Alexa
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২

সেকশন

epaper
 

চীনে পাওয়া গেল ১০ কোটি বছরের পুরোনো ডাইনোসরের পায়ের ছাপ

আপডেট : ২০ জুলাই ২০২২, ১৮:৫৩

 চীনের সিচুয়ান প্রদেশের এক রেস্তোরাঁ প্রাঙ্গণে পাওয়া গেছে ডাইনোসরের পায়ের ছাপ। ছবি: সিএনএনের সৌজন্যে চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের এক রেস্তোরাঁ প্রাঙ্গণে পাওয়া গেছে ডাইনোসরের পায়ের ছাপ। এই পায়ের ছাপ ১০ কোটি বছর আগের বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। 

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, চীনের সিচুয়ান প্রদেশের লেশান এলাকার এক রেস্তোরাঁর বাইরের প্রাঙ্গণে বড় আকৃতির কয়েকটি পায়ের ছাপ পাওয়া গেছে। পাথরের মধ্যে গভীর গর্ত করে থাকা এই পায়ের ছাপ দুটি ডাইনোসরের। আরও ভালো করে বললে দুটি সরোপডের। এ ধরনের ডাইনোসর আজ থেকে ১০ কোটি বছর আগে এই পৃথিবীতে বেঁচে ছিল বলে জানিয়েছেন চায়না বিশ্ববিদ্যালয়ের জীবাশ্মবিদ লিডা জিং। 

লিডা জিংয়ের নেতৃত্বাধীন গবেষক দল গত শনিবার থ্রি-ডি স্ক্যানের মাধ্যমে বিষয়টি সম্পর্কে নিশ্চিত হয়েছে বলে জানিয়েছে। গবেষকেরা বলছেন, সরোপড ডাইনোসরদের মধ্যে সবচেয়ে বড়। এরা এমনকি তিনটি স্কুলবাসের সমান দৈর্ঘ্যের হতে পারত। সিচুয়ান প্রদেশে যে সরোপড দুটির পায়ের ছাপ পাওয়া গেছে, সেগুলোর দৈর্ঘ্য প্রায় ২৬ ফুট ছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। 

সিএনএন জানায়, এর আগে চীনের সিচুয়ান প্রদেশে জুরাসিক যুগের ডাইনোসরের জীবাশ্ম পাওয়া গেলেও এর ক্রিটাসিয়াস যুগের ডাইনোসরের অস্তিত্বের প্রমাণ এই প্রথম মিলল। ক্রিটাসিয়াস যুগ সম্পর্কে লিডা জিং সিএনএনকে বলেন, এটি সাড়ে ১৪ কোটি থেকে সাড়ে ৬ কোটি বছর পর্যন্ত বিস্তৃত একটি সময়কাল। এই সময়েই ডাইনোসরদের সবচেয়ে বেশি বিস্তার হয়েছিল বলে ধারণা করা হয়। একই সঙ্গে এই পর্যায়ের পরই ডাইনোসর প্রজাতির ক্ষয় শুরু হয়। সিচুয়ানে সরোপডের পায়ের ছাপ পাওয়ায় এখন এটা নিশ্চিত যে, চীনে কয়েক ধরনের ডাইনোসর ছিল। চীনে জীবাশ্মবিজ্ঞান ক্রমশ বিস্তার পাচ্ছে। আর এ কারণেই এখন এ সম্পর্কিত নতুন নতুন তথ্য সামনে আসছে। 

তবে এ ক্ষেত্রে কিছু সংকটের কথাও জানান লিডা জিং। তাঁর মতে, চীনে নগরায়ণ ব্যাপকভাবে হওয়ায় এ সম্পর্কিত গবেষণা কিছু বাধার সম্মুখীন হয়। শহরগুলো সব ভবনের দখলে। ফলে জীবাশ্মের দেখা মেলা কঠিন। এ জন্য কোনো সম্ভাবনাময় স্থানের খবর পেলেই সেখানে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ছুটতে হয়। কারণ, দেরি হলে দেখা যাবে, সেখানে নির্মাণকাজ শুরু হয়ে গেছে হয়তো। 

কথা হলো এত দিন পর কেন এই সরোপডের পায়ের ছাপের দেখা মিলল। উত্তরে লিডা জিং জানান, এখানে এখন রেস্তোরাঁ থাকলেও আগে এখানে ছিল মুরগির খামার। ফলে পাথরের ওপর থাকা এই পায়ের ছাপগুলো ময়লা-আবর্জনার নিচে চাপা পড়ে ছিল। অবশ্য এতে লাভও হয়েছে। এই আবর্জনাই একে ক্ষয় থেকে বাঁচিয়েছে। এক বছর আগে এই রেস্তোরাঁ হওয়ার আগে এই আবর্জনা সরানো হয়। আর এর মালিকও এই প্রাকৃতিক পাথরগুলো অক্ষত রেখেছিলেন।

বিজ্ঞান সম্পর্কিত আরও পড়ুন:

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    চাঁদের উদ্দেশে আর্টেমিস–১ উৎক্ষেপণ আবারও পেছাল

    হাঁসের ডিম কেন বিভিন্ন রংয়ের হয়

    শনির চারদিকে বলয় রেখে হারিয়ে গেছে চাঁদ

    নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যয় কমাবে ১২ লাখ কোটি ডলার 

    কোভিড আক্রান্ত বয়স্কদের আলঝেইমারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বেশি 

    কত হাজার বছর আগে হয়েছিল প্রথম অস্ত্রোপচার 

    আবারও বলছি, খবর আছে: বিএনপিকে কাদের

    কার্যকর গণতন্ত্রের জন্য চাই দ্বিকক্ষ বিশিষ্ট সংসদ: ড. তোফায়েল

    তোয়াব খানের মৃত্যুতে আইজিপি ও র‍্যাব প্রধানের শোক

    কংগ্রেসের প্রেসিডেন্ট প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচার শুরু

    বিশ্ববিদ্যালয়ে ই-নথি ব্যবস্থা জোরদারের আহ্বান

    জ্যোতিদের ফাইনাল খেলার সম্ভাবনা দেখছেন পাপন