Alexa
শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২

সেকশন

epaper
 

সড়কে নেই কার্পেটিং

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৩:৪৬

ফটিকছড়ির ইমামনগর সড়কের কার্পেটিং উঠে বেহাল হয়ে পড়েছে। ছবিটি গতকাল তোলা। আজকের পত্রিকা চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির ইমামনগর সড়ক বেহাল হয়ে পড়েছে। সড়কের বেশির ভাগ অংশে নেই কার্পেটিং। অনেক জায়গায় ইট উঠে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে এ সড়কে চলাচলে ভোগান্তির শেষ নেই পথচারীদের।

জানা গেছে, ২০১৪ সালে ১ দশমিক ২ কিলোমিটার দীর্ঘ ইমামনগর সড়কটি কার্পেটিং করা হয়।

অভিযোগ রয়েছে, কাজে নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে অল্প সময়ের মধ্যে সড়কটি বেহাল হয়ে পড়েছে। সড়ক সংস্কারের জন্য এলাকাবাসী বারবার পৌরসভায় আবেদন করেও কোনো লাভ হয়নি।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সড়কের বেশির ভাগ অংশে নেই কার্পেটিং। অনেক জায়গায় ইট উঠে বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। যানবাহন চলাচলে বেগ পেতে হয়। গাড়ি চলছে হেলে-দুলে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ইমামনগর সড়ক দিয়ে প্রতিদিন উপজেলার দৌলতপুর, বাবুনগর, দমদমা, ফকিরহাট, বাঁধেরপাড়, বোর্ড স্কুল ও দক্ষিণ দৌলতপুরসহ কয়েকটি গ্রামের মানুষ চলাচল করে। ভাঙা সড়কের কারণে প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

ইমামনগর গ্রামের বাসিন্দা সাংবাদিক মীর মাহফুজ আনাম বলেন, ‘এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সড়ক। তবে সড়কটি বেহাল হয়ে পড়েছে। এ নিয়ে কারও কোনো মাথাব্যথা নেই। যত ভোগান্তি এলাকার লোকজনের।’

নাজিরহাট বাজারের ব্যবসায়ী ও স্থানীয় বাসিন্দা মুহাম্মদ দিদারুল আলম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘এত দিন কোনো উপায়ে চলাচল করা যেত। কিন্তু গেল বর্ষার পর এ সড়ক দিয়ে চলাচল করতে অনেক কষ্ট হয়। এতে এলাকার হাজারো মানুষ অসুবিধায় পড়েছে। সবাই অনেক ঘুরে বিকল্প সড়কে চলাফেরা করে।’

বাবুনগর মাদ্রাসার শিক্ষার্থী মো. জোবায়ের বলেন, ‘বাড়ি থেকে মাদ্রাসায় আসার জন্য এই সড়ক একমাত্র মাধ্যম। সড়ক খারাপ হওয়ায় নিয়মিত মাদ্রাসায় যায় না।’

গুলতাজ মেমোরিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. সেলিম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘ইমামনগর সড়কের কারণে আমাদের প্রতিষ্ঠানে ওই এলাকার শিক্ষার্থী অনেক কমে গেছে। সড়ক বেহাল ও যাতায়াত ব্যয় বাড়ায় তারা নিয়মিত স্কুলে আসতে চায় না।’

নাজিরহাট পৌরসভার কাউন্সিলর মুহাম্মদ ইসমাইল বলেন, ‘সড়কটি সরেজমিনে দেখেছি। সড়কটি বেহাল হয়ে পড়েছে। এলাকাবাসী চরম দুর্ভোগে আছে। এটি মেরামতের জন্য প্রাক্কলন প্রস্তুত করে কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠানো হয়েছে। আশা করছি শিগগির বরাদ্দ পাওয়া যাবে।’

নাজিরহাট পৌর মেয়র এস এম সিরাজ উদ দৌলাহ বলেন, ‘এই সড়কটি বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে। সড়কটি সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দ্রুতই কাজ শুরু হবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    বিতর্কে বিভক্ত ঢাকাই সিনেমা

    নিয়ন্ত্রণহীন বাজারে অসহায় বাণিজ্যমন্ত্রী

    অসততা

    শেষযাত্রা

    সার সংকট নিরসনে ৩৩ ডিলারকে ৩ দিনের সময়সীমা

    ভবন থাকলেও আসবাব সংকটে টিনশেডে পাঠ

    আষাঢ়ে নয়

    এ লড়াই এগিয়ে যাওয়ার

    বিতর্কে বিভক্ত ঢাকাই সিনেমা

    শেষযাত্রা

    অসততা

    নিয়ন্ত্রণহীন বাজারে অসহায় বাণিজ্যমন্ত্রী

    অলিম্পিকেও নিষিদ্ধ হতে পারে ভারত