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৮:৫১

ফাইল ছবি চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের বিএম ডিপোতে বিস্ফোরণের তিন মাসেও মামলার কোনো অগ্রগতি হয়নি। এদিকে গত ২২ আগস্ট থেকে খুলে দেওয়া হয়েছে ডিপোর আংশিক। চট্টগ্রামের বিএম ডিপোতে বিস্ফোরণের ঘটনায় ৫০ জনের প্রাণহানি ও অসংখ্য মানুষ আহত হওয়ার ঘটনায় বিলম্বে মামলা হলেও এখনো কেউ গ্রেপ্তার হয়নি। ঘটনার তিন মাসের বেশি সময় পার হলেও কাউকে করা হয়নি জিজ্ঞাসাবাদও। 

তদন্ত কমিটির বেশির ভাগ প্রতিবেদনে বিএম ডিপোকে দায়ী করলেও তেমন কোন দৃশ্যমান ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। 

গত ৪ জুন সীতাকুণ্ড বিএম ডিপোতে হাইড্রোজেন পার অক্সাইড বিস্ফোরণে ১৩ জন ফায়ার কর্মীসহ ৫০ জন নিহত হন। এ সময় আহত হয় অসংখ্য মানুষ। এ ঘটনায় ৭ জুন সীতাকুণ্ড থানায় ডিপোর মালিকদের বাদ দিয়ে ৮ কর্মচারীকে আসামি করে মামলা হয়। মামলায় এখনো পর্যন্ত কাউকে আটক করা হয়নি। করা হয়নি জিজ্ঞাসাবাদও। 

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক সুমন বণিক আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘এ মামলায় এখনো পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার বা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়নি। ডিপো থেকে মামলার সংগ্রহকৃত আলামতে বিস্ফোরকের কোনো আলামত পায়নি। মর্গে থাকা নিহত ১৪ জনের মরদেহের ডিএনএ প্রতিবেদন না আসায় স্বজনের কাছে হস্তান্তরও করা যায়নি। প্রতিবেদন পেলে মরদেহগুলো হস্তান্তর করা হবে।’ 

এঘটনায় মোট ৭টি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কাস্টমস, বিভাগীয় কমিশনার ও বন্দর কর্তৃক তদন্ত কমিটি বিএম ডিপোকে দায়ী করে এরই মধ্যে প্রতিবেদন দিয়েছে। চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস সূত্র জানায়, বিএম ডিপোর বিস্ফোরণের ঘটনায় এখনো কোনো প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। 

চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউসের সহকারী কমিশনার উত্তম চাকমা বলেন, ‘বিএম ডিপো আংশিক খুলে দেওয়া হয়েছে। পুরোনো মালপত্র সরিয়ে নিলে বিএম ডিপো আবার চালু করা হবে।’ 

চট্টগ্রাম সীতাকুণ্ড ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. নুরুল আলম দুলাল আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘বিএম ডিপো বিস্ফোরণে আমাদের ১০ জন ফায়ার কর্মীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন। তাঁদের ডিএনএর নমুনা নেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া ১৭ জন ফায়ার কর্মী আহত হয়েছেন। আমাদের ফায়ার বিভাগ থেকে এখনো কোনো মামলা হয়নি। একটি জিডি করা হয়েছে। প্রধান কার্যালয় থেকে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তাঁরা বিষয়টি তদন্ত করছে।’ 

মামলায় আসামি করা হয়েছে যাদের
চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের বিএম ডিপোতে বিস্ফোরণে ডিপোর মহা ব্যবস্থাপক নাজমুল আক্তার খান, উপমহাব্যবস্থাপক (অপারেশন) নুরুল আক্তার খান, ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) খালেদুর রহমান, সহকারী প্রশাসনিক কর্মকর্তা আব্বাস উল্যা, জ্যেষ্ঠ নির্বাহী (প্রশাসন) নাসির উদ্দিন, সহকারী ব্যবস্থাপক আবদুল আজিজ, ডিপোর শেড ইনচার্জ সাইফুল ইসলাম ও সহকারী ডিপো ইনচার্জ নজরুল ইসলামকে আসামি করে মামলা করা হয়। এদের অনেকেই আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি। তবে মালিক পক্ষের কাউকে মামলায় আসামি করা হয়নি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     

    রাজধানীর বাড্ডায় গ্যাস বিস্ফোরণে নিহত এক, নারী দগ্ধ

    ঝড়ের রাতে মায়ের মৃত্যু, দুই দিন ঝুলিয়ে রেখে দাফন করতে হলো পানিতে

    রেলক্রসিংয়ে অটোরিকশা, ট্রেনের ধাক্কায় নিহত ২ 

    নকলায় বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে ২ জনের মুত্যু

    লক্ষ্মীপুরে পৃথক স্থানে পুকুরে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু

    মিল্টন সমাদ্দারের সহযোগী কিশোর বালাকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

    বিচিত্র

    কিসের লোভে চুরি করে মানুষের ঘরে ঢুকে এ ভালুকটি

    ব্যাংক এশিয়ার প্রশিক্ষণে অংশ নেওয়া কর্মকর্তাদের মধ্যে সনদ বিতরণ

    হামলার হুমকি পাওয়ায় ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে নিরাপত্তা জোরদার

    তিন খানকে টেক্কা, আইএমডিবির ভারতীয় তারকার তালিকার শীর্ষে দীপিকা

    উপায়ের আয়োজনে ময়মনসিংহে ‘ফ্রিল্যান্সার মিটআপ’

    সব প্রস্তুতি সম্পন্ন, প্রধানমন্ত্রীর আগমনে কলাপাড়ার মানুষের মধ্যে উচ্ছ্বাস