মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 
ফ্যাক্টচেক

‘বিয়ের জন্য পাত্র খুঁজছেন’ এমন টুইট করেননি তসলিমা

আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:১৯

 তসলিমা নাসরিন। ছবি: ফেসবুক থেকে ‘বিয়ে করার জন্য পাত্র খুঁজছেন তসলিমা নাসরিন’—এ রকম শিরোনামে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে। প্রতিবেদনগুলোর লিংক ফেসবুকের মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে।

একাধিক পোর্টালে খবরটি এলেও শিরোনাম ও প্রতিবেদনের ভেতরে দেওয়া তথ্য হুবহু এক।

তসলিমা নাসরিনকে কুখ্যাত ও ইসলামবিরোধী লেখক হিসেবে আখ্যা দিয়ে প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে, ‘এক টুইট বার্তায় তসলিমা নাসরিন জানিয়েছেন যে আর সিংগেল থাকা সম্ভব নয়, এখন একটা লাইফ পার্টনার প্রয়োজন।’

প্রতিবেদনগুলোতে দাবি করা হয়েছে, নিজের ভেরিফায়েড টুইটার অ্যাকাউন্টে তসলিমা নাসরিন বিয়ের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

প্রতিবেদনের দ্বিতীয় অংশে তসলিমা নাসরিনের অন্য আরেকটি বিষয়ে লেখা ফেসবুক স্ট্যাটাস হুবহু তুলে দেওয়া হয়েছে। শিরোনামের সঙ্গে এই স্ট্যাটাসের কোনো সম্পর্কই নেই। প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে, বুধবার (১১ নভেম্বর) তিনি তাঁর ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে স্ট্যাটাসটি লিখেছিলেন। তবে সাল উল্লেখ করা হয়নি।

আওয়ার বাংলাদেশ বিডি, সিইউ লাইভ, নিউজএক্সপ্রেস২৪, অনলাইন নিউজ আপসহ বেশ কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে।

তসলিমা নাসরিনের বিয়ে করার আগ্রহ নিয়ে বিভ্রান্তিকর প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে কিছু অনলাইন পোর্টালে। ছবি: সংগৃহীত প্রতিবেদনের সূত্র হিসেবে তসলিমা নাসরিনের টুইটার অ্যাকাউন্টের কথা উল্লেখ থাকায় সেই আইডির সাম্প্রতিক পোস্টগুলো অনুসন্ধান করা হয়। টুইটারে সম্প্রতি নিজের বিয়ের আগ্রহ জানিয়ে কোনো লেখা তসলিমা নাসরিন লিখেননি।

গুগলে কি-ওয়ার্ড অনুসন্ধান করে দেখা গেছে, ২০২০ ও ২০২১ সালের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে একই শিরোনাম ও তথ্যসহ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

হুবহু এক শিরোনামে প্রতিবেদন খুঁজে পাওয়া যায় আমেরিকা বাংলা, দুরবিন নিউজ, অ্যাকটিভ নিউজ, বাংলাবাজারসহ বেশ কয়েকটি অনলাইন পোর্টালে।

তসলিমা নাসরিনের গত দুই বছরের টুইটার ও ফেসবুক অ্যাকাউন্ট অনুসন্ধান করে এ-সংক্রান্ত কোনো পোস্ট পাওয়া যায়নি। জাতীয় পর্যায়ের কোনো সংবাদমাধ্যমেও এ-সংক্রান্ত কোনো প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি।

তসলিমা নাসরিনের বিতর্কিত স্ট্যাটাস। ছবি: ফেসবুক থেকে অন্যদিকে প্রতিবেদনগুলোর দ্বিতীয় অংশে তসলিমা নাসরিনের ‘ফেসবুক স্ট্যাটাস’ দাবি করে যা লেখা হয়েছে, তার সত্যতা পাওয়া গেছে। ২০২০ সালের ১১ নভেম্বর পরপর দুটি লেখা ফেসবুকে পোস্ট করেন তিনি। ইসলাম ধর্মের নানা বিষয়কে উপহাস করে দেওয়া তাঁর সেই স্ট্যাটাস সে সময় ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দেয়। দেখুন এখানেএখানে। তবে ওই প্রতিবেদনগুলোর শিরোনামের সঙ্গে ওই স্ট্যাটাস দুটির কোনো প্রাসঙ্গিকতাই নেই।

সিদ্ধান্ত
‘তসলিমা নাসরিন বিয়ে করার জন্য পাত্র খুঁজছেন’—দাবিটি অসত্য। বিয়ে করার আগ্রহ জানিয়ে কোনো টুইটার পোস্ট দেননি তিনি। ফেসবুকেও এমন কোনো পোস্ট খুঁজে পাওয়া যায়নি। জাতীয় পর্যায়ের কোনো সংবাদমাধ্যমেও এমন তথ্য পাওয়া যায়নি।

পোর্টালগুলোতে প্রকাশিত শিরোনামের সঙ্গে প্রতিবেদনের কোনো সামঞ্জস্য নেই। এই পোর্টালগুলো আগেও এমন বিভ্রান্তিকর প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। ওয়েবসাইটের ক্লিক বাড়ানোর কৌশল হিসেবে অসত্য ও বিভ্রান্তিকর শিরোনাম বা ছবি ব্যবহারের প্রবণতা দেখা যায় এসব পোর্টালের মধ্যে।

এ ধরনের বিভ্রান্তিকর প্রতিবেদন শেয়ার করার আগে পোর্টালের নাম ও ইউআরএল বার সম্পর্কে পাঠকের সচেতন থাকা জরুরি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ফ্যাক্টচেক

    মোদির জনসভার ছবি দিয়ে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে রেড অ্যালার্ট জারির বিভ্রান্তি

    ফ্যাক্টচেক

    পীরগঞ্জের পূর্ণিমা রাণীর ছবি নয় এটি

    ফ্যাক্টচেক

    কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ায় মসজিদে হামলার ছবিটি ২০১৬ সালের

    ফ্যাক্টচেক

    মহাত্মা গান্ধীর ছবিটি সম্পাদিত

    ফ্যাক্টচেক

    ট্রেনের জানালায় কি নেট লাগানো হয়েছে

    ফ্যাক্টচেক

    নকল শাহরুখ ও নকল আরিয়ানের ভিডিওতে বিভ্রান্তি

    গান্ধী পরিবারের হাতে ভরসা কমছে কংগ্রেসের

    তাণ্ডবে আশ্রয় মিলেছিল ধানখেত ও মুসলিম প্রতিবেশীর ঘরে

    ‘স্পিড মানি’র গতি

    স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেঙ্গুপ্রতিবেদন নিয়ে প্রশ্ন

    ছানার পুডিং

    অভিনয়ের নেশা