মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

সেকশন

 

রাহুল গান্ধীর কারাদণ্ড: বিরোধীদের ‘সিস্টেম্যাটিক’ ঐক্য চায় কংগ্রেস

আপডেট : ২৫ মার্চ ২০২৩, ১০:৫৩

শীর্ষ নেতাদের উপস্থিতিতে জরুরি বৈঠক কংগ্রেসের। ছবি: টুইটার ভারতের কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীর দুই বছরের কারাদণ্ড ও লোকসভার সদস্যপদ হারানোর প্রতিবাদে দেশব্যাপী ‘গণতন্ত্র বাঁচাও’ আন্দোলনের পরিকল্পনা করছে দেশটির অন্যতম প্রাচীন দল কংগ্রেস। এই আন্দোলনে বিরোধীদের ‘সিস্টেম্যাটিক’ ঐক্য চায় দলটি। ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, গতকাল শুক্রবার কংগ্রেসের প্রধান মল্লিকার্জুন খারগে, কংগ্রেসের সাবেক সভাপতি সোনিয়া গান্ধী, সাবেক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী পি চিদাম্বরমসহ শীর্ষ কংগ্রেস নেতাদের উপস্থিতিতে এক জরুরি বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

গত বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) একটি মানহানি মামলায় দোষী সাব্যস্ত করে রাহুল গান্ধীকে দুই বছরের কারাদণ্ড দেন গুজরাটের সুরাটের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট (সিজেএম) এইচ এইচ ভার্মা। কারাদণ্ড ঘোষণার পর এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রাহুলের জামিন মঞ্জুর করেন আদালত। রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করার জন্য তাঁকে ৩০ দিনের সময় দেওয়া হয়েছে। এই সময় পর্যন্ত জামিনে থাকবেন রাহুল। 

এ রায় ঘোষণার পরদিন গতকাল শুক্রবার রাহুল গান্ধীকে দেশটির লোকসভা থেকে অযোগ্য ঘোষণা করা হয়। লোকসভা সচিবালয় থেকে জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভারতীয় সংবিধানের ১০২ (১)-ই অনুচ্ছেদ এবং জনপ্রতিনিধিত্ব আইন (১৯৫১)-এর ৮ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাহুলের লোকসভার সদস্যপদ খারিজ করা হলো। মানহানি মামলায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ার দিন অর্থাৎ ২৩ মার্চ, ২০২৩ থেকে তিনি আর এমপি নন। 

রাহুল গান্ধীকে লোকসভা থেকে অযোগ্য ঘোষণা করার পর গতকাল রাতেই জরুরি বৈঠক ডাকে কংগ্রেস। দলটির সিনিয়র নেতা জয়রাম রমেশ বলেন, ‘আমরা রাহুল গান্ধীর ইস্যুতে রাজনৈতিক কৌশল নিয়ে আলোচনা করেছি। অভিষেক মনু সিংভি দলের সদস্যদের আইনি কৌশল সম্পর্কে অবহিত করেছেন। আমরা আগামী দিনে সারা দেশে বিক্ষোভের পরিকল্পনা করেছি।’ 

জয়রাম রমেশ আরও বলেছেন, ‘রাহুল গান্ধী ইস্যুতে প্রতিবাদ জানাতে কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বিরোধীদের প্রতি “সিস্টেম্যাটিক” ঐক্যের আহ্বান জানানো হয়েছে। আমাদের এখন বিরোধী ঐক্যের বিষয়টিকে নিয়মতান্ত্রিক উপায়ে এগিয়ে নেওয়া উচিত।’

কংগ্রেসের সভাপতি প্রতিদিন পার্লামেন্টে বিরোধী দলগুলোর সঙ্গে সমন্বয় করছেন বলেও জানান তিনি। রমেশ বলেন, এখন এই সমন্বয়ের কাজ পার্লামেন্টের বাইরেও করতে হবে।

এর আগে কংগ্রেসের বেশ কয়েকজন আইনপ্রণেতা এবং আঞ্চলিক বিরোধী দলগুলোর নেতা যেমন—মমতা ব্যানার্জি, অরবিন্দ কেজরিওয়াল, এম কে স্ট্যালিন, উদ্ধব ঠাকরে, কেসিআর, অখিলেশ যাদব রাহুল গান্ধীকে সমর্থন করেছেন এবং ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারের ‘স্বৈরাচারী’ আচরণের সমালোচনা করেছেন। 

গতকালের জরুরি বৈঠকে মল্লিকার্জুন খারগে ও সোনিয়া গান্ধী ছাড়াও কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ভদ্র, কেসি ভানুগোপাল, জয়রাম রমেশ, রাজীব শুক্লা, তারিক আনোয়ার, সিনিয়র নেতা আনন্দ শর্মা, অম্বিকা সোনি, মুকুল ওয়াসনিক, সালমান খুরশিদ, পবন কুমার বানসাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। 

২০১৯ সালে লোকসভা নির্বাচনের আগে কর্ণাটকের কোলারে একটি সমাবেশে বক্তৃতা করার সময় রাহুল গান্ধী অভিযোগ করে বলেছিলেন, ‘সব চোরের ডাক নাম কীভাবে মোদি হয়!’ তাঁর এই মন্তব্যের পর বিজেপির বিধায়ক ও গুজরাটের সাবেক মন্ত্রী পূর্ণেশ মোদি রাহুলের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    নেতানিয়াহু-গ্যালান্ত ও ৩ হামাস নেতাকে গ্রেপ্তারের আবেদন আইসিসিতে

    স্ত্রীকে জীবন্ত মাটিচাপা দেওয়ার সাত বছর পর দায় স্বীকার, আমৃত্যু কারাদণ্ড 

    হাজার বছর পর কেমন হবে ভারত, রূপরেখা প্রকাশ করলেন মোদি

    ভারতের লোকসভা নির্বাচন: রাহুল, স্মৃতি ইরানি ও ওমর আবদুল্লাহর ভাগ্য নির্ধারণী ভোট আজ 

    হুমকি দেওয়া বন্ধ করতে চীনের প্রতি তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের আহ্বান 

    এমপি আনোয়ারুল আজিম নিখোঁজ: কলকাতায় জিডি, তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ 

    ভূমধ্যসাগরে ভাসতে থাকা ৩৫ বাংলাদেশি উদ্ধার

    সিলেটে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, ৩টি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ

    রেইনড্যান্স চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশের ছবি ‘ডেথ অ্যান্ড ল্যান্ডস্কেপ’

    সপ্তাহে ২৫০-৫০০০ টাকা পর্যন্ত সেভিংস খোলা যাচ্ছে বিকাশ অ্যাপে

    রাইসির মৃত্যুতে তেল ও সোনার বাজারে প্রভাবের শঙ্কা

    ভাইরাল খুদে ভ্লগার শিরাজের সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়ার কারণ জানালেন বাবা