মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪

সেকশন

 

ফোনে আড়ি পাতছে সরকার, গোয়েন্দারা সতর্ক করেছিলেন রাহুলকে

আপডেট : ০৩ মার্চ ২০২৩, ২৩:১২

ফোনে আড়ি পাতছে সরকার, গোয়েন্দারা সতর্ক করেছিলেন রাহুলকে কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে দেওয়া একটি বক্তৃতায় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। ভারতীয় গণতন্ত্রের মৌলিক কাঠামোর ওপর আক্রমণের নমুনা হিসেবে তিনি দাবি করেন, ইসরায়েলি স্পাইওয়্যার পেগাসাস দিয়ে তাঁর মোবাইল ফোনে আড়ি পাতা হয়েছে। 

রাহুল গান্ধী দাবি করেছেন, গোয়েন্দা কর্মকর্তারা তাঁকে এ ব্যাপারে ‘সতর্ক’ করেছিলেন। তাঁরা বলেছিলেন, তাঁর কল রেকর্ড করা হচ্ছে। সুতরাং তিনি যেন সাবধানে কথা বলেন! 

কংগ্রেস নেতা এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সাবেক উপদেষ্টা স্যাম পিত্রোদা ইউটিউবে রাহুল গান্ধীর ভাষণটি শেয়ার করেছেন। ‘লার্নিং টু লিসেন ইন দ্য টুয়েন্টি ফার্স্ট সেঞ্চুরি’ শীর্ষক সেমিনারটি আয়োজন করে কেমব্রিজ জাজ বিজনেস স্কুলের এমবিএর শিক্ষার্থীরা। গতকাল বৃহস্পতিবার এ সেমিনারের আয়োজন করা হয়।

রাহুল গান্ধী তাঁর বক্তৃতায় বলেন, ‘আমার নিজের ফোনে পেগাসাস ছিল। অনেক রাজনীতিবিদের ফোনে পেগাসাস ছিল। আমাকে গোয়েন্দা কর্মকর্তারা ফোন করেছিলেন, তাঁরা আমাকে বলেছিলেন, “আপনি ফোনে কথা বলার সময় সতর্ক থাকুন। কারণ, আমরা রেকর্ড করছি। তাই আমি ক্রমাগত চাপ অনুভব করি। বিরোধীদের ওপর মামলা দেওয়া হচ্ছে। আমি এমন অনেকগুলো ফৌজদারি মামলা পেয়েছি, যেগুলো কোনো পরিস্থিতিতেই ফৌজদারি মামলা হওয়া উচিত নয়।’ 

গত বছরের আগস্টে সুপ্রিম কোর্ট নিযুক্ত কমিটি আড়ি পাতার জন্য পেগাসাস স্পাইওয়্যার ব্যবহারের অভিযোগটি খতিয়ে দেখে। সরকারের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগ তদন্তে গঠিত কমিটি জানায়, তাদের পরীক্ষা করতে দেওয়া ২৯ মোবাইল ফোনের মধ্যে পাঁচটিতে ম্যালওয়্যার পাওয়া গেছে। 

কমিটির প্রতিবেদন পড়ে হাইকোর্ট বেঞ্চ বলেছিল, ‘আমরা টেকনিক্যাল কমিটির রিপোর্ট নিয়ে উদ্বিগ্ন...২৯টি ফোন দেওয়া হয়েছিল এবং পাঁচটি ফোনে কিছু ম্যালওয়্যার পাওয়া গেছে। কিন্তু টেকনিক্যাল কমিটি বলছে এটাকে পেগাসাস বলা যাবে না।’ 

সংসদ, গণমাধ্যম এবং বিচার বিভাগের ওপর সরকার নিয়ন্ত্রণ আরোপ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন রাহুল গান্ধী। 

কংগ্রেস নেতা বলেন, ‘সবাই জানে এবং এটা অনেক খবরে এসেছে যে ভারতীয় গণতন্ত্র চাপের মধ্যে রয়েছে। আমি ভারতের একজন বিরোধী নেতা, আমরা সেই (বিরোধীদের) স্থানটি ধরে রাখার চেষ্টা করছি। গণতন্ত্রের জন্য যে প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো প্রয়োজন—সংসদ, মুক্ত গণমাধ্যম, স্বাধীন বিচার বিভাগ, সমাবেশ—এগুলো সবই এখন নিয়ন্ত্রিত। সুতরাং, আমরা ভারতীয় গণতন্ত্রের মৌলিক কাঠামোর ওপর আক্রমণের সম্মুখীন হচ্ছি।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     

    হাজার বছর পর কেমন হবে ভারত, রূপরেখা প্রকাশ করলেন মোদি

    ভারতের লোকসভা নির্বাচন: রাহুল, স্মৃতি ইরানি ও ওমর আবদুল্লাহর ভাগ্য নির্ধারণী ভোট আজ 

    এমপি আনোয়ারুল আজিম নিখোঁজ: কলকাতায় জিডি, তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ 

    ভারতের লোকসভা নির্বাচনের পঞ্চম ধাপের ভোট গ্রহণ আজ, লড়ছেন রাহুল 

    ইরানি প্রেসিডেন্টের হেলিকপ্টার দুর্ঘটনার খবরে মোদির উদ্বেগ

    ‘মিসরীয় ছাত্রীকে হয়রানি’র ঘটনা থেকে কিরগিজ ও বিদেশি শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত

    দুঃস্বপ্ন দেখলে পাঁচ করণীয়

    ভূমধ্যসাগরে ভাসতে থাকা ৩৫ বাংলাদেশি উদ্ধার

    সিলেটে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, ৩টি মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ

    রেইনড্যান্স চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশের ছবি ‘ডেথ অ্যান্ড ল্যান্ডস্কেপ’

    সপ্তাহে ২৫০-৫০০০ টাকা পর্যন্ত সেভিংস খোলা যাচ্ছে বিকাশ অ্যাপে

    রাইসির মৃত্যুতে তেল ও সোনার বাজারে প্রভাবের শঙ্কা