মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 
ফ্যাক্টচেক

তালেবানের বিজয় উদযাপন নিয়ে বিভ্রান্তিকর ভিডিও

আপডেট : ২৬ আগস্ট ২০২১, ১৮:১১

তালেবানরা সম্প্রতি আফগানিস্তানের ক্ষমতা দখল করেছে। এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে দেশটি। নানা ছবি, ভিডিও ও তথ্য প্রতি মুহূর্তে আপলোড করা হচ্ছে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে। অনেকেই পুরোনো, অসত্য বা ভিন্ন ঘটনার ভিডিও ও ছবি পোস্ট করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন।

নাচের ভিডিওটি কাবুল জয়ের নয়, পাকিস্তানের উৎসবের
তালেবানদের কাবুল দখলের পরপরই ফেসবুকে একটি নাচের ভিডিও ভাইরাল হয়। দাবি করা হয়, এটি আফগানিস্তানের তালেবান সদস্যদের বিজয় উৎসবের ভিডিও। ক্যাপশনে লেখা হয়, ‘কাবুল দখলের পর আফগান জনগণ যখন জীবন বাঁচানোর জন্য দিগ্‌বিদিক পালাচ্ছে তখন তালেবান জঙ্গিদের উন্মুক্ত ডিজে ড্যান্স।’ ভিডিওটিতে কয়েকজন ব্যক্তিকে অস্ত্র হাতে নাচতে দেখা যায়।

কিন্তু, রিভার্স সার্চে দেখা যায়, ভিডিওটি সাম্প্রতিক নয়। ‘ডিজে বান্নু ড্যান্স’ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে মূল ভিডিওটি খুঁজে পাওয়া যায়। পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের একটি জেলার নাম বান্নু। গত ২৫ মার্চ আপলোড করা ভিডিওটি মূলত পাকিস্তানের পশতু আদিবাসী মারওয়াতদের একটি উৎসবের

সিরীয় বিদ্রোহীদের ইদলিব শহর দখলের ভিডিও কাবুলের বলে প্রচার
ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া আরেকটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, কিছু সশস্ত্র লোক রাস্তায় সিজদা করছেন। ভিডিওটির ক্যাপশনে লেখা হয়েছে, ‘আমি মক্কা বিজয় দেখিনি তবে দেখলাম কাবুল বিজয়। আফগান ও তালেবানের নতুন খবর। ইতিমধ্যে তালেবানেরা আফগানিস্তানের বিভিন্ন জায়গা দখল করে নিয়েছে।’

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একদল সশস্ত্র লোক অস্ত্র উঁচিয়ে উল্লাস করছে এবং স্লোগান দিচ্ছে। এরপর প্রচুর গুলির শব্দ। ভিডিওর এক অংশে দেখা যায় উঁচু একটি দণ্ড থেকে পতাকা নামানো হচ্ছে। তবে পতাকাটি অস্পষ্ট।

এই ভিডিওটিও সাম্প্রতিক নয়। এমনকি আফগানিস্তানেরও নয়। রিভার্স ইমেজ সার্চে দেখা যায়, মূল ভিডিওটি ডিইথ্রিটিএনএ নামের একটি ইউটিউব চ্যানেলে ২০১৫ সালের ২৮ মার্চ আপলোড করা হয়। আরবি ভাষায় লেখা ক্যাপশন থেকে জানা যায়, এটি সিরিয়ার ইদলিব শহরের হানানো স্কয়ার নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার দৃশ্য।

২০১৫ সালের ২৯ মার্চ কাতার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরায় প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সে সময় আল কায়েদার সিরিয়া শাখা এবং সিরীয় বিদ্রোহী যোদ্ধারা যৌথ অভিযানে ইদলিব শহর দখল করেছিল। প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের অনুগত বাহিনীর কাছ থেকে প্রথমবারের মতো দেশটির উত্তর পশ্চিমাঞ্চলীয় শহরটির দখল নিয়েছিল আল কায়েদাসহ বিদ্রোহীরা।

ভিডিওতে পতাকা নামানোর দৃশ্য (বাঁয়ে) ও সিরিয়ার পতাকা (ডানে)। ছবি: সংগৃহীত আল জাজিরায় প্রকাশিত তুলনামূলক স্পষ্ট ভিডিও থেকে সহজেই বোঝা যায়, উঁচু দণ্ড থেকে নামানো পতাকাটি আফগানিস্তানের নয়, এটি সিরিয়ার। সিরিয়ার পতাকায় লম্বালম্বিভাবে লাল, সাদা ও কালো তিনটি রঙ্গের মাঝে দুটি সবুজ তারকা রয়েছে। আল জাজিরার ফুটেজে সেটি মোটামুটি স্পষ্ট।

তালেবানদের শোকরানা নামাজ আদায়ের ছবি নয় এটি
খোলা মাঠে বেশ কিছু মানুষের নামাজ আদায়ের একটি ছবি ফেসবুকে শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, কাবুল জয়ের পর তালেবানদের শোকরানা নামাজ আদায়ের ছবি এটি।

বিভ্রান্তিকর ফেসবুক পোস্টের ছবি (বাঁয়ে) ও এপি’র ছবির (ডানে)। ছবি: সংগৃহীত গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চের মাধ্যমে ছবিটি খুঁজে পাওয়া যায় যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদ সংস্থা অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসের (এপি) অনলাইন আর্কাইভেছবিটি এপির আলোকচিত্রী রহমত গুলের তোলা। ২০১২ সালের ২৬ অক্টোবর আফগানিস্তানের জালালাবাদে ছবিটি তোলেন তিনি।

ক্যাপশন থেকে জানা যায়, আফগানিস্তানের কাবুলের পূর্বে জালালাবাদে একটি মসজিদের বাইরে আফগানরা ঈদুল আজহার নামাজ আদায়ের ছবি এটি।

মার্কিন সাময়িকী দ্য আটলান্টিকে ২০১২ সালের ২ নভেম্বর প্রকাশিত একটি প্রতিবেদনেও এপির সৌজন্যে ছবিটি প্রকাশিত হয়।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ফ্যাক্টচেক

    মোদির জনসভার ছবি দিয়ে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে রেড অ্যালার্ট জারির বিভ্রান্তি

    ফ্যাক্টচেক

    পীরগঞ্জের পূর্ণিমা রাণীর ছবি নয় এটি

    বিশ্বে করোনায় শনাক্ত কমেছে, বেড়েছে মৃত্যু

    গান্ধী পরিবারের হাতে ভরসা কমছে কংগ্রেসের

    তাণ্ডবে আশ্রয় মিলেছিল ধানখেত ও মুসলিম প্রতিবেশীর ঘরে

    ‘স্পিড মানি’র গতি

    স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেঙ্গুপ্রতিবেদন নিয়ে প্রশ্ন

    ছানার পুডিং