Alexa
শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

দুই ‘বিদ্রোহী’ হলেন নৌকার মাঝি 

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮:১৩

নৌকার মনোনয়ন পাওয়া আনোয়ার হোসেন (বামে) ও এমএফ মাজেদুল। ছবি: সংগৃহীত দুজনেই নৌকার বিরুদ্ধে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন। এর মধ্যে একজন নৌকা ডুবোতে সক্ষম হন। নির্বাচিত হন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান। তবে অন্যজন হেরেছিলেন নৌকার কাছে। এবার এঁরা দুজনেই হয়েছেন নৌকার মাঝি। আগামী ৫ জানুয়ারির পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনের জন্য আওয়ামী লীগ তাঁদের দলীয় প্রার্থী করে মনোনয়ন দিয়েছে। 

তাঁরা হলেন রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার ১৪ নম্বর হামিরকুৎসা ইউপির আনোয়ার হোসেন এবং ১৫ নম্বর যোগীপাড়া ইউপির এম এফ মাজেদুল। আনোয়ার এখন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আর মাজেদুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি। এঁদের মধ্যে আনোয়ার হামিরকুৎসা ইউপির বর্তমান চেয়ারম্যান। ২০১৬ সালে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তিনি নৌকার প্রার্থী সাফিনুর নাহারকে পরাজিত করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। আনোয়ার হোসেন তখনো ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। 

এদিকে যোগীপাড়ায় দলীয় প্রার্থী মোস্তাফা কামাল প্রামাণিকের বিরুদ্ধে ভোট করে পরাজিত হন উপজেলা যুবলীগের তৎকালীন সাংগঠনিক সম্পাদক এম এফ মাজেদুল। ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হলেও আনোয়ার বা মাজেদুলকে বহিষ্কার করা হয়নি। উল্টো গত বছরের সম্মেলনে ভোট ছাড়াই আনোয়ারকে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে। আর যুবলীগ থেকে আওয়ামী লীগে এসেছেন মাজেদুল। এবার তাঁরা পেলেন নৌকার টিকিট। 

অবশ্য ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনের জন্যও তাঁরা দলীয় মনোনয়ন পেয়েছিলেন। তখন রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক এবং সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান জাকিরুল ইসলাম সান্টুর মধ্যে তুমুল বিরোধ। ভোটে সাংসদের প্রভাব বিস্তার নিয়ে ইউনিয়নে ইউনিয়নে শুরু হয় সহিংসতা। ফলে নির্বাচন কমিশন বাগমারার ১৬ ইউনিয়নেরই ভোট স্থগিত করে দেয়। 

পরে নতুন করে তফসিল ঘোষণা করলে হামিরকুৎসা ও যোগীপাড়ায় প্রার্থী বদল করে আওয়ামী লীগ। নৌকা পেয়ে যান উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুসারী হিসেবে পরিচিত সাফিনুর নাহার ও মোস্তফা কামাল প্রামাণিক। কিন্তু মাজেদুল ও আনোয়ার স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ভোট করেন। তখন সংসদ সদস্যের কথায় খোদ উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারাই নৌকার বিরুদ্ধে কাজ করেন বলে অভিযোগ আছে। এবারও সংসদ সদস্যের এ দুই অনুসারী মনোনয়ন পেলেন। 

মাজেদুল ও আনোয়ার বলেছেন, গতবার তাঁরা প্রথমে মনোনয়ন পেয়েছিলেন। ভোটগ্রহণের আগের দিন নির্বাচন স্থগিত হয়ে যায়। তাই পরে নৌকা না পেলেও তাঁরা স্বতন্ত্র প্রার্থী হন। তবে এ দুই বিদ্রোহীকে এবার মনোনয়ন দেওয়ায় মনোনয়নবঞ্চিতদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। তাঁরা বলছেন, সংসদ সদস্য এনামুল হক প্রভাব খাটিয়ে শুধু তাঁর অনুসারীদের মনোনয়ন এনে দিয়েছেন। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য এনামুল হককে ফোন করা হলে তিনি ধরেননি। 

এবারের নির্বাচনে মনোনয়নবঞ্চিত ও গতবারের নৌকার প্রার্থী সাফিনুর নাহারের নম্বরে শুক্রবার দুপুরে ফোন করা হলে তাঁর স্বামী আবদুল বারী ধরেন। তিনি জানান, সাফিনুর এখন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সামনে বসে বিদ্রোহীকে মনোনয়ন দেওয়ার প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। 

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার বাগমারা উপজেলা পরিষদেরই চেয়ারম্যান। গতবারের দুই বিদ্রোহীকে এবার মনোনয়নের সুপারিশ করার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমি এসব বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে পারব না।’ অনিল কুমার সরকারই কথা বলার জন্য বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম সারওয়ারকে ফোনটি দেন। তিনি বলেন, ‘ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ মনোনয়নপ্রত্যাশীদের তালিকা করে উপজেলা কমিটিতে দিয়েছে। উপজেলা কমিটি সেটা জেলায় দিয়েছে, জেলা কেন্দ্রে পাঠিয়েছে। তালিকায় চার-পাঁচজনের নাম ছিল। কেন্দ্র যাঁকে পছন্দ করেছে, তাঁকে মনোনয়ন দিয়েছে। এ বিষয়ে আর কোনো কথা নেই।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    রূপপুর প্রকল্প থেকে ৬৫ লাখ টাকা মূল্যের ক্যাব্‌ল চুরি

    লোহা কুড়াতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় বৃদ্ধার মৃত্যু

    রাজশাহীতে মৌসুমের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৯ দশমিক ৩ ডিগ্রি

    শজিমেকে পড়ে আছে অজ্ঞাতনামা যুবকের মরদেহ

    করোনায় আক্রান্ত খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার

    সরিষাবাড়ীতে দুই সদস্য প্রার্থীর সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ ১

    ‘বাহে এবার জারোত থাকি মুই বাঁচিম বাবা’

    গৃহযুদ্ধের কিনারায় যুক্তরাষ্ট্র!

    দক্ষিণখানে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে মেম্বর প্রার্থী গ্রেপ্তার 

    দক্ষিণখানে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

    রাবিতে সশরীরেই চলবে ক্লাস-পরীক্ষা