Alexa
শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

পকেটে লুকিয়ে ব্যালট পেপার সরানোর অভিযোগে আটক প্রিসাইডিং কর্মকর্তা জেলহাজতে

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৯:১৯

পকেটে লুকিয়ে ব্যালট পেপার সরানোর অভিযোগে আটক প্রিসাইডিং কর্মকর্তা জেলহাজতে তৃতীয় ধাপে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে একটি কেন্দ্রে প্রিসাইডিং কর্মকর্তার বিরুদ্ধে প্যান্টের পকেটে লুকিয়ে কেন্দ্রের বাইরে ব্যালট সরানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। ২৮ নভেম্বর ভোট গ্রহণের দিন ১৬১টি ব্যালট কেন্দ্রের বাইরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওঠে উত্তর ভেওলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে। তিনি বদরখালী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ। 

কেন্দ্রের দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট তাঁকে ব্যালট পেপারসহ আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন। এ ঘটনায় মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে গত সোমবার রাতে চকরিয়া থানায় মামলা হয়। তাঁকে আদালতের মাধ্যমে কক্সবাজার জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। 

নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবের নির্দেশে মামলা রুজু করেন চকরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা এবং পূর্ব বড় ভেওলা ও বদরখালী ইউপি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ডা. সুপন নন্দী। ওই মামলায় মুজিবুর রহমানকে আসামি করা হয়। তিনি মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়ার উত্তর নলবিলা গ্রামের সুলতান আহাম্মদের ছেলে। 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর ভেওলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট গ্রহণের দিন বেলা সাড়ে ৩টার দিকে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা নিজের প্যান্টের পকেটে লুকিয়ে কিছু ব্যালট পেপার নিয়ে কেন্দ্রের বাইরে চলে যান। বিষয়টি জানাজানি হলেই কেন্দ্রের দায়িত্বরত পোলিং এজেন্টদের সঙ্গে মুজিবুর রহমানের কিছু সময় বাগ্‌বিতণ্ডা চলে। 

এ বিষয়ে প্রার্থী ও ভোটারদের মধ্যে গুঞ্জন শুরু হওয়ার একপর্যায়ে হাতাহাতির ঘটনাও ঘটে। এরপর ভোটকেন্দ্রের দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সদস্যরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। পরে বিকেল পৌনে ৪টার দিকে দ্বিতীয় তলায় ৩ নম্বর পোলিং বুথে নিয়ে প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মুজিবুর রহমানের প্যান্টের দুই পকেট থেকে ১৬১টি ব্যালট পেপার উদ্ধার করা হয়। 

এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীর ৫১টি, সংরক্ষিত মহিলা প্রার্থীর ৬০টি এবং সাধারণ সদস্য পদের ৫৫টি ব্যালট পেপার ছিল। ভোটকেন্দ্রের দায়িত্বরত উপপরিদর্শক মো. ইকরামুল হক ব্যালট পেপারগুলো জব্দ করেন। 

মো. ইকরামুল হক বলেন, ‘ব্যালট পেপার সরানোর সময় দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট তাঁকে হাতেনাতে ধরেন। পরে তাঁকে থানায় নিয়ে আটকে রাখা হয়। নির্বাচন কমিশন থেকে মামলার অনুমতি পাওয়ার পর গত সোমবার রাতে তাঁর নামে মামলা করা হয়েছে।’ 

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ ওসমান গণি বলেন, বদরখালী কলেজ অধ্যক্ষ মুজিবুর রহমানকে চকরিয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগের বিষয়ে গভীরভাবে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ‘বাহে এবার জারোত থাকি মুই বাঁচিম বাবা’

    দক্ষিণখানে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে মেম্বর প্রার্থী গ্রেপ্তার 

    দক্ষিণখানে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

    অনশন পেরোলো ৩২ ঘণ্টা, হাসপাতালে ভর্তি ৬ শিক্ষার্থী

    চট্টগ্রামে অটোরিকশায় কিউআর কোড স্টিকার লাগানো ‍শুরু

    ‘বাহে এবার জারোত থাকি মুই বাঁচিম বাবা’

    গৃহযুদ্ধের কিনারায় যুক্তরাষ্ট্র!

    দক্ষিণখানে নির্মাণাধীন ভবন থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু

    সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন পরিচয়ে প্রতারণার অভিযোগে মেম্বর প্রার্থী গ্রেপ্তার 

    দক্ষিণখানে ধর্ষণের অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার

    রাবিতে সশরীরেই চলবে ক্লাস-পরীক্ষা