ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা। ছবি : ফেসবুক থেকে সংগৃহীত

সংসদে জোরালো এক কন্ঠ পাচ্ছে বিএনপি। সংরক্ষিত নারী আসনে দলটির মনোনীত প্রার্থী ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

২১ মে মঙ্গলবার সকালে তার মনোনয়নপত্রটি বৈধ বলে ঘোষণা করেন রির্টানিং কর্মকর্তা ও ইসির যুগ্মসচিব মো. আবুল কাসেম।

পরে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, যাচাই-বাছাইয়ে কোনো ত্রুটি না পাওয়ায় মনোনয়নপত্রটি বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে তাকে এমপি হিসেবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার জন্য আরও কয়েকটি দিন অপেক্ষা করতে হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, আগামী ১৬ জুন পদটিতে ভোট হওয়ার কথা থাকলেও একক প্রার্থী হওয়ায় প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ২৮ মে-তেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষিত হবেন রুমিন ফারহানা।

নির্বাচন কমিশনের তফসিল অনুযায়ী সংরক্ষিত এ নারী আসনে মনোনয়ন ফরম জমা দেয়ার শেষদিন ছিল সোমবার।

এর আগে একাদশ সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসন থেকে মনোনয়ন চেয়েছিলেন রুমিন ফারহানা। কিন্তু সেখানে মনোনয়ন দেয়া হয় উকিল আব্দুস সাত্তারকে। অবশেষে সংরক্ষিত নারী আসনে বিএনপির পক্ষ থেকে টিকিটটা তিনিই পেলেন।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আসন সংখ্যা অনুপাতে দেশের অন্যতম বৃহৎ দল বিএনপি সংরক্ষিত নারী আসন পাবে একটি। তবে দলটির এমপিরা শপথ নিতে দেরি করায় সংরক্ষিত আসনটিও শূন্য ছিল। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ছাড়া গত এপ্রিলে দলটির পাঁচনেতা সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ নেন।

সূত্র জানায়, সংরক্ষিত আসনে রুমিন ফারহানা ছাড়াও আলোচনায় ছিলেন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস, নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুণ রায়। কিন্তু এদের কাউকেই মনোনয়ন দেয়নি দলটি।

আজকের পত্রিকা/এমএইচএস