Alexa
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

বিদ্রোহীতেই ডুবল নৌকা

আপডেট : ১৫ ডিসেম্বর ২০২১, ১৮:৫২

প্রতীকী ছবি সিলেটে তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বিদ্রোহীদের কারণে নৌকা ডুবেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। দলের বিদ্রোহীদের কারণে পরাজয়ের শঙ্কা ছিল আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের। অবশেষে সে শঙ্কাই সত্যি হলো। তিন উপজেলার ১৬ ইউপির ৭টিতে হেরেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা।

গত রোববারের নির্বাচনে জেলার ৩ উপজেলার ১৬ ইউপির ৯টিতে আওয়ামী লীগ, তিনটিতে বিদ্রোহী, দুটিতে স্বতন্ত্রের ব্যানারে বিএনপি, একটিতে জাতীয় পার্টি ও একটিতে জাসদের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। তবে দ্বিতীয় ধাপের চেয়ে এ ধাপে কিছুটা কম ধরাশায়ী হয়েছেন নৌকার প্রার্থীরা। সে ধাপে ১৫ ইউপির মাত্র ৬টিতে জিতেছিলেন নৌকার প্রার্থীরা। আর ৯ টিতেই ভরাডুবি হয়েছিল।

বিশ্লেষকদের মতে, নির্বাচনে বিএনপি আনুষ্ঠানিকভাবে অংশগ্রহণ না করায় আওয়ামী লীগের সামনে সবগুলোতে জয়ের বড় সুযোগ ছিল। কিন্তু প্রায় প্রতিটি ইউপিতে বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় দল মনোনীত প্রার্থীরা বেকায়দায় পড়ে যান।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা বলেন, ইউপি নির্বাচনে দল থেকে প্রার্থী ঠিক করে দেওয়া হলেও স্থানীয় অনেক নেতাই তা মেনে নেননি। তাঁরা প্রকাশ্যে বিদ্রোহী প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন। এতে দলীয় প্রার্থীরা কোণঠাসা হয়ে পড়েন।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আক্তারুজ্জামান চৌধুরী জগলু বলেন, তৃতীয় ধাপে জেলার তিন ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জয়ী হয়েছেন। তাঁরা কিন্তু আওয়ামী লীগের ভোট ভাগাভাগি করেছেন। বিদ্রোহী প্রার্থী না থাকলে এসব ভোট দলীয় প্রার্থীর পক্ষেই যেত।

যে সব ইউপিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা পরাজিত হয়েছেন তার সব কটিতেই হয় দলের বিদ্রোহী প্রার্থীরা জিতেছেন, নয়তো বিদ্রোহীরা ভোট টানায় জিততে পারেননি নৌকার প্রার্থী।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলার সিলামে শাহ ওলিদুর রহমান (নৌকা), লালাবাজারে তোয়াহিদুল হক তুহিন (নৌকা), জালালপুরে ওয়েছ আহমদ (নৌকা), দাউদপুর ইউপিতে আতিকুল হক আতিক (নৌকা) ও মোগলবাজার ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হওয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী ফখরুল ইসলাম শায়েস্তা বিজয়ী হয়েছেন।

জৈন্তাপুর উপজেলার জৈন্তাপুর ইউপিতে ফখরুল ইসলাম (জাপা নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী), চারিকাটায় সুলতান মাহমুদ (জাসদ নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী), দরবস্তে বাহারুল আলম বাহার (বিএনপি নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী), চিকনাগুলে আওয়ামী লীগের কামরুজ্জামান (নৌকা) ও ফতেপুরে রফিক আহমদ (নৌকা) বিজয়ী হয়েছেন।

গোয়াইনঘাট উপজেলার ডৌবাড়ি ইউপিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী এম নিজাম উদ্দিন, তোয়াকুলে মো. লুকমান (নৌকা), নন্দিরগাঁওয়ে এস কামরুল হাসান আমিরুল (নৌকা), ফতেহপুরে আমিসনুর রশিদ চৌধুরী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী), লেংগুড়ায় মো. মুজিবুর রহমান (নৌকা) ও রুস্তমপুর ইউপিতে শাহাব উদ্দিন (বিএনপি নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী) বিজয়ী হয়েছেন।

এদিকে জৈন্তাপুর উপজেলার ২ নম্বর জৈন্তাপুর ইউপিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী জাতীয় প্রার্থী নেতা ফখরুল ইসলাম নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী আলমগীর হোসেন। নৌকার প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক তৃতীয় হয়েছেন। এই ইউনিয়নেই বাড়ি স্থানীয় সাংসদ ও প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদের। তাঁর ইউনিয়নেই হেরেছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    অস্তিত্ব সংকটে বংশাই নদ

    আত্মনির্ভরশীল হচ্ছেন আশ্রয়ণের বাসিন্দারা

    হেলে পড়া সেতু সংস্কার হয়নি চার বছরেও

    সখীপুরে দুই ইটভাটা মালিককে জরিমানা

    স্বর্ণের কয়েন বিক্রির নামে প্রতারণা, আটক ১

    গারো পাহাড়ে পানির সংকট

    অভিজ্ঞতা ছাড়াই আল-আরাফাহ্ ইসলামী ব্যাংকে চাকরির সুযোগ 

    স্বেচ্ছায় করোনায় আক্রান্ত হতে চান?  

    বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ভূমি অধিগ্রহণে দুর্নীতির অভিযোগ বানোয়াট ও ষড়যন্ত্রমূলক: শিক্ষামন্ত্রী   

    ৪২ বছর পর বার্টি...

    যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে মসজিদের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা

    রাউজানে আড়াই হাজার টাকার বিনিময়ে ভুয়া জন্মনিবন্ধন, যুবকের কারাদণ্ড