Alexa
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৩:৫৮

রামপুরায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ১১ দফা দাবি তুলে ধরেছে। ছবি: আজকের পত্রিকা   নিরাপদ সড়কের দাবিতে রামপুরায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা নতুন করে ১১ দফা দাবি তুলে ধরছেন। এ সময় শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে জানান আজও হাফ ভাড়া নিয়ে রাইদা বাসের এক হেলপার শিক্ষার্থীদের গায়ে আঘাত করেছে। 

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে রামপুরায় অবস্থানরত শিক্ষার্থীরা এই দাবি তুলে ধরেন। 

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা দাবি গুলো হল-

১. সড়কে নির্মম কাঠামোগত হত্যার শিকার নাঈম ও মাঈনউদ্দিনের হত্যার বিচার করতে হবে। তাদের পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। গুলিস্তান ও রামপুরা ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় পথচারী পারাপারের জন্য ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণ করতে হবে। 

২. সারা দেশে সকল গণপরিবহনে শিক্ষার্থীদের হাফ পাস সরকারি প্রজ্ঞাপন দিয়ে নিশ্চিত করতে হবে। হাফ পাসের জন্য কোনো সময় বা দিন নির্ধারণ করে দেওয়া যাবে না। বর্ধিত বাস ভাড়া প্রত্যাহার করতে হবে। সকল রুটে বিআরটিসির বাসের সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে। 

৩. গণপরিবহনে ছাত্র-ছাত্রী এবং নারীদের অবাধ যাত্রা ও সৌজন্যমূলক ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে।

৪. ফিটনেস ও লাইসেন্স বিহীন গাড়ি এবং লাইসেন্স বিহীন চালককে নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। গাড়ি ও ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে বিআরটিএ'র দুর্নীতির বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে। 

৫. সকল রাস্তায় ট্রাফিক লাইট, জেব্রা ক্রসিং নিশ্চিত করাসহ জনবহুল রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশ এর সংখ্যা বাড়াতে হবে। ট্রাফিক পুলিশের ঘুষ দুর্নীতির বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে।

রামপুরায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা ১১ দফা দাবি তুলে ধরেছে। ছবি: আজকের পত্রিকা ৬. বাসগুলোর মধ্যে বেপরোয়া প্রতিযোগিতা বন্ধে এক রুটে এক বাস এবং দৈনিক আয় সকল পরিবহন মালিকের মধ্যে তাদের অংশ অনুয়ায়ী সমান ভাবে বণ্টন করার নিয়ম চালু করতে হবে। 

৭. শ্রমিকদের নিয়োগপত্র-পরিচয়পত্র নিশ্চিত করতে হবে। চুক্তি ভিত্তিক নিয়োগ বাতিল করতে হবে। চুক্তি ভিত্তিতে বাস দেওয়ার বদলে টিকিট ও কাউন্টারের ভিত্তিতে গোটা পরিবহন ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজাতে হবে। শ্রমিকদের জন্য বিশ্রামাগার ও টয়লেটের ব্যবস্থা করতে হবে।

৮. গাড়ি চালকের কর্মঘণ্টা একনাগাড়ে ৬ ঘণ্টার বেশি হওয়া যাবে না। প্রতিটি বাসে দুইজন চালক ও দুইজন সহকারী রাখতে হবে। পর্যাপ্ত বাস টার্মিনাল নির্মাণ করতে হবে। পরিবহন শ্রমিকদের যথাযথ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। 

৯. যাত্রী-পরিবহন শ্রমিক ও সরকারের প্রতিনিধিদের মতামত নিয়ে সড়ক পরিবহন আইন সংস্কার করতে হবে এবং এর বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে হবে।

১০. ট্রাক, ময়লার গাড়ি সহ অন্যান্য ভারী যানবাহন চলাচলের জন্য রাত ১২টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত সময় নির্ধারিত করে দিতে হবে।  

১১. মাদকাসক্ত নিরসনে গোটা সমাজ জুড়ে কার্যকর উদ্যোগ নিতে হবে। চালক-সহকারীদের জন্য নিয়মিত ডোপ টেস্টের ও কাউন্সিলিং এর ব্যবস্থা করতে হবে। 

১১ দফা দাবি ঘোষণার আগে শিক্ষার্থীরা বলেন, ২০১৮  সালের নিরাপদ সড়ক আন্দোলন ব্যর্থ হয়নি। শিক্ষার্থীরা কখনো ব্যর্থ হয় না। ফলে এখনো নিরাপদ সড়কের আন্দোলন চলছে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ২০২২ সাল হবে রাজনীতির সংকটকাল: সুলতান মনসুর

    নিম্ন আদালতের কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করবেন ৮ বিচারপতি

    সেরে ওঠার এক বছর পরও শরীরে করোনার উপসর্গ থাকছে: গবেষণা

    আওয়ামী লীগ ইনডেমনিটির পথে হাঁটে না: আইনমন্ত্রী

    করোনায় আরও ১৫ মৃত্যু, শনাক্তের হার ৩১.৯৮%

    অবসরপ্রাপ্ত সরকারি কর্মচারীদের দাফনের অনুদান বাড়ল ৩ গুণ

    যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা

    রাউজানে আড়াই হাজার টাকার বিনিময়ে ভুয়া জন্মনিবন্ধন, যুবকের কারাদণ্ড

    ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি চক্রের মূলে বুকিং সহকারী

    ২০২২ সাল হবে রাজনীতির সংকটকাল: সুলতান মনসুর

    প্রধান শিক্ষক ও স্কুল কমিটির বিরুদ্ধে অভিভাবকদের মানববন্ধন

    রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় ছাদ থেকে পড়ে শিশুসহ দুজনের মৃত্যু