Alexa
শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

কচুরিপানার দখলে আবাদি জমি

আপডেট : ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৩:১৭

মহালছড়িতে বর্ষায় ‘জলেভাসা জমি’ জেগে উঠলেও কচুরিপানার কারণে চাষাবাদ নিয়ে শঙ্কায় চাষিরা। সম্প্রতি সিঙিনালা মহামুনিপাড়া এলাকা থেকে তোলা ছবি। tআজকের পত্রিকা খাগড়াছড়ির মহালছড়ি উপজেলা দিয়ে বয়ে যাওয়া কাপ্তাই লেকের পানি কমতে শুরু করেছে। এদিকে উপজেলার মুবাছড়ি বিলের জমিগুলো ভেসে উঠছে। তবে জমিতে থাকা কচুরিপানা অনেক চেষ্টা করেও সরাতে পারছেন না কৃষকেরা। এতে আসন্ন মৌসুমে বোরো আবাদ নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে।

কৃষকেরা বলছেন, বর্ষা থেকে এ পর্যন্ত বাঁশ ও গাছ দিয়ে কচুরিপানা আটকানোর চেষ্টা করেও সফল হননি। এখন কচুরিপানা সরাতে গিয়ে বাড়তি টাকা গুনতে হচ্ছে।

মুবাছড়ি বিলে গিয়ে দেখা যায়, প্রায় ৩০০ একরের অধিক জমি কচুরিপানায় ভরে গেছে। কাপ্তাই লেকের পানি কমতে শুরু করায় উঁচু জমিগুলো জেগে উঠছে। এ বিলে কাপ্তাইপাড়া, মহামুনিপাড়া, হেডম্যান পাড়া, খ্যাংসা পাড়া ও মেশিন পাড়ার শতাধিক কৃষকের জমি রয়েছে। এ ছাড়া মনাটেক বিলেও অনেকের জমি কচুরিপানার নিচে পড়ে আছে বলে জানিয়েছেন সেখানকার কৃষকেরা।

সিঙিনালা মহামুনিপাড়া গ্রামের ক্যজাই মারমা, নিঅংগ্য মারমা, মংতু মারমাসহ কয়েকজন চাষি জানান, চেঙ্গী নদীতে ভেসে আসা কচুরিপানার কারণে এ এলাকার কৃষকেরা প্রতিবছর এই সমস্যায় পড়েন। তবে এ বছর কচুরিপানা বেশি হওয়ায় কৃষকেরা বিপাকে পড়েছেন। কচুরিপানা আটকানোর জন্য এ পর্যন্ত ৩-৪ হাজার টাকা খরচ হয়ে গেছে, তারপরও আটকানো সম্ভব হয়নি।

কৃষক মংচিং মারমা বলেন, ‘যেখানে ধানের বীজ কিনতে হিমশিম খেতে হয়, সেখানে কচুরিপানা সরাতে গিয়ে বাড়তি টাকা গুনতে হবে। এদিকে ডিজেলের দামও বৃদ্ধি পেয়েছে। এসব চিন্তা করে এবার চাষাবাদ করব কী না ভাবছি।’

সমস্যার কথা স্বীকার করে মুবাছড়ি ব্লকের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা ঞোলামং মারমা বলেন, মুবাছড়ি ব্লকে প্রায় সাড়ে ১২ একর ‘জলেভাসা জমি’ রয়েছে। এর মধ্যে প্রায় ৩০০ একর জমি এবারে কচুরিপানার নিচে পড়ে আছে। বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে অবগত করবেন বলে জানান তিনি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আবদুল জব্বার বলেন, ‘কচুরিপানা সমস্যা নিয়ে সরকারিভাবে কোনো বরাদ্দ নেই। তবে সরকারিভাবে কৃষকদের ভর্তুকি হিসেবে প্রণোদনা দেওয়া হয়। এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করব ও উপজেলা সমন্বয় মিটিংয়ে উত্থাপন করব।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    ভরা বর্ষায়ও সেচ দিয়ে আমন চাষ

    বন্ধ হয়ে যাচ্ছে মুরগির খামার

    আমন চাষের শুরুতেই বাড়তি খরচের বোঝা

    তিন দিনে আ.লীগ নেতার ৩ ঘেরে বিষ দিল দুর্বৃত্তরা

    পাঁচ দিনে চিনির দাম বাড়ল ৭ টাকা

    তরুণের মৃত্যুদণ্ড ও কিছু কথা

    ধর্ষণের অভিযোগে খুবি শিক্ষার্থী গ্রেপ্তার

    প্রথম দক্ষিণ এশীয় হিসেবে ‘মিলেনিয়াম লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ পেলেন স্থপতি মেরিনা

    মাদারগঞ্জে গ্রাম-বাংলার ঐতিহ্যবাহী ঘোড়া দৌড় প্রতিযোগিতা

    আর্জেন্টিনায় উগ্র সমর্থকদের ক্ষোভের আগুনে পুড়ে ছাই ফুটবলারদের গাড়ি

    দেশে-বিদেশে সর্বত্রই ধিক্কৃত হচ্ছে সরকার: মির্জা ফখরুল

    ভেড়ামারায় ফিলিং স্টেশনে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ২