মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

সেকশন

 

ডাচ্-বাংলার সোয়া ১১ কোটি টাকা ছিনতাই 

ব্যাংকের টাকা নিয়ে যাওয়া মাইক্রোবাসে নজর রাখছিলেন আকাশ 

আপডেট : ২৬ মার্চ ২০২৩, ১৭:৪৩

ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত কালো মাইক্রোবাস। ছবি: সংগৃহীত রাজধানীর উত্তরায় ডাচ্-বাংলা ব্যাংক লিমিটেডের সোয়া ১১ কোটি টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী আকাশ আহম্মেদ বাবুল। আজ রোববার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। 

দুপুরের আগে আকাশকে আদালতে হাজির করা হয়। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তাঁর জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করার আবেদন জানান। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ জসিম ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করেন। এরপর তাঁকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। 

এর আগে ১৪ মার্চ আকাশ আহম্মেদকে খুলনা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরদিন তাঁকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। ২১ মার্চ আবারও তাঁকে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। টানা ১০ দিন পুলিশ হেফাজতে থাকার পর আকাশ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হন। এই মামলায় এ পর্যন্ত ১০ জন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। 

আদালত সূত্রে জানা গেছে, আকাশ সরাসরি ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িত ছিলেন বলে স্বীকার করেছেন। তাঁর নেতৃত্বে এই ছিনতাই কাজে জড়িত ছিলেন অন্যান্যরা। বেশ কিছুদিন ধরেই তাঁরা ডাচ বাংলা ব্যাংকের টাকা নিয়ে যাতায়াতকারী মাইক্রোবাসটি লক্ষ্য করে আসছিলেন। তারপর ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা করেন। আকাশ নিজেই ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত কালো রঙের মাইক্রোবাস ভাড়া করেন। পরে সহযোগীদের নিয়ে মাইক্রোবাসে করে তুরাগ থানাধীন দিয়াবাড়ি ১১ নম্বর সড়কে অবস্থান করছিলেন। ব্যাংকের টাকা নিয়ে একটি গাড়ি যাওয়ার সময় তাঁরা সেটাকে আটকান। ওই গাড়িতে যাঁরা ছিলেন তাঁদের নামিয়ে হত্যার ভয় দেখিয়ে টাকার ৪টি বাক্স নিয়ে যান। এই মামলার আসামি সোহেল রানা, হৃদয় ও মিলনের সঙ্গে পরিকল্পনা করেছিলেন। 

স্বীকারোক্তিতে আসামি আকাশ আরও বলেন, মাইক্রোবাস থেকে টাকার বাক্সগুলো নিয়ে তাঁরা নিজেদের কালো রঙের মাইক্রোবাসে তোলেন। বাক্স ভেঙে টাকাগুলো বাজারের ব্যাগে করে নিজেদের মাইক্রোবাসে যান এবং নিরাপদ স্থানে গিয়ে প্রত্যেকে টাকাগুলো নিয়ে আলাদাভাবে সটকে পড়েন। একটি বাক্সে থাকা টাকা মাইক্রোবাসে রয়ে যায়। ওই টাকাগুলো ভাড়া করা মাইক্রোবাসের চালক নিয়ে যান। 
 
৯ মার্চ সকালে রাজধানীর উত্তরার তুরাগ থানাধীন দিয়াবাড়ি ১১ নম্বর সড়কে ডাচ বাংলা ব্যাংকের টাকা বহনকারী মানি প্লান্ট লিঙ্ক প্রাইভেট লিমিটেডের গাড়ি থেকে সোয়া ১১ কোটি টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় অজ্ঞাত ১০-১২ জনকে আসামি করে ৯ মার্চ দিবাগত রাতে মানি প্লান্ট লিঙ্ক প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালক আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে তুরাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    চিনি ছিনতাইয়ের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা জাহিদুল গ্রেপ্তার, রিমান্ড চায় পুলিশ 

    ব্যাংক ও বিকাশে চিনি চোরাচালানের টাকা নেন ছাত্রলীগ নেতা সুমন

    যুবকের জিহ্বা কামড়ে বিচ্ছিন্ন করলেন স্ত্রী

    দিয়াবাড়ি পশুহাটে টাকার ব্যাগ ছিনতাইকালে ২ যুবক গ্রেপ্তার 

    পুরান ঢাকার ব্যবসায়ী কেরানীগঞ্জ গিয়ে নিখোঁজ

    ভূগর্ভস্থ বৈদ্যুতিক তার চুরি, ১১ লাখ টাকার ক্যাবল, এস্কেভেটর ও ট্রাক জব্দ

    রোনালদোদের ম্যাচ কোথায় দেখবেন

    ছাগলের চামড়ার ‘নামমাত্র’ মূল্য, পড়ে আছে বাগানে

    রায়বেরেলি রেখে ওয়েনাড ছাড়ছেন রাহুল, প্রিয়াঙ্কাকে সংসদে আনার তোড়জোড়

    জুরাইনে কোরবানির গরুর মাংস বিক্রির হাট

    জাপান সফরের যাত্রাপথে প্লেন বিড়ম্বনায় নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

    সখীপুরে নিখোঁজের ১ দিন পর গৃহবধূর লাশ মিলল পুকুরে