Alexa
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

সুন্দরগঞ্জ ও পলাশবাড়ী ইউপি নির্বাচন

সুন্দরগঞ্জে ১৩ ইউপিতে জাপার ভরাডুবি, একটিতেও জয় নেই

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫:৩৫

প্রতীকী ছবি গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জে ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ব্যালট পেপার ছিনতাই, প্রিসাইডিং কর্মকর্তা অবরুদ্ধ, ফাঁকা গুলিবর্ষণসহ নানা ঘটনার মধ্য দিয়ে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এতে জাতীয় পার্টির ভরাডুবি হলেও জয়জয়কার স্বতন্ত্র প্রার্থীদের। ঘোষিত ফলাফলে ১১টি ইউনিয়নের মধ্যে ২ টিতে আওয়ামী লীগ, ৩ টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ও ৬ টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এ ছাড়া পলাশবাড়ী উপজেলার ছয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দুইটিতে আওয়ামী লীগ,২টি বিএনপি, ২ টিতে জাতীয় পাটি প্রার্থী চেয়ারম্যান পদে জয়লাভ করেছেন।

ভোট গণনা শেষে গতকাল সোমবার ভোর ৪টার দিকে উপজেলা পরিষদ হলরুমে নির্বাচন কর্মকর্তা মো. সেকান্দার আলী ও সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা এ ফলাফল ঘোষণা করেন। এ সময় ১৩ ইউনিয়নের মধ্যে ২টি ইউনিয়নের ফলাফল স্থগিত রাখা হয়।

এতে বামনডাঙ্গা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আব্দুল জব্বার ৬ হাজার ৫৪৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। সোনারায় ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সৈয়দ বদিরুল আহসান সেলিম ৭ হাজার ৭৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তারাপুর ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আমিনুল ইসলাম ৮ হাজার ৬৩১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। বেলকা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী ইব্রাহিম খলিলুল্যাহ ৫ হাজার ৩৮১ ভোট পেলে বিজয়ী হন। দহবন্দ ইউনিয়নে মো. রেজাউল আলম সরকার ৫ হাজার ৬৯৭ ভোট পেয়ে জয় লাভ করেন। সর্বানন্দ ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. জহুরুল ইসলাম ৪ হাজার ৬৩২ ভোট পেয়ে জয় লাভ করেন। রামজীবন ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. শামছুল হুদা সরকার ৪ হাজার ১৫৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। ধোপাডাঙ্গা ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মোকলেছুর রহমান মণ্ডল ৩ হাজার ১৯৪ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেন। ছাপড়হাটী ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকে ৫ হাজার ৬২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন কনক কুমার গোশ্বামী। শান্তিরাম ইউনিয়নে স্বতন্ত্র প্রার্থী এ বি এম মিজানুর রহমান খোকন ৪ হাজার ৬৬০ ভোট পেয়ে জয় লাভ করেন। কাপাসিয়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মো. মনজু মিয়া ২ হাজার ৭৫২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। এদিকে ফলাফল স্থগিত হওয়া দুই ইউনিয়নের মধ্যে কঞ্চিবাড়ি ইউনিয়নে আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মনোয়ার আলম সরকার ৪ হাজার ৬ এবং শ্রীপুর ইউনিয়নে আনারস প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আজাহারুল ইসলাম ৭ হাজার ৩৪৯ ভোট পেয়ে এগিয়ে আছেন।

পলাশবাড়ী: উপজেলার হোসেনপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান মো. তৌফিকুল আমিন মণ্ডল টিটু লাঙল প্রতীকে (জাপা) ৩৯৩২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।

মহদীপুর ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান চেয়ারম্যান মো. তৌহিদুল ইসলাম মণ্ডল ৬০৬৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। বেতকাপা ইউনিয়নে লাঙল প্রতীক নিয়ে মো. মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তা (জাপা) ৫৩০৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। পবনাপুর ইউনিয়নে মোটরসাইকেল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মাহাবুবুর রহমান মণ্ডল (বিএনপি) ৩৪৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।

মনোহরপুর ইউনিয়নে আওয়ামী’লীগের নৌকা প্রতীকে ৬০৬২ ভোট পেয়ে মো. আব্দুল ওহাব প্রধান রিপন বিজয়ী হয়েছেন।

হরিনাথপুর ইউনিয়নে ঘোড়া প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. কবির হোসাইন জাহাঙ্গীর (বিএনপি) ৩৬৬১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    অস্তিত্ব সংকটে বংশাই নদ

    আত্মনির্ভরশীল হচ্ছেন আশ্রয়ণের বাসিন্দারা

    হেলে পড়া সেতু সংস্কার হয়নি চার বছরেও

    ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি চক্রের মূলে বুকিং সহকারী

    ২০২২ সাল হবে রাজনীতির সংকটকাল: সুলতান মনসুর

    প্রধান শিক্ষক ও স্কুল কমিটির বিরুদ্ধে অভিভাবকদের মানববন্ধন

    রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় ছাদ থেকে পড়ে শিশুসহ দুজনের মৃত্যু

    আগামী নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে সংলাপ করার আহ্বান হারুনের 

    নাচ শেখার অনুষ্ঠান ‘নাচের ইশকুল’