Alexa
শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

শীতে অতিথি পাখির আগমন, বেড়েছে পাখি শিকারিদের দৌরাত্ম্য 

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১৭:৫১

শীতের শুরুতে বেড়েছে পাখি শিকারিদের দৌরাত্ম্য। ছবি: আজকের পত্রিকা প্রকৃতিতে শুরু হয়েছে শীতের আগমন। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও শীতের শুরুতে শীতপ্রধান দেশ থেকে ঝাঁকে ঝাঁকে অতিথি পাখি দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের খাল-বিল ও জলাশয়ে আসতে শুরু করেছে।

এলাকা সূত্রে জানা যায়, অতিথি পাখি শিকার নিষিদ্ধ হলেও এই সময়ে শিকারে নেমেছে একদল পাখি শিকারি। প্রশাসনকে টাকা ও পাখি দিয়ে নির্বিঘ্নে তারা পাখি শিকার করে চলেছে। রাত যত গভীর হয়, ততই পাখি শিকারিদের বাঁশির কোলাহলে ঘুম হারাম হয়ে যায় এলাকাবাসীর। কোনোভাবেই ঠেকানো যাচ্ছে না এই শিকারিদের।

সরেজমিনে দেখা যায়, খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা, পাইকগাছা, ডুমুরিয়া, দাকোপ এলাকায় বেশির ভাগ পাখি ধরা হয়। অসাধু শিকারিরা রাতে ধান খেতে বসে পাখির ডাকের সঙ্গে সুর মিলিয়ে বাঁশি বাজায়। উড়ন্ত পাখি বিভ্রান্ত হয়ে আকাশ থেকে নিচে নেমে শিকারির ফাঁদে আটকে যায়। শিকারিরা নাইলনের সুতা দিয়ে ছোট-বড় ফাঁদ তৈরি করে পাখির চলার পথে পেতে রাখে। রাতের বেলায় পাখিরা যখন উড়ে বেড়ায় তখন ওই ফাঁদে শত শত পাখি আটকে যায়। আবার পাখির চোখে আলো ফেলে, কেঁচো দিয়ে বড়শি পেতে, কোচ মেরে ও কারেন্ট জাল পেতেও পাখি শিকার করে থাকে অসাধু শিকারিরা। এ ছাড়া পাখি শিকারিরা ধানখেতে গিয়ে পাখির কণ্ঠ নকল করে। পরে সেই ডাক মোবাইলে ধারণ করে রিংটোনের মাধ্যমে সেই পাখির ডাক বাজায়। একপর্যায়ে ওই ডাকের শব্দ শুনে বিভিন্ন প্রজাতির অতিথি পাখি তাদের কাছেই ঘোরাঘুরি করতে থাকে। তখন শিকারিরা বিভিন্ন কলাকৌশলের মাধ্যমে ওই পাখিদের শিকার করে। শিকারিরা রাতে অবাধে পাখি শিকার করে ভোরের আগেই তা বিক্রি করে থাকে। উপজেলার হাট-বাজার, পাড়া-মহল্লায় সেই পাখি বিক্রি করে।

এলাকারবাসীর অভিযোগ, স্থানীয় প্রশাসন এসব ব্যাপার দেখেও না দেখার ভান করে থাকে। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক পাখি শিকারি বলেন, 'আমরা স্থানীয় প্রশাসনকে টাকা ও পাখি দিয়ে প্রতি রাতেই পাখি শিকার করে থাকি। আপনারা যদি পত্রিকায় লেখালেখি করেন, তাহলে আপনাদের পাখি ও টাকা দিয়ে সন্তুষ্ট করব। দয়া করে আমাদের বিরুদ্ধে কিছু লিখবেন না। এবার অমরা পাখি শিকারের ধরনটা কিছুটা পরিবর্তন করেছি।'

এ বিষয়ে জনৈক পাখি শিকারি শাহীন ও বিজয় বলেন, 'পাখি শিকার দণ্ডনীয় অপরাধ। কিন্তু পাখি শিকার করাটা খুবই মজা ও আনন্দের। আমরা পাখি শিকার করি ঠিকই, কিন্তু ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য নয়। রান্না করে খেতে ভালো লাগে। তাই মাঝেমধ্যে পাখি শিকার করি।' 

পাখি বিশেষজ্ঞরা বলেন, 'অতিরিক্ত ঠান্ডার কারণে এই অতিথি পাখিরা আমাদের দেশে আশ্রয় আর নিরাপত্তার জন্য আসে। এদের ধরা ও শিকার করা দণ্ডনীয় অপরাধ।' 

উপজেলার সদর মাইলমারা এলাকার পাখি সংরক্ষণ পরিষদ ও পাখি সংরক্ষণ কমিটির সভাপতি ইউপি সদস্য অলকেশ সরকার বলেন, 'পাখি শিকারিদের ধরতে আমরা প্রতি রাতে ধানখেতে পাহারা দিই। দীর্ঘ তিন বছর ধরে আমরা পাখি সংরক্ষণসহ অবাধে পাখি শিকার রোধে কাজ করে চলেছি। থানার পুলিশের সহযোগিতায় আমরা আমাদের এই কর্মকাণ্ড অব‍্যাহত রেখেছি। সরকারি সহযোগিতা পেলে নিজেদের সংগঠনটি আরও শক্তিশালীভাবে গড়ে তুলতে পারতাম।' 

এ বিষয়ে বটিয়াঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মমিনুর রহমান বলেন, 'অতিথি পাখি আমাদের দেশের একটি সম্পদ। এদের রক্ষণাবেক্ষণ করা আমাদের সবার দায়িত্ব। এদের শনাক্ত করতে পারলে অবশ্যই আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। আর এসব পাখি শিকারির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।' 

খুলনা জেলা বন সংরক্ষক কর্মকর্তা মিহির কুমার দে আজকের পত্রিকা কে বলেন, বন্যা প্রাণী সংরক্ষণ নিরাপত্তা ২০১২ আইন ৩৮ (১) ধারা মোতাবেক অতিথি পাখি শিকার বা ধরা দণ্ডনীয় অপরাধ। সে ক্ষেত্রে পাখি শিকারির বিরুদ্ধে এক বছরের কারাদণ্ড, এক লাখ টাকা জরিমানাসহ উভয়ে দণ্ডে দণ্ডিত হতে পারে। ইতিমধ্যে পাখি শিকার বন্ধ করতে শিকারিদের বিরুদ্ধে কঠোর আইন জারি করে মাঠ পর্যায়ে আইন প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ‘বাহে এবার জারোত থাকি মুই বাঁচিম বাবা’

    দক্ষিণখানে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে মেম্বর প্রার্থী গ্রেপ্তার 

    দক্ষিণখানে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

    অনশন পেরোলো ৩২ ঘণ্টা, হাসপাতালে ভর্তি ৬ শিক্ষার্থী

    চট্টগ্রামে অটোরিকশায় কিউআর কোড স্টিকার লাগানো ‍শুরু

    ‘বাহে এবার জারোত থাকি মুই বাঁচিম বাবা’

    গৃহযুদ্ধের কিনারায় যুক্তরাষ্ট্র!

    দক্ষিণখানে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে মেম্বর প্রার্থী গ্রেপ্তার 

    দক্ষিণখানে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

    রাবিতে সশরীরেই চলবে ক্লাস-পরীক্ষা