Alexa
শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২

সেকশন

epaper
 

জাকার্তা থেকে কূটনীতিক আনারকলিকে প্রত্যাহারের নেপথ্যে কী?

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২২, ১৬:১৫

কূটনীতিক কাজী আনারকলি। ছবি: সংগৃহীত সরকার জাকার্তায় বাংলাদেশ দূতাবাসের দ্বিতীয় শীর্ষ কূটনীতিক কাজী আনারকলিকে প্রত্যাহার করেছে। ইন্দোনেশিয়া সরকারের অনুরোধে তাঁকে প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে। 

দূতাবাসে ডেপুটি চিফ অব মিশন পদে কর্মরত আনারকলিকে ঢাকায় ফিরতে নির্দেশ দেওয়া হয় গত ৫ জুলাই। তিনি এরই মধ্যে ঢাকায় ফিরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে যোগ দিয়েছেন।

ইন্দোনেশিয়ার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাঁর বাসায় অভিযান চালিয়ে ‘মারিজুয়ানা পেয়েছে’ এবং তাঁকে প্রত্যাহার করতে সে দেশের সরকার অনুরোধ করেছে, জাকার্তা থেকে ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো এমন বার্তার ভিত্তিতে তাঁকে প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে কর্মকর্তারা জানান। 

মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ডি এম সালাহ উদ্দিন মাহমুদ আজ মঙ্গলবার আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘একটি অভিযোগের ভিত্তিতে জাকার্তা মিশনের ডেপুটি চিফ অব মিশনকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ বিষয়ে ইন্দোনেশিয়া সরকারের কাছে বিস্তারিত তথ্য চাওয়া হয়েছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব (পূর্ব) মাশফি বিনতে শামসকে প্রধান করে এক সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ভিত্তিতে মন্ত্রণালয় পরবর্তী পদক্ষেপ নেবে।’ 

এই অভিযোগের বিষয়ে কাজী আনারকলির সঙ্গে আজকের পত্রিকা থেকে যোগাযোগ করা হলে তিনি ‘তদন্ত চলমান’ থাকায় কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। 

তবে তাঁর ঘনিষ্ঠ কূটনৈতিক সূত্রগুলো দাবি করেছে, আনারকলি কূটনৈতিক দায়িত্বে নিয়োজিত একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার ‘গাত্রদাহের’ কারণ হয়েছেন। 

এদিকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এম শাহরিয়ার আলম আজ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, কূটনীতিকের বাসায় মাদকদ্রব্য পাওয়ার অভিযোগের পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হবে।

তিনি বলেন, ‘বিষয়টি আমরা তদন্ত করছি। এটি আমাদের জন্য বিব্রতকর। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যে উচ্চ মর্যাদা, সেখানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। তদন্তে দোষী সাব্যস্ত হলে তাঁর বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

জাকার্তায় আনারকলির এক বন্ধু ছিলেন, তিনি অন্য দেশের নাগরিক। এ তথ্য জানিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ইন্দোনেশিয়ার পুলিশ তাঁর কাছেও যেতে পারে। ঘটনাটি কি আনারকলি করেছেন, না তাঁর বন্ধু করেছেন তা তদন্তে বেরিয়ে আসবে।’

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলেসে বাংলাদেশ দূতাবাসের তৎকালীন কূটনীতিক কাজী আনারকলির গৃহকর্মী দীর্ঘদিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে এ খবর গণমাধ্যমে আসে। এই ঘটনার মধ্যে ডেপুটি কনসাল জেনারেল কাজী আনারকলিকে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তায় বাংলাদেশ দূতাবাসের মিনিস্টার হিসেবে বদলি করা হয়।

এ ছাড়া ২০১৭ সালের জুন মাসে শ্রমিক পাচার, গৃহকর্মী নির্যাতন ও ভয় দেখিয়ে বিনা বেতনে কাজ করানোর অভিযোগে নিউইয়র্কে বাংলাদেশের ডেপুটি কনসাল জেনারেল মো. শাহেদুল ইসলামকে যুক্তরাষ্ট্র পুলিশ গ্রেপ্তার করে। পরে মুচলেকা দিয়ে তিনি জামিন পান। এর কয়েক দিন পর জাতিসংঘে কর্মরত কূটনীতিক হামিদুর রশিদের বিরুদ্ধে নির্যাতন ও বেতন কম দেওয়ার অভিযোগ তোলেন তাঁর গৃহকর্মী। এ ঘটনায় হামিদুর রশীদকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

জাতীয় খবর সম্পর্কিত আরও পড়ুন:

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    আইজিপির দায়িত্ব নিলেন চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল-মামুন 

    পুলিশকে প্রশিক্ষণ দেবে বলে এনজিওগুলো শত শত কোটি টাকা এনেছে: বেনজীর আহমেদ

    কাউন্সিলর একরামুলের ঘটনাটি আমার ক্যাপাসিটির বাইরে ঘটেছে: বিদায়ী আইজিপি

    দুর্গাপূজায় জঙ্গি হামলা ও সাম্প্রদায়িক অস্থিরতার শঙ্কা ডিএমপির 

    দুই-তৃতীয়াংশ প্রক্রিয়াজাত খাবারে মাত্রাতিরিক্ত লবণ, চরম স্বাস্থ্যঝুঁকি: গবেষণা

    আবের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

    রাশিয়ার পকেটে ইউক্রেনের ১৫ শতাংশ, কোন দিকে যাচ্ছে যুদ্ধ

    চাকরিজীবী ছাত্রলীগ নেতা হলে থাকেন এসি লাগিয়ে

    পুতিনের সমালোচনায় বিদ্ধ পশ্চিমা মূল্যবোধ

    দলের লাগাম থাকছে গান্ধী পরিবারের হাতেই 

    রাশিয়ার কাছে ৪ অঞ্চল হারানোর দিনে ন্যাটোর সদস্য হতে ইউক্রেনের আবেদন 

    ৯ মাস ধরে নিখোঁজ ছায়েদ