Alexa
শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

মুমিনুলেরও আস্থা কম ঘরোয়া ক্রিকেটে

আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:২৩

মুমিনুলেরও আস্থা কম ঘরোয়া ক্রিকেটে। ছবি: সংগৃহীত বাংলাদেশের ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার শেষ নেই। গত কিছুদিনে আলোচনাটা আবার সামনে এসেছে আকস্মিক মোহাম্মদ নাঈমের টেস্ট দলে সুযোগ পাওয়ায়, যিনি গত দুই বছর আছেন লাল বল থেকে দূরে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তাঁর অভিজ্ঞতাই মাত্র ছয় ম্যাচের।

অথচ কদিন আগে শেষ হওয়া জাতীয় ক্রিকেট লিগে (এনসিএল) সেরা পারফরমারদের ধর্তব্যেই নেননি নির্বাচকেরা। মূলত টপঅর্ডার সমস্যার সমাধান করতেই মিরপুর টেস্টের দলে নাঈমকে ডেকেছেন নির্বাচকেরা। যেটা শুধু চমকই নয়, যথেষ্ট বিতর্কেরও জন্ম দিয়েছে। মুমিনুল হকের দাবি, নিরুপায় হয়েই নাঈমকে দলে নেওয়া। বাংলাদেশ অধিনায়ক বললেন, ‘সত্যি বলতে আর কোনো বিকল্প ওপেনার নেই।’

বিকল্প ওপেনারের এতই সংকট, অথচ এবারের জাতীয় লিগে সর্বোচ্চ দুজন রান সংগ্রাহক ফজলে রাব্বী আর অমিত হাসান—দুজনই টপঅর্ডার ব্যাটার। ঘরোয়া ক্রিকেটের পুরস্কার হিসেবে নির্বাচকেরা যদি তাঁদের সামনে জাতীয় দলের দরজা না খোলেন, সে ক্ষেত্রে এমনি প্রতিষ্ঠিত হয়ে যায়— নিজেদের ঘরোয়া ক্রিকেটে টিম ম্যানেজমেন্ট কিংবা নির্বাচকদেরই আস্থা নেই! গতকাল সংবাদ সম্মেলনে অবশ্য এ বাস্তবতাই তুলে ধরলেন মুমিনুল। বাংলাদেশ অধিনায়কের ব্যাখ্যায় উঠে এল, ঘরোয়া ক্রিকেটের চেয়ে তাঁদের কাছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ভেতর থাকা একজন খেলোয়াড়কে অন্তর্ভুক্ত করাই বেশি যুক্তিযুক্ত মনে হয়েছে; এখানে সংস্করণ কোনো ব্যাপার নয়।

মুমিনুল বললেন, ‘নাঈম আন্তর্জাতিক খেলার ভেতরে আছে। হঠাৎ একটা খেলোয়াড় ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে নিয়ে এলেন কঠিন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে…এমন কাউকে নেন যে আসলে আন্তর্জাতিক খেলার ভেতরে থাকে এবং আবহটা বুঝতে পারে। আমার কাছে মনে হয় (আন্তর্জাতিক) খেলার ভেতর থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ।’

নাঈমের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে তো আছেই, এবারও আলোচনায় আছে মিরপুরের উইকেট। মুমিনুল অবশ্য উইকেট নিয়ে বেশি ভাবতে চান না। বললেন, ‘আমরা মিরপুরের উইকেট সম্পর্কে জানি যে এটা নিয়ে বলা কঠিন। উইকেট বা এসব নিয়ে অজুহাত দেওয়ার কিছু নেই। পেশাদার ক্রিকেটারদের যদি ধানখেত দেন, ওখানেই ভালো খেলতে হবে। অজুহাত না দিয়ে জিততে আরেকটু পেশাদার হওয়া দরকার।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    দোয়া সফলতার হাতিয়ার

    ফ্যাশনেবল ফিউশন

    নিরাপদ অভিবাসন নিয়ে কর্মশালা

    ঘাটাইলে গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো ৩ অবৈধ ইটভাটা

    জরাজীর্ণ টিনের ঘরে ৩৮ বছর পাঠদান

    ৫ ইউপিতে আওয়ামী লীগের ৭ বিদ্রোহী

    ‘বাহে এবার জারোত থাকি মুই বাঁচিম বাবা’

    গৃহযুদ্ধের কিনারায় যুক্তরাষ্ট্র!

    দক্ষিণখানে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে মেম্বর প্রার্থী গ্রেপ্তার 

    দক্ষিণখানে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

    রাবিতে সশরীরেই চলবে ক্লাস-পরীক্ষা