Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

সেকশন

epaper
 

দেশেই ফিস্টুলার উন্নত চিকিৎসা 

আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩:২৮

 ফিস্টুলা থেকে পরিত্রাণের জন্য এখন আর ভারত বা সিঙ্গাপুর যাওয়ার প্রয়োজন নেই। দেশেই এখন এ রোগের মানসম্মত চিকিৎসা হচ্ছে। ফিস্টুলা বা ফিস্টুলা ইন এনো পায়ুপথের একটি রোগ। যাকে প্রচলিত ভাষায় নালিও বলা হয়। এটি দেখতে নালির মতো, যার একটি মুখ পায়ুপথের বাইরে থাকে, আর একটি মুখ থাকে পায়ুপথের ভেতরের দিকে। এই নালি দিয়ে পুঁজ, রক্ত ইত্যাদি বের হতে থাকে। তারপর ফুলে যাওয়া, ব্যথা করা, পায়খানা করতে সমস্যা ইত্যাদি হতে পারে। বিষয়টি কখনো কখনো বড় উপদ্রবের বিষয় হয়ে দাঁড়ায়।

প্রচলিত চিকিৎসা 

এটির প্রচলিত সমাধান হচ্ছে ফিস্টুলোটমি ও ফিস্টুলোকস্টমি। এতে পুরো নালি কেটে ফেলা হয়। এর ফলে বড় একটি ক্ষত তৈরি হয়। সেটি ড্রেসিং করে ভালো করতে হয়। এই ক্ষত শুকাতে দুই থেকে তিন মাস পর্যন্ত সময় লাগে। হাই লেভেল ফিস্টুলা হলে তিন থেকে চার ধাপে অপারেশন করাতে হয়। ফলে রোগীদের অনেক কষ্ট করতে হয়। একাধিক অপারেশন করাতে রোগীদের অনেক অর্থও ব্যয় করতে হয়। এই অপারেশনের একটি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে, মল ধরে রাখতে সমস্যা হয়। সিটন পদ্ধতি নামেও ফিস্টুলার একটি অপারেশন পদ্ধতি আছে। জটিল ফিস্টুলার ক্ষেত্রে এ পদ্ধতিতে দুই তিন ধাপে অপারেশন করা হয়। প্রতিটি ধাপের মধ্যবর্তী পর্যায়ে ৭ থেকে ১০ দিন বিরতি দেওয়া হয়। সাধারণত কোমরের নিচ থেকে অবশ করে অপারেশন করা হয়। এক-দুই দিন হাসপাতালে ভর্তি থাকতে হয়। ফিস্টুলা অপারেশনের পর ঘা শুকাতে চার থেকে ছয় সপ্তাহ পর্যন্ত সময় লাগতে পারে । যেকোনো অপারেশনের পর সে জায়গাটি সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত রাখতে তা ব্যান্ডেজ দিয়ে ঢেকে রাখা হয়। কিন্তু পায়ুপথের কোনো অপারেশন সম্পূর্ণ জীবাণুমুক্ত করে  শেষ করা সম্ভব হয় না। কারণ সেখানে স্বাভাবিকভাবে কোটি কোটি জীবাণু থাকে। এ জন্য প্রতি মুহূর্তে অপারেশনের জায়গাটিতে জীবাণুর সংক্রমণ হয়।

আধুনিক চিকিৎসা

দেশে লেজারের মাধ্যমে কাটাছেঁড়া ছাড়া এবং সহনীয়ভাবে জটিল ফিস্টুলার চিকিৎসা সম্ভব হচ্ছে এখন। দেশের চিকিৎসকেরা দক্ষ হাতে এ রোগের অপারেশন করাচ্ছেন এবং রোগীরা সুস্থ হয়ে উঠছেন। পায়ুপথের বিভিন্ন রোগে সর্বাধুনিক একটি চিকিৎসা হলো লেজার অপারেশন। এর নাম লেজার ফিস্টুলা ক্লোজার। পায়ুপথের এনাল ফিস্টুলা রোগে এ পদ্ধতিতে চিকিৎসা করা যায়। এ প্রক্রিয়ায় কোনো কাটাছেঁড়া করতে হয় না বলে ক্ষত ও রক্তপাত হয় না। ফলে সেলাইও করতে হয় না। এ জন্য পায়ুপথে ব্যথা, ক্ষত ইত্যাদি থাকে না। দীর্ঘদিন ড্রেসিং করা, গরম পানিতে বসা–যা সাধারণত পায়ুপথের বিভিন্ন অপারেশনের পর করতে হয়। অপারেশন। লেজার চিকিৎসায় এসবের প্রয়োজন হয় না।

লেখক: অধ্যাপক ও কলোরেক্টাল সার্জন
চেম্বার: পপুলার ডায়াগনস্টিক সেন্টার, শ্যামলী, ঢাকা

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    রোগীর ভোগান্তি কমায় প্যালিয়েটিভ কেয়ার

    প্রাণঘাতী অসুখ রক্তবমি ও কালো পায়খানা হলে

    এইডস রোগে চোখের জটিলতা

    শীতকালে জয়েন্টে ব্যথা হলে

    ক্যানসারের যে লক্ষণগুলো জানা জরুরি

    লিভারের রোগ নিয়ন্ত্রণ করবেন যেভাবে

    ‘এক বছর পর দেশে কোনো মানুষ গৃহহীন থাকবেন না’

    নয়াপল্টনের ঘটনার জন্য বিএনপিই দায়ী: তথ্যমন্ত্রী

    সাত ঘণ্টায়ও নিয়ন্ত্রণে আসেনি আগুন

    সমাবেশস্থল নিয়ে আলোচনা করতে ডিএমপি সদর দপ্তরে বিএনপি নেতারা

    দুপক্ষের সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক, ইউপি সদস্য আটক

    যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগের পেছনে আমাদের এক সাংবাদিক: পররাষ্ট্রমন্ত্রী