Alexa
সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২

সেকশন

epaper
 
ফ্যাক্টচেক

আইয়ুব আলীর কি সত্যিই সবুজ নামে ছেলে আছে

আপডেট : ২৪ মার্চ ২০২২, ১৮:০১

একই নাম ও ঠিকানা ব্যবহার করে ভিন্ন ভিন্ন নম্বর ব্যবহার করে সাহায্যের আবেদন ঘুরে বেড়াচ্ছে ফেসবুকে। ছবি: ফেসবুক থেকে স্ক্রিনশট গুলশান, বনানীর মতো অভিজাত এলাকায় আজকাল দেখা যায় ‘ভিক্ষুক মুক্ত এলাকা’ লেখা সাইনবোর্ড। ভিক্ষাবৃত্তি এ শহরে অনেকেরই পেশা, সেটি বোধ করি কারও অজানা নয়। এই পেশাজীবী ভিক্ষুকদের জন্য সত্যিকারের অনাহারী ও অসহায় মানুষেরাই বরং অনেক সময় সাহায্য থেকে বঞ্চিত হন।

আজকাল রাস্তাঘাট ও বাসা-বাড়ি ছাপিয়ে ডিজিটাল ভিক্ষাবৃত্তির এক মহোৎসব দেখা যায় ফেসবুকে। আজকের পত্রিকা ফ্যাক্টচেক বিভাগের অনুসন্ধানে নানা সময়ে বেরিয়ে এসেছে, এসব সাহায্য প্রার্থনার আড়ালে চলছে রমরমা বাণিজ্য।

বীভৎস ছবি ব্যবহার করে কোনো ব্যক্তির মানবিক বর্ণনা দিয়ে সাহায্য প্রার্থনার এই পোস্টগুলোতে জুড়ে দেওয়া হয় মোবাইল নম্বর। টাকা পাঠানোর জন্য উল্লেখ করা সেসব মোবাইল কখনোই খোলা পাওয়া যায় না; খোলা থাকলেও কল ধরা হয় না।

অন্যদিকে ছবিগুলো রিভার্স ইমেজ সার্চ প্রযুক্তিতে অনুসন্ধান করে দেখা যায়, ছবির চরিত্রটি হয়তো আগেই সুস্থ হয়ে গেছেন, নয়তো তিনি বাংলাদেশেরই নন।

একই নাম ও ঠিকানা ব্যবহার করে ভিন্ন ভিন্ন নম্বর ব্যবহার করে সাহায্যের আবেদন ঘুরে বেড়াচ্ছে ফেসবুকে। ছবি: ফেসবুক থেকে স্ক্রিনশট অনুসন্ধানে মিলল সবুজ নামের এক শিশুর সন্ধান। এই নামে আদৌ কোনো অসুস্থ শিশু আছে কি-না, সেটি জানা না গেলেও ফেসবুকে দেখা মিলল একই নামের অন্তত পাঁচ শিশুর আলাদা-আলাদা ছবি। ফেসবুকে প্রচারিত সবুজের ছবি ভিন্ন ভিন্ন হলেও সবার বাবার নাম ও পেশা এক। অসুস্থতার বর্ণনাও হুবহু এক। পার্থক্য শুধু টাকা পাঠানোর জন্য দেওয়া নম্বরগুলোতে।

একই নাম ও ঠিকানা ব্যবহার করে ভিন্ন ভিন্ন নম্বর ব্যবহার করে সাহায্যের আবেদন ঘুরে বেড়াচ্ছে ফেসবুকে। ছবি: ফেসবুক থেকে স্ক্রিনশট প্রতিটি পোস্টে সবুজ নামের পাঁচ মাস বয়সী ওই শিশুর বাবার নাম লেখা হচ্ছে আইয়ুব আলী। পোস্টগুলোতে উল্লেখ করা হয়েছে, আইয়ুব আলীর বাড়ি গাজীপুর সদরের নলজানি গ্রামে। তিনি একজন গার্মেন্টস শ্রমিক। বাড়ি নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার কাচারিবাজার গ্রামে। গত প্রায় চার মাস থেকে শিশুটির পায়ের ভেতরে টিউমার বড় হতে থাকে। এত দিন হাসপাতালে চিকিৎসা নিলেও টিউমারের বৃদ্ধি অব্যাহত আছে।

যাচাই করে দেখা যায়, পোস্টগুলোর সঙ্গে ব্যবহার করা ছবিগুলো সবুজ নামের কোনো শিশুর নয়। এগুলো ভারতের কেটো নামের একটি ওয়েবসাইট থেকে নেওয়া। কেটো নামের এই ওয়েবসাইট অসুস্থ রোগীর তথ্য ও ছবি দিয়ে অর্থ সাহায্য সংগ্রহ করে। সেখানে ওই রোগীর চিকিৎসা-সংক্রান্ত সকল তথ্যও জুড়ে দেওয়া হয়। রোগী সুস্থ হয়ে গেলে সেটিও জানিয়ে দেওয়া হয়।

 

কেটো নামের ওয়েবসাইট থেকেই মূলত ছবিগুলো সংগ্রহ করা হয়। ছবি: ওয়েবসাইট থেকে স্ক্রিনশট পোস্টে উল্লেখ থাকা ফোন নম্বরগুলোতে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু প্রতিটি নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। মূলত এই নম্বরগুলো বিকাশ বা নগদ অ্যাকাউন্ট হিসেবে ব্যবহার করা হয়। ফলে অধিকাংশ সময় এগুলো বন্ধ থাকে।  সাধারণ ফেসবুক ব্যবহারকারীদের অনেকেই তাদের এই কৌশলের জালে ধরা পড়েন, সাহায্য পাঠান ওই সব নম্বরে।

এর আগেও আজকের পত্রিকা ফ্যাক্টচেক বিভাগের অনুসন্ধানে এমন একাধিক প্রতারণামূলক পোস্টের প্রমাণ উঠে এসেছে। এ রকম কিছু প্রতিবেদন পড়ুন:

সম্প্রতি ভিন্ন ঘটনা থেকে ছবি সংগ্রহ করে সেটি ব্যবহার করে মিথ্যে গল্প লিখে ফেসবুকে সাহায্য চাওয়ার প্রবণতা বেড়েছে। ফলে ফেসবুকে অসহায় কোনো ব্যক্তির ছবি দেখে সেখানে উল্লেখ করা ফোন নম্বরে টাকা পাঠানোর আগে সেটি যাচাই করে নেওয়া প্রয়োজন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম, সংবাদমাধ্যম বা যেকোনো মাধ্যমে প্রচারিত কোনো ছবি, ভিডিও বা তথ্য বিভ্রান্তিকর মনে হলে, তার স্ক্রিনশট বা লিংক কিংবা সে সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য আমাদের ই-মেইল করুন। আমাদের ই-মেইল ঠিকানা—[email protected]

আরও পড়ুন ফ্যাক্টচেক:

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     
    ফ্যাক্টচেক

    পদ্মা সেতু: লড়তে হয়েছে গুজবের সঙ্গেও

    ফ্যাক্টচেক

    মঞ্চ ভেঙে শিল্পী অদৃশ্য: কোক স্টুডিও বাংলা কনসার্টে নয়

    ফ্যাক্টচেক

    পুরোটাই গুজব: পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠান স্থগিত

    ফ্যাক্টচেক

    ওই সাত শিশু এক মায়ের নয়

    ফ্যাক্টচেক

    মৃতদেহ পানিতে পড়ে যাওয়ার ভিডিওটি টিভি নাটকের দৃশ্য

    ফ্যাক্টচেক

    ‘যে মাদক অফার করে, সে কখনো বন্ধু হতে পারে না’

    কারাগারে দল গঠনের পর মহাসড়কে ডাকাতি করতেন তাঁরা

    প্রথম স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা, দ্বিতীয় স্ত্রীসহ যুবক গ্রেপ্তার 

    আ.লীগ জনগণের সেবক হয়ে থাকতে চায়: কাদের

    সিধু মুসওয়ালা হত্যাকাণ্ডের অন্যতম শুটারসহ গ্রেপ্তার ২