সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

সেকশন

 

মিয়ানমারে ভিক্ষুসহ ২২ জনকে হত্যা, জান্তার বিরুদ্ধে অভিযোগের তির

আপডেট : ১৭ মার্চ ২০২৩, ১৬:৫৯

 মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলে বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ ২২ জনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। ছবি: টুইটার মিয়ানমারের মধ্যাঞ্চলে তিন বৌদ্ধ ভিক্ষুসহ ২২ জনকে গুলি করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে। গত সপ্তাহে বেসামরিকদের ওপর এই হত্যাকাণ্ড বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর জান্তা বিরোধীরা বলছে সেনাবাহিনী কর্তৃক পরিচালিত গণহত্যার অংশ এটি। 

মিয়ানমার জান্তার একজন মুখপাত্র জানান, দেশটির দক্ষিণ শান রাজ্যের পিনলাউং অঞ্চলে বিদ্রোহী যোদ্ধাদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছিল সেনারা। তবে এতে কোনো বেসামরিক লোকের ক্ষতি হয়নি।

জান্তা মুখপাত্র জাও মিন তুন এক বিবৃতিতে বলেন, স্থানীয় জনগণের নিরাপত্তা দিতে সরকারি বাহিনী নান নিন্ট গ্রামে প্রবেশ করলে কারেনি ন্যাশনালিটিজ ডিফেন্স ফোর্স (কেএনডিএফ) এবং অন্য একটি বিদ্রোহী গোষ্ঠী হামলা চালায়। যখন সন্ত্রাসীরা হিংস্রভাবে এলোপাতাড়ি গুলি চালায়, তখন কয়েকজন গ্রামবাসী নিহত ও আহত হয় বলে জানান তিনি। 

তবে বিস্তারিত মন্তব্যের জন্য রয়টার্সের অনুরোধে সাড়া দেননি জান্তা মুখপাত্র। রয়টার্স তাই স্বাধীনভাবে ওই দাবির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি। 

এদিকে কেএনডিএফ’র একজন মুখপাত্র বলেছেন, তাঁদের সৈন্যরা রোববার নান নিন্টে প্রবেশ করে একটি বৌদ্ধ বিহারে মৃতদেহগুলো পড়ে থাকতে দেখে। 

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে এনএলডি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। ছবি: টুইটার কেএনডিএফ ও কারেনি রেভোলিউশন ইউনিয়নের (কেআরইউ) প্রকাশিত ভিডিও এবং ছবিতে মৃতদেহের শরীর ও মাথায় বুলেটের ক্ষত দেখা যায়। এ ছাড়া পার্শ্ববর্তী বৌদ্ধ বিহারের দেয়ালে বুলেটের ছিদ্র দেখা গেছে। তবে এসব ভিডিও এবং ছবির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স। 

স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদন, জান্তাবিরোধী প্রতিরোধ যোদ্ধা এবং মানবাধিকার সংস্থা মিয়ানমার উইটনেসের যাচাইকৃত স্যাটেলাইট ইমেজ অনুসারে, নান নিন্টে গণহত্যা সংঘটিত হচ্ছে। সেখানকার প্রায় ১০০টি স্থাপনা পুড়িয়ে ফেলার পাশাপাশি কমপক্ষে দুই সপ্তাহ ধরে লড়াই চলছে। 

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে অং সান সু চি নেতৃত্বাধীন এনএলডি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করে মিয়ানমার সেনাবাহিনী। এ সময় সু চিসহ এনএলডির জ্যেষ্ঠ নেতাদের গ্রেপ্তার করা হয়। 

তবে দেশের জনগণের বড় একটি অংশ সামরিক শাসনে ফিরে যেতে চায়নি। ফলে দেশজুড়ে বিক্ষোভ ও আন্দোলন করতে শুরু করে সাধারণ মানুষ ও গণতান্ত্রিক সরকারের কর্মীরা। পরে তাদের সঙ্গে যুক্ত হয় ক্ষমতাচ্যুত ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) নির্বাচিত অংশ। এরপর সেনাদের হাতে এ পর্যন্ত ৩ হাজারের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। আর গ্রেপ্তার হয়েছেন ১৫ হাজারের বেশি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    এবার কাতার এয়ারওয়েজের বিমান ঝোড়ো বাতাসের কবলে, আহত ১২

    পাপুয়া নিউগিনিতে ভূমিধসে ৬৭০ জনের বেশি মাটি চাপা পড়ার শঙ্কা

    পশ্চিমবঙ্গে মধ্যরাতে আছড়ে পড়বে সাইক্লোন রিমাল, কলকাতা বিমানবন্দর ২১ ঘণ্টা বন্ধ 

    চীনের সামরিক মহড়ার পর তাইওয়ানের প্রেসিডেন্টের আলোচনার প্রস্তাব

    ভারতে মাতৃদুগ্ধ বিক্রি ও প্রক্রিয়াজাতকরণ নিষিদ্ধ

    দিল্লির শিশু হাসপাতালে মধ্যরাতে আগুন, অন্তত ৭ নবজাতকের মৃত্যু

    ১০২ কিমি বেগে উপকূলে ঘূর্ণিঝড় রিমালের আঘাত, জোয়ার-জলোচ্ছ্বাসে প্লাবণ

    উপকূল জুড়ে চলছে রিমালের তাণ্ডব

    এবার কাতার এয়ারওয়েজের বিমান ঝোড়ো বাতাসের কবলে, আহত ১২

    শর্ত পূরণ না করায় সহজ ডটকমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ সংসদীয় কমিটির

    চলতি বছর ডেঙ্গু দেশের জন্য অশনিসংকেত

    এমআরসিপিতে সর্বোচ্চ নম্বরের রেকর্ড গড়লেন ডা. হালিম