মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

সেকশন

 

নতুন মুদ্রানীতিতে রিজার্ভ গণনা আইএমএফের শর্ত মেনে

আপডেট : ২২ মে ২০২৩, ১০:৪১

নতুন মুদ্রানীতিতে রিজার্ভ গণনা আইএমএফের শর্ত মেনে আগামী অর্থবছরের ষাণ্মাসিক (জুলাই-ডিসেম্বর) মুদ্রানীতিতে কিছু চমক থাকছে। তার মধ্যে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) ঋণের শর্ত হিসাবে জুড়ে দেওয়া ব্যালেন্স অব পেমেন্ট অ্যান্ড ম্যানুয়াল (বিপিএম) ৬ অনুসরণ করার সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বিপিএম ৬-এর আওতায় দেশের রিজার্ভ নেট ইন্টারন্যাশনাল রিজার্ভ (এনআইআর) পদ্ধতিতে প্রকাশ করা হবে। তবে বর্তমান গণনাপদ্ধতিও বলবৎ থাকবে।

আর ডলারের একক রেট নির্ধারণে নীতিগতভাবে সমর্থন মিলেছে। পাশাপাশি সুদের হার নির্ধারণে বেঞ্চমার্ক পদ্ধতি ও ইন্টারেস্ট করিডর পদ্ধতি মানা হবে। এ ছাড়া মূল্যস্ফীতির হার ৬ শতাংশ এবং জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার সাড়ে ৭ শতাংশে নির্ধারণে মতামত উঠে এসেছে।

গতকাল রোববার বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদারের সভাপতিত্বে নির্বাহী পরিচালকসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত হয় বলে জানিয়েছেন সভায় অংশগ্রহণকারী একাধিক কর্মকর্তা। তবে বৈঠকে আর বৈঠকের মুদ্রানীতি বিষয়ে আলোচনার কথা নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. মেজবাউল হক।

সূত্র জানায়, আসন্ন মুদ্রানীতিতে আইএমএফের সংস্কার প্রস্তাব অনুযায়ী রিজার্ভ গণনায় পরিবর্তন আনা হয়েছে। নতুন পদ্ধতিতে ব্যয়যোগ্য রিজার্ভের হিসাব দেখানো হবে। বর্তমানে প্রায় ৩০ বিলিয়ন ডলারের রিজার্ভ রয়েছে। সেখান থেকে সাড়ে ৫ বিলিয়ন ডলার বাদ দিলে রিজার্ভ ২৪ বিলিয়নের ঘরে আসবে। আর এই সংখ্যা আইএমএফের সর্বনিম্ন সীমার (২২ দশমিক ৭৫ বিলিয়ন ডলার) ওপরে থাকবে; যা বাংলাদেশ ব্যাংকের জন্য বাড়তি দুশ্চিন্তা সৃষ্টি করবে না।

সূত্র আরও জানায়, নতুন মুদ্রানীতিতে ডলারের একক রেট নির্ধারণ করা হবে। ইচ্ছা করলে কোনো অনুমোদিত ডিলার ব্যাংক ভিন্ন ভিন্ন রেটে ডলার ক্রয়-বিক্রয় করতে পারবে না। তবে ডলার কেনা-বেচায় ভিন্ন রেট থাকবে। তবে কেনা অবস্থাতেই ডলারের দামের ব্যবধান ২ টাকার বেশি হবে না। এদিকে নতুন মুদ্রানীতিতে ৯ শতাংশ সুদের হারের সীমা তুলে দিয়ে সুদহারে করিডর পলিসি ও আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত বেঞ্চমার্ক পদ্ধতি মেনে চলা হবে। সেই রেট মেনে ব্যাংকগুলো লেনদেন করবে। এ ক্ষেত্রে মূল্যস্ফীতির চেয়ে সুদের হার কম হবে না।

মেজবাউল হক বলেন, ‘বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় হার একাধিক রেট একটিতে নিয়ে আসা, সুদহার বাজারমুখী করা ও রিজার্ভ হিসাব আইএমএফের বিপিএম ৬ পদ্ধতিতে করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে রিজার্ভ হিসাবে আমাদের প্রচলিত গ্রস হিসাবটিও থাকবে।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা জানান, গভর্নরের নির্দেশনা অনুযায়ী আগামী ১৮ জুন মুদ্রানীতি ঘোষণা করা হবে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    পোশাকের বাজার ধরে রাখাই চ্যালেঞ্জ: অর্থনীতি সমিতি

    প্রবাসীদের ডলার পাঠাতে উদ্বুদ্ধ করতে যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন ৩০ ব্যাংকের এমডি

    কেন্দ্রীয় ব্যাংকসহ নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোতে স্বচ্ছতা-জবাবদিহি হারিয়ে যাচ্ছে: ড. ফাহমিদা খাতুন

    আরও ৩০ পণ্যের জিআই দেওয়ার কাজ চলছে

    আবারও টানা সূচকের পতন পুঁজিবাজারে

    চাপের মুখে সুদহার এবার ১৪ শতাংশে আটকানোর আশ্বাস

    লিফট ও এসি দেখতে বিদেশ যাচ্ছেন আমলারা

    সমৃদ্ধ হচ্ছে রঙিন মাছের অর্থনীতি

    নজরুলসংগীত নিয়ে ভারত ও কানাডা যাচ্ছেন ফেরদৌস আরা

    মানুষ বড় কাঁদছে

    কানে গিয়ে নতুন সিনেমায় ভাবনা

    প্রশান্তির জন্য মেডিটেশন