বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪

সেকশন

 

গাড়ি থামিয়ে চালকের প্রেশার ও ডায়াবেটিস পরীক্ষা করা হবে: ফরিদপুরের ডিসি

আপডেট : ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ২০:০১

সভায় বক্তব্য দেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মো. কামরুল আহসান তালুকদার। ছবি: আজকের পত্রিকা ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক মো. কামরুল আহসান তালুকদার বলেছেন, ‘অধিকাংশ বাসের কাগজপত্র নেই। মাত্র ২৫ শতাংশ গাড়ির কাগজপত্র আছে। কাগজপত্রহীন গাড়িগুলো ফরিদপুর দিয়ে চলবে না, সোজা কথা। জীবিকার জন্য আমরা জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলব না। সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে কিছুটা অমানবিক ও কঠোর হতে হবে, আইন প্রয়োগ করতে হবে। অন্যথায় সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব না।’

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে ফরিদপুর জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলনকক্ষে এক সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

চালক সুস্থ ছাড়া গাড়িতে ওঠা যাবে না উল্লেখ করে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘রাস্তায় গাড়ি থামিয়ে চালকের প্রেশার, ডায়াবেটিস ঠিক আছে কি না—তা পরীক্ষা করা হবে। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যেখানেই মোবাইল কোর্ট নিয়ে যাব, সেখানে একজন চিকিৎসক থাকবেন। সঙ্গে ডোপ টেস্ট, ডায়াবেটিস মাপার কিট এবং পেশার মাপার যন্ত্র নিয়ে যাব। সুস্থ ছাড়া গাড়িতে ওঠা যাবে না, এটা আমরা নিশ্চিত করতে চাই। প্রেশার নিয়ে চালককে গাড়ি চালাতে দেওয়া যাবে না।’

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘পরপর দুই দিন ফরিদপুর ও ঝালকাঠি জেলায় দুটি ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনাসহ বিভিন্ন জেলায় দুর্ঘটনা ঘটে। এতে সংশ্লিষ্ট জেলার ডিসিরা মন্ত্রণালয়ের চাপে আছেন।’

ডিসি বলেন, চালক ও পরিবহনের কাগজপত্র, লাইসেন্স ও ফিটনেসহীন কোনো পরিবহন ফরিদপুরে প্রবেশ করতে পারবে না। একই সঙ্গে জেলায় থ্রি-হুইলার বন্ধের ঘোষণা দেন। এ জন্য সংশ্লিষ্ট সংসদ সদস্য, জনপ্রতিনিধি ও রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

জেলা প্রশাসক বলেছেন, ‘সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে আমরা খুব চাপের মধ্যে আছি, সরকার খুব চাপ দিয়েছে। আমরা এই চেয়ারে বসে এগুলো নিয়ন্ত্রণ করতে পারব না কেন। আজ সকালে সচিব স্যার আমাকে ফোন দিয়ে বলেছে, তোমাদের অংশে তোমাদেরই নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। কীভাবে করবা—এটা তোমরা বসে করো। এটা না পারার কিছু নেই। সবার আগে জীবন, জীবনের নিরাপত্তা আগে দিতে হবে। এটাই স্যারের শেষ কথা।’

মো. কামরুল আহসান তালুকদার বলেন, ‘ঈদের আগে সড়কে যে স্বস্তিদায়ক অবস্থা ছিল, ঈদের পরে বড় দুটি সড়ক দুর্ঘটনা পুরো মন্ত্রণালয়কে কাঁপিয়ে দিয়েছে। যে কারণে তাঁরা খুবই অস্বস্তিতে আছেন এবং আমাদের ওপরই চাপ এসে পড়েছে। প্রত্যেকটি দুর্ঘটনার পেছনেই স্বল্পগতির গাড়ির একটা ভূমিকা থাকেই। আমরা দ্রুত এই গাড়িগুলো বন্ধ করব।’

কাগজপত্র ও ফিটনেসহীন কোনো গাড়ি ফরিদপুরে প্রবেশ করতে পারবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়ে জেলা প্রশাসক বলেন, ‘আমরা সারা দেশে বার্তা দিতে চাই, ফরিদপুর পার হতে হলে গাড়ির ফিটনেস থাকতে হবে। অন্যথায় প্রবেশ করতে পারবে না। আর নয়, আমরা গাড়ি ডাম্পিং করে ফেলব।’

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘ফরিদপুরে মহাসড়কে কোনো থ্রি-হুইলার চলবে না। এ জন্য লোকাল বাসের সংখ্যা বাড়াতে হবে। এগুলো বাস্তবায়নে শিগগিরই  আমরা কঠোর অভিযানে নামব।’

সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম, মাদারীপুর রিজিয়নের হাইওয়ে পুলিশ সুপার মো. শাহিনুর আলম খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সালাউদ্দিন, সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইমরান ফারহান, ট্রাফিক ইন্সপেক্টর তুহিন লস্কর, জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সোহেল শেখসহ জেলা বাস ও ট্রাক মালিক সমিতির নেতারা।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     

    বাদীর টাকা ফেরত দিয়ে মামলায় খালাস পেলেন ইভ্যালির রাসেল ও শামীমা

    ডাসারে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু

    অর্ধকোটি টাকা আত্মসাৎ: স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ইউএনওর কাছে অভিযোগ 

    মিয়ানমার থেকে ছোড়া গুলিতে বাংলাদেশি জেলে আহত 

    নির্জন এলাকায় বাগানবাড়ি, শাহীনের বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ গ্রামবাসী

    নদীখেকোদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলা দরকার: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    বাদীর টাকা ফেরত দিয়ে মামলায় খালাস পেলেন ইভ্যালির রাসেল ও শামীমা

    পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের সেই ইনচার্জের বিরুদ্ধে ঘুষ আদায়ের অভিযোগের তদন্ত শুরু

    ডাসারে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু

    অর্ধকোটি টাকা আত্মসাৎ: স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ইউএনওর কাছে অভিযোগ 

    মিয়ানমার থেকে ছোড়া গুলিতে বাংলাদেশি জেলে আহত 

    এইচএসসির ফরম পূরণের সময় ফের বাড়ল