Alexa
মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

চীনের মধ্যপ্রাচ্য তৎপরতায় দুর্বলতা

আপডেট : ০১ আগস্ট ২০২২, ১২:৩৭

দুবাইয়ের তৎকালীন শাসক শেখ মুহাম্মদ বিন জায়েদের সঙ্গে চীনা প্রেসিডেন্ট সি চিনপিং। ২০১৯ সালে বেইজিংয়ে। ছবি: আল-মনিটর সি চিন পিং ২০১৩ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে চীনের তৎপরতায় উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আসে। যাত্রা শুরু করে শত শত কোটি ডলারের ‘এক অঞ্চল, এক সড়ক (বিআরআই)’ প্রকল্প। ‘নিরপেক্ষতা’ ত্যাগ করে দেশটির পররাষ্ট্রনীতি হয়ে ওঠে অনেক বেশি ‘প্ররোচক’ বা ‘সক্রিয়’।

এশিয়া, আফ্রিকা বা উত্তর আমেরিকায় সুস্পষ্ট হলেও এসব নীতি বা তৎপরতা মধ্যপ্রাচ্যে অত্যন্ত প্রবল ও দৃষ্টিগ্রাহ্য। কিন্তু অঞ্চলটির নিরাপত্তাসংশ্লিষ্ট বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা বেইজিংয়ের চেয়ে অনেক বেশি নির্ভরযোগ্য। যুক্তরাষ্ট্র, সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই), ইসরায়েল ও ভারত নিয়ে সম্প্রতি আত্মপ্রকাশ করা ‘আই২ ইউ২’ নামের একটি জোট, অঞ্চলটিতে চীনের প্রভাব বিস্তারকে খর্ব করবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

জোটটির শীর্ষস্থানীয় নেতারা গত ১৪ জুলাই অনলাইনে প্রথম শীর্ষ সম্মেলনে করেন। সম্মেলন শেষে যৌথ ঘোষণায় সমুদ্র, জ্বালানি, যোগাযোগ, মহাকাশ, স্বাস্থ্য, খাদ্যনিরাপত্তার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সহযোগিতার কথা উল্লেখ করা হয়।

মধ্যপ্রাচ্যকেন্দ্রিক গণমাধ্যম আল-মনিটর জানায়, এ ঘোষণার মাত্র কয়েক দিন আগে ইসরায়েলের একটি কোম্পানির সঙ্গে তেল আবিবের ‘হাইফা বন্দর’ ২০৫৪ সাল পর্যন্ত যৌথভাবে ইজারা নেয় ভারতের বৃহত্তম বন্দর নির্মাণ ও পরিচালনাকারী কোম্পানি আদানি পোর্টস। ইসরায়েলের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ বন্দর ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যের মধ্যে যোগাযোগ বাড়াতে সাহায্য করবে।

একটা সময় পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সৌদি আরব, কাতার, আমিরাতসহ মধ্যপ্রাচ্যের অধিকাংশ দেশের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য বিশ্বের যেকোনো দেশের চেয়ে বেশি হলেও গত বছর তা সবচেয়ে বেশি ছিল চীনের সঙ্গে। গত বছর অঞ্চলটির সঙ্গে চীনের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য আগের বছরের তুলনায় প্রায় ৩৭ শতাংশ বেড়ে ৩৩ হাজার কোটি ডলারে পৌঁছায়।

কিন্তু এ ধারা হয়তো অব্যাহত থাকবে না। কারণ চীনের বিপুল জ্বালানি তেল দরকার। এই বিপুল চাহিদা মেটাতে সৌদির বাইরে অঞ্চলটির অন্য দেশ, ইরান ও রাশিয়ার সঙ্গে নানা ধরনের জ্বালানি চুক্তি করেছে বেইজিং। অন্যদিকে, উপসাগরীয় অঞ্চলের জটিল নিরাপত্তাব্যবস্থার নির্ভরযোগ্য সমাধান নেই বেইজিংয়ের হাতে।

জার্মানির বন শহরে অবস্থিত ‘প্রাচ্যের সঙ্গে অংশীদারত্ব বিষয়ক গবেষণাকেন্দ্রের (সিএআরপিও) গবেষক সেবাস্টিয়ান সন্স বলেন, বিআরইয়ের জন্য মধ্যপ্রাচ্য, বিশেষত সৌদি আরব অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দেশটির সঙ্গে চীনের অর্থনৈতিক সম্পর্ক দিন দিন বাড়ছে। বাণিজ্যের বাইরে গত শতকের আশির দশক থেকে চীন সৌদিকে মধ্য পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ও অন্য সামরিক সরঞ্জাম, সম্প্রতি দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির প্রযুক্তি ও সরঞ্জাম এবং ড্রোন বিক্রি করলেও নিরাপত্তার জন্য রিয়াদকে সব সময় পাশ ফিরতে হয়েছে। সাম্প্রতিক উত্তেজনা সত্ত্বেও দেশটিকে কড়া নাড়তে হয় যুক্তরাষ্ট্রের দরজায়।

কারণ সৌদি আরবের পুরোনো এ অর্থনৈতিক সহযোগী ও বৃহত্তম নিরাপত্তা সরবরাহকারীর এখনো বিকল্প হতে পারেনি চীন। তা ছাড়া সৌদি আরব যেহেতু বহুকেন্দ্রিক বিশ্বের অন্যতম ‘ঘটক’ হিসেবে ভূমিকা রাখতে চায়, তাই কোনো একক দেশের ওপর বড় ধরনের নির্ভর করবে না রিয়াদ।

যুক্তরাজ্যের ডারহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ডক্টরাল ফেলো জ্যাকোপো সিতাও মধ্যপ্রাচ্যে চীনের বাণিজ্যে জোর ও নিরাপত্তা নিয়ে প্রতিশ্রুতিতে ঘাটতি লক্ষ করেছেন। তিনি মনে করেন, গত দশকের মধ্যে মধ্যপ্রাচ্যে চীনের ‘অংশীদারত্বের কূটনীতি’ বেশ সফল। অঞ্চলটির একেক দেশের সঙ্গে চীনের এই নীতি একেক রকম ছিল। আমিরাতের সঙ্গে নীতিটি যে রকম ছিল, সৌদি আরবের সঙ্গে তেমনটি ছিল না।

অর্থাৎ এ সময় রিয়াদকে খানিকটা নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেওয়ারও চেষ্টা করেছে বেইজিং। কিন্তু বাণিজ্যই ছিল বেইজিংয়ের বরাবরের অগ্রাধিকার। এই প্রেক্ষাপটে অস্থির মধ্যপ্রাচ্যে সামরিকসংক্রান্ত শক্তিশালী উদ্যোগ না থাকাটা চীনকে ভবিষ্যতে ভোগাবে বলে মনে করেন জ্যাকোপো সিতা।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    গণতন্ত্র–অসমতা সূচকে পেছাচ্ছে বিশ্ব, ‘উন্নয়নশীল দেশের’ কাতারে যুক্তরাষ্ট্র

    গুজরাট নির্বাচনে আম আদমি থাকছে কি

    চীন-ভারত-রাশিয়াকে কাছে আনছে ইউক্রেন সংকট

    ইউক্রেন কি আসলেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে

    মাঠে অগ্রগতি ইউক্রেনের, বাড়ছে মিত্রদের সহায়তা

    পেন্টাগনের সমরনীতি কতটা বদলে দেবে প্রযুক্তি

    নারীদের জিনের ভয় দেখিয়ে স্বর্ণালঙ্কার হাতিয়ে নিত শরীফ

    মানসিক স্বাস্থ্যকে শিক্ষানীতিতে যুক্ত করার আহ্বান বিশেষজ্ঞদের

    অপহরণের ১৩ দিন পর স্কুলছাত্রী উদ্ধার, যুবক গ্রেপ্তার

    দেশ পরিচালনার নামে একটি সিন্ডিকেট লুটপাট করছে: মোশাররফ

    বাংলাদেশের ব্যাটিং এবারও মন ভরাতে পারল না

    মাদক মামলায় গ্রেপ্তার সংরক্ষিত মহিলা আসনে সদস্য পদপ্রার্থী