Alexa
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২

সেকশন

epaper
 

বঙ্গবন্ধুর খুনিরা ভাড়াটিয়া, মূল পরিকল্পনাকারী বিদেশি পরাশক্তি ও জিয়া: লিটন

আপডেট : ১৪ আগস্ট ২০২২, ২০:০৬

এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। ফাইল ছবি  আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুর খুনিরা ভাড়াটিয়া রশিদ, হুদা। তারা হচ্ছেন স্রেফ ভাড়াটিয়া খুনি। মূল মাস্টার মাইন্ড পরাশক্তি। বিদেশি শক্তি বাদ দিলে জিয়াউর রহমান এক নম্বর।’ 

আজ রোববার রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মিলনায়তনে আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ উপ কমিটি আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

কালুরঘাট বেতার কেন্দ্রে নিজের নামে স্বাধীনতা ঘোষণা দেওয়ার মাধ্যমে জিয়াউর রহমান উচ্চাভিলাষেরই প্রমাণ দিয়েছেন দাবি করে লিটন বলেন, ‘পরে যখন বলা হলো, আপনাকে কে চিনে আপনি ঘোষণা দেওয়ার কে? তখন বঙ্গবন্ধুর পক্ষ থেকে ঘোষণা দিল।’ 

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র বলেন, ‘এই যে উচ্চাভিলাষ তখন থেকেই খন্দকার মোস্তাক, বদরুল হুদা, রশিদ, ফারুক, ডালিম তাঁদের মধ্যে একটা যোগ সূত্র হলো। তারই প্রমাণ হলো ১৯৭৫ সালে। বঙ্গবন্ধু খুন হয়ে সিঁড়িতে পড়ে আছেন, তখন জিয়াউর রহমান সাড়ে ৪টার দিকে লাইট জ্বালিয়ে শেভ করছেন। তিনি তৈরি হবেন কারণ তাঁর মিশন কমপ্লিট হয়েছে। এখন তাঁকে যেতে হবে, পরবর্তী কার্যক্রম হাতে নেওয়ার জন্য।’ 
 
লিটন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর লাশ সিঁড়িতে পড়ে আছে, জিয়াউর রহমান কিছুদিনের জন্য মোস্তাককে ক্ষমতায় দিল, খুনির দায় মুক্তিতে জিয়ার নির্দেশে সংসদে পাঠাল। পরে জিয়াউর রহমান সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনীতে অন্তর্ভুক্ত করল।’ 

দুর্ভিক্ষ সৃষ্টিসহ নানা কৌশলের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার ক্ষেত্র তৈরি করা হয়েছিল দাবি করেন আওয়ামী লীগের এ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য। 
 
বঙ্গবন্ধু হত্যার ক্ষেত্র তৈরিতে তৎকালীন বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্র যারা গঠন করেছিল তাদের দায়ী করে লিটন বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর ক্ষমতায় আসার এক বছরের মধ্যে কি এমন ঘটল? যে বাংলাদেশে একটি দল বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্রের স্লোগান দিয়ে গঠন করার প্রয়োজন হলো? কারা ছিলেন পেছনে? কারা নেপথ্যে ছিলেন। সমাজতন্ত্রকে যদি আমরা মনে করি একটা বৈজ্ঞানিক বিষয় তাহলে তার আগে বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্র হাজির করেছিল কারা? আমরা জানি।’ 
 
জাসদের তাত্ত্বিক নেতা সিরাজুল আলম খান বেঁচে আছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আরও যারা ছিলেন, তাঁদের নাম আমি বলছি না। নাম আপনারা সবাই জানেন। তারা মিলে বৈজ্ঞানিক সমাজতন্ত্র করলেন। পরাশক্তির ইন্ধন ছিল নিশ্চয়ই, তা না হলে তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মনছুর আলীর বাড়ির সামনে জাসদের মিছিল থেকে গুলি বর্ষণ হয় কোন সাহসে। ঈদের জামাতে সংসদ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করা হয় কোন সাহসে। ব্যাংক ডাকাতি করে জয়বাংলা স্লোগান দিয়ে আওয়ামী লীগকে দায়ী করা হয়, কারা করে?’ 
 
অনুপ্রবেশকারীরা সত্যিকারের আওয়ামী পরিবারের লোকদের ‘কোণঠাসা’ করে রেখেছে বলে জানান জাতীয় নেতা প্রয়াত এএইচএম কামরুজ্জামানের সন্তান এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। তিনি বলেন, ‘এই অবস্থা চলতে দেওয়া যাবে না।’ 

টানা তিন মেয়াদে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকায় অনুপ্রবেশ ঘটেছে বলে দাবি তার। তিনি বলেন, ‘আমার আগেও আমার বড়ভাই ও আমাদের প্রয়াত আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম তখনই বলেছেন দলে অনুপ্রবেশকারী ঢুকেছে। সত্যই অনেক জায়গায় ঢুকেছে। তাঁদের আমরাই ঢুকিয়েছি, পদ পদবি দিয়েছি, আসন দিয়েছি।’ 

অনুপ্রবেশকারীরা মূল ও বংশগত আওয়ামী লীগারদের ঘিরে রেখেছে দাবি করে তিনি বলেন, ‘যারা অনুপ্রবেশ করেছে তারাই বলছে আমরা আওয়ামী লীগার, আর যারা আসল আওয়ামী লীগের তাঁদের বাইরে রেখেছে। এই অবস্থা চলতে দেওয়া যাবে না। আমি জানি আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা সমস্ত খবর রাখেন তিনিও এবার এই সমস্ত বিষয়ে অনেক বেশি নজরদারি করছেন এবং করবেন।’ 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার নেপথ্যে ষড়যন্ত্র ও সহায়তাকারীদের খুঁজতে তদন্ত কমিশন গঠনের দাবি জানান আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক এবং বন ও পরিবেশ উপ কমিটির সদস্যসচিব দেলোয়ার হোসেন। তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্য নায়কদের খুঁজে বের করতে তদন্ত কমিশন গঠন এখন সময়ের দাবি। কমিশন গঠন করে নেপথ্যের ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজে বের করতে হবে। আমাদের তরুণ প্রজন্মকে জানাতে হবে আমাদের জানতে হবে বঙ্গবন্ধু হত্যার নেপথ্যে কি হয়েছিল, কারা পর্দার আড়ালে হত্যার ষড়যন্ত্র করেছিল। সেই রাতের নির্মম নির্মম হত্যাকাণ্ডের কাহিনি, আমাদের জানতে হবে।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    এই সুন্দর মুখ দেখতে চাই, এমপিকে কটাক্ষ করে ওবায়দুল কাদের

    আবারও বলছি, খবর আছে: বিএনপিকে কাদের

    ‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হলে আ. লীগ ৩০ আসনও পাবে না’

    পূজামণ্ডপের পাহারায় থাকবেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরাও: কাদের

    গাইবান্ধা-৫ উপনির্বাচনে নৌকার মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন বিচারপতি খুরশীদের স্ত্রী

    হাজারীবাগে সংঘর্ষ: হামলাকারীদের ধরতে ২৪ ঘণ্টার আলটিমেটাম আওয়ামী লীগের

    নিখোঁজের ৩ দিন পর মিলল কিশোরের মরদেহ 

    সঠিক তথ্যের অভাবে সঠিক পরিকল্পনা নেওয়া হয় না: ইলিয়াস কাঞ্চন

    টেকনাফে আবারও এক কৃষককে অপহরণ করেছে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা

    কিশোরগঞ্জের পাগলা মসজিদের দানবাক্সে পাওয়া গেল প্রায় ৪ কোটি টাকা

    রাজধানীতে বাসা থেকে নারীর অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার

    এই সুন্দর মুখ দেখতে চাই, এমপিকে কটাক্ষ করে ওবায়দুল কাদের