Alexa
রোববার, ২৬ মার্চ ২০২৩

সেকশন

epaper
 

রেকর্ড ব্যবধানে আয়ারল্যান্ডকে হারাল বাংলাদেশ

আপডেট : ১৮ মার্চ ২০২৩, ২১:২৬

ওয়ানডের ইতিহাসে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে রেকর্ড ১৮৩ রানের জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। ছবি: বিসিবি সিলেটে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে আয়ারল্যান্ডকে ১৮৩ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। আগে লক্ষ্য ছুড়ে দিয়ে এটাই এখন ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় জয়। ২০২০ সালে সিলেটেই জিম্বাবুয়েকে ১৬৯ রানে হারিয়েছিল তারা। এত দিন সেটাই ছিল সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ড। এবার সেটিকেও চাপিয়ে গেছেন তামিম ইকবালরা।

এই ম্যাচেই আগে ব্যাটিং করে ৮ উইকেটে ৩৩৮ রান করে বাংলাদেশ। এটি ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের রেকর্ড। এর আগে ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পরে ব্যাটিং করে ৩৩৩ রান করেছিল তারা। 

 ৩৩৯ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ইবাদত হোসেন, তাসকিন আহমেদ ও নাসুম আহমেদদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৩০.৫ ওভারে ১৫৫ রানেই অলআউট হয়ে যায় আইরিশরা। ৬.৫ ওভারে ৪২ রান দিয়ে ইবাদতের শিকার ৪ উইকেট। আয়ারল্যান্ডের হয়ে জর্জ ডকরেল সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেছেন। স্টেফেন ডোহেনির ব্যাট থেকে আসে ৩৪ রানা। অন্যরা ব্যাটাররা সেভাবে নিজেদের মেলে ধরতে পারেননি। ৮ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে নাসুম নিয়েছেন ৩ উইকেট। ৬ ওভারে ১৫ রানে ২ উইকেট নেন তাসকিন। 

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে টস হেরে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পায় বাংলাদেশ। ১৬.৩ ওভারে ৮১ রান তুলতেই ৩ উইকেট হারায় তারা। চার ও পাঁচ নম্বরে নেমে সাকিব আল হাসান ও তৌহিদ হৃদয় ১২৫ বলে ১৩৫ রানের জুটি গড়ে দলকে বড় স্কোরের ভিত গড়ে দেন। ৮৯ বলে ৯৩ রানে ফেরেন সাকিব। তাঁর ইনিংসে ছিল ৯টি চার। 

পঞ্চম উইকেটে মুশফিকুর রহিম ও হৃদয় ৪৯ বলে ৮০ রানের আরেকটি জুটি গড়েন। দলের ২৯৬ রানে আউট হন মুশফিক। ২৬ বলে ৪৪ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেছেন তিনি। এক রানের ব্যবধানে আউট হন হৃদয়ও। ৮৫ বলে তাঁর ব্যাট থেকে আসে ৯২ রান। ৮টি চার ও ২টি ছক্কা ছিল তাঁর ইনিংসে। 

অভিষেক ওয়ানডেতেই বাংলাদেশের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে ফিফটির কীর্তি গড়েন হৃদয়। এর আগে ২০১১ সালে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে নাসির হোসেন অভিষেক ম্যাচে করেছিলেন ৬৩ রান। ২০০৬ সালে হারারেতে অভিষেক ওয়ানডেতে প্রথম ফিফটি করেছিলেন ফরহাদ রেজা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫০ রান করেছিলেন রেজা। হৃদয়ের ৯২ রানই এখন অভিষেক ম্যাচে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের সর্বোচ্চ ইনিংস। 

এর আগে এই ম্যাচে ওয়ানডেতে নিজের ৭০০০ রান পূর্ণ করেছেন সাকিব। । ৫০ ওভারের ফরম্যাটে বাংলাদেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক এখন এ অলরাউন্ডার। এ পর্যন্ত তাঁর চেয়ে বেশি—২৩৩ ইনিংসে ৮১৪৬ রান তামিম ইকবালের। ২৪৩ ইনিংসে মুশফিকুর রহিমের ৬৯০১ রান। 

শেষ দিকে ইয়াসির আলী ১০ বলে করেছেন ১৭ রান, তাসকিনের ব্যাট থেকে আসে ১১ রান। আয়ারল্যান্ডের হয়ে গ্রাহাম হাম ১০ ওভারে ৬০ রান দিয়ে শিকার করেছেন ৪ উইকেট।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

     ৫১৭ রানের ম্যাচে বিশ্বরেকর্ড গড়া জয় দক্ষিণ আফ্রিকার 

    এডারসনের পর আনচেলত্তিকে চান ব্রাজিল ফুটবলের সভাপতিও

    এক ইনিংসে ২২ ছক্কা, গেইলের রেকর্ড ভেঙে দিলেন চার্লস

    টি-টোয়েন্টিতে অধিনায়ক বদলে খেলবে আয়ারল্যান্ড

    কোহলিকে নিয়ে যে প্রশ্ন ভাইরাল

    বাংলাদেশকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা রোনালদোর ক্লাবের 

    ‘হাসানাতের চামচা’ বলায় এমপির সামনে আ.লীগ নেতাকে মারধর, বহিষ্কার ৩ 

     ৫১৭ রানের ম্যাচে বিশ্বরেকর্ড গড়া জয় দক্ষিণ আফ্রিকার 

    রমজানে সৌদি আরবে অমুসলিমেরাও যে কারণে রোজা রাখেন

    বুড়িচংয়ে যুবককে পিটিয়ে হত্যা, মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ

    দুর্গাপুরে বিএনপি-পুলিশ সংঘর্ষের পর বাড়ি বাড়ি অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার ৭ 

    ধামরাইয়ে ওয়ার্ড আ. লীগের সভাপতির ওপর হামলা, থানায় মামলা