Alexa
বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

সব গরিবের যদি একটি করে বাস থাকত!

আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২১, ২০:৫৯

সব গরিবের যদি একটি করে বাস থাকত! শিক্ষার্থীদের জন্য বাসে অর্ধেক বা হাফ ভাড়া চালুর বিষয়ে বিআরটিএ ও পরিবহনের মালিক-শ্রমিকদের মধ্যে শনিবার অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় বৈঠকেও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। হাফ ভাড়ার দাবিতে দুই সপ্তাহ ধরে আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত শুক্রবার সরকারের তরফ থেকে ঘোষণা দেওয়া হয়, আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে সরকারি প্রতিষ্ঠান বিআরটিসির বাসে কিছু শর্ত সাপেক্ষে হাফ ভাড়া দিয়ে চলতে পারবে শিক্ষার্থীরা। কিন্তু বেসরকারি বাসমালিকেরা প্রথম থেকে এ দাবি নাকচ করে আসছেন। গত বৃহস্পতিবার সড়ক পরিবহনসচিবের সভাপতিত্বে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিব পর্যায়ে বৈঠক হয়। পরিবহনের মালিক ও শ্রমিকনেতারা বৈঠকে অংশ নেন। সেদিনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। সিদ্ধান্তে আসতে না পারার বড় কারণ মালিকপক্ষ সালিস মানতে চায় তালগাছ নিজের ভাগে রেখে। তাঁদের ছাড় দেওয়ার মানসিকতা নেই, তাঁরা শুধু পেতে চান।

ডিজেলের দাম ২৩ শতাংশ বাড়ানোর পর পরিবহনের মালিকদের চাপে বাসের ভাড়া ২৭ শতাংশ বাড়ায় সরকার। এরপর ১৫ নভেম্বর থেকে বাসে অর্ধেক ভাড়া দেওয়ার দাবিতে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। তাদের এই আন্দোলনের মধ্যে ২৪ নভেম্বর গুলিস্তানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নটর ডেম কলেজের এক শিক্ষার্থী নিহত হলে নিরাপদ সড়ক ও হাফ পাসের দাবির আন্দোলনে আরও গতি আসে।

সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ অবশ্য বলেছেন, ঢাকার ৮০ শতাংশ বাসমালিকই ‘গরিব’। তিনি বলেন, ঢাকায় অনেকেই একটি বাস দিয়ে কোনোমতে সংসার চালান। হাফ পাস দেওয়া হলে তাঁদের ব্যবসায় টিকে থাকাই কষ্টকর হয়ে যাবে।

সত্যি কি বাসমালিকেরা এতটাই গরিব? আহা, সব গরিবের যদি বাসের মালিক হওয়ার সুযোগ থাকত? বাসমালিকেরা এতটা গরিব হলে ফুটপাতে ছোট ব্যবসা না করে বাস কেনার শখ কেন হয়েছে, সে প্রশ্ন না করেও এটা বলা যায় যে, শিক্ষার্থীদের কাছে হাফ ভাড়া আদায় করলে এক দিনে একটি বাসের আসলে কত লোকসান হয়, তার কোনো হিসাব কি তাঁরা করেছেন? প্রতিদিন একটি বাসে কত যাত্রী চলাফেরা করে এবং তাদের মধ্যে কতজন শিক্ষার্থী, তার একটি হিসাব করলেই না ক্ষতির পরিমাণ জানা সম্ভব। মালিকেরা যে ভর্তুকি দেওয়ার আবদার করছেন, তার ভিত্তি কী? ৫ টাকার ক্ষতিতে ১০ টাকা আদায়ের ফন্দি না এঁটে একটি স্বচ্ছ ধারণা তাঁদের পক্ষ থেকেই সবাইকে দেওয়া উচিত।

পুলিশ সদস্যরা সরকারি চাকরিজীবী। তাঁরা বেতন-ভাতা পান। ঢাকা শহরে তাঁরাও বিনা ভাড়ায় চলাচল করেন। মালিকেরা তাঁদের ভাড়া ছাড় দেন কেন? কোন যুক্তিতে? 
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, ‘ছোটবেলায় আমরাও হাফ ভাড়ায় চলেছি। আমি মনে করি, কম ভাড়ায় তাদের চলাচল নিশ্চিত করা উচিত টালবাহানা বন্ধ করে শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়ায় চলাচল নিশ্চিত করার পক্ষেই আমরা।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    পঠিতসর্বশেষ

    এলাকার খবর

     
     

    বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করেই কেন আন্দোলন থামাতে হয়?

    বিপ্লবে মেহেদীরাও শরিক

    ধর্ষণে আর কতকাল তালি দেবেন

    সম্পদের হিসাব দিতে মন মানে না কেন?

    পুরান পাগল ভাত পায় না, নতুন পাগলের আমদানি

    বিজয়ের ৫০ বছর ও আজকের বাংলাদেশ

    সরকারি চাকরি

    ২৮০টি পদে জনবল নেবে বাংলাদেশ রেলওয়ে

    সামাজিক মাধ্যমে বিভ্রান্তি রোধে ডিসিদের তৎপর থাকতে হবে: তথ্যমন্ত্রী 

    শ্রীপুরে মহুয়া এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন দুটি বগি লাইনচ্যুত

    আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে সর্বোচ্চ ৩ বাংলাদেশি

    বদলগাছীতে পর্নোগ্রাফি ভিডিও সরবরাহকারী ৭ ব্যক্তি গ্রেপ্তার 

    সরকারি চাকরি

    ৮টি পদে জনবল নেবে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, বরিশাল