Alexa
মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

পাবলিক আমাদের আ.লীগের দালাল বলে, এটা মুছতে চাই: সংসদে জাপার চুন্নু

আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০২১, ১৭:৪৯

জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু। ফাইল ছবি জাতীয় সংসদে বিভিন্ন ইস্যুতে সরকারের প্রশংসা করে থাকেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সাংসদেরা। এ কারণে দেশের জনগণ তাঁদের ক্ষমতাসীন দলের দালাল বলে বলে উল্লেখ করেছেন দলটির মহাসচিব ও সাংসদ মুজিবুল হক চুন্নু। জাপা সেই তকমা মুছতে চায় বলেও সংসদে জানান তিনি। 

আজ শনিবার জাতীয় সংসদে ‘মহাসড়ক বিল-২০২১ ’-এর সংশোধনী প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে এসব এ কথা বলেন মুজিবুল হক। 

এর আগে বিলটির জনমত যাচাইয়ের বক্তৃতায় সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমাদের দেশে আমরা যত কথা বলি, তত কাজ করি না। যা বিশ্বাস করি, তা পালন করি না। যা পালন করি, তা বিশ্বাস করি না। সমালোচনার জন্য অনেক সময় আমরা শুধু সমালোচনার ঝড় বইয়ে দিই। প্রশংসার বিষয়গুলোকে আমরা নিদারুণভাবে উপেক্ষা করে যাই। সরকার ক্ষমতায় আছে বলে বিরোধী দল কি শুধু সমালোচনাই করবে। সরকারের কি কোনো ভালো কাজ নেই? যখন বক্তব্য দেন তখন কি সেই কাজগুলোর প্রশংসা কেউ করেন?’ 

পরে সংশোধনী প্রস্তাবের আলোচনায় অংশ নেন মুজিবুল হক চুন্নু। তিনি বলেন, ‘সড়ক পরিবহনমন্ত্রী দুঃখ করে বলেছেন, আমরা সরকারের ভালো কাজের প্রশংসা করি না। কথাটি সঠিক নয়। সংসদে দেখবেন। আমার এলাকার যে অল ওয়েদার রাস্তাসহ তিনি যেটি করেছেন, তার কথা অনেকবার বলেছি। শুধু বলেছি না, আমাদের সংসদ সদস্যরা সরকারের কথা বলতে গিয়ে এমন অবস্থা হয়েছে। পাবলিক আমাদের আওয়ামী লীগের দালাল বলে। আর কত বলব। আর কত বলব বলেন!’ 

চুন্নু বলেন, ‘আমরা এখন দালালি নামটা মুছতে চাই। তারপরও যদি আপনাদের মন না ভরে, তাহলে আর তো কিছু করার নাই।’ 

আর আগে জনমত যাচাই-বাছাইয়ের আলোচনা অংশ নিয়ে চুন্নু বলেন, ‘মহাসড়ক বিলটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এই বিলটি অনেক দিন রাস্তায় ঘোরাঘুরি করছে। পাস করার কথা আরও আগে। নানান কারণে পাস হয়নি।’ 

সড়কের নিরাপত্তার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের সড়কের নিরাপত্তা কী অবস্থায় আছে, সেটা গত কয়েক দিনের পত্রিকায় দেখেন। গত দুই দিনে উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির চালক নাই। কেমন নিরাপত্তা। কেমন মাতবর চালক, ১০ হাজার টাকায় অন্য লোক দিয়ে গাড়ি চালায়। সেই লোক এসে উঠায় দেয় ছাত্রের ওপরে। মানুষ মেরে ফেলে।’ 
 
এ সময় চুন্নু বলেন, ‘আমার পাশে বসে আছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি (মসিউর রহমান রাঙ্গা)। মালিক সমিতির সভাপতি জাতীয় পার্টির, সাধারণ সম্পাদক আওয়ামী লীগের (এনায়েত উল্লাহ)। শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি আওয়ামী লীগের (শাজাহান খান), আর সাধারণ সম্পাদক কমিউনিস্ট পার্টির (ওসমান আলী)। যেখানে কিছু বলব ভালো করে, কোন সময় জানি কী হয়। ভয়ও পায় তবু বলতে হয়!’ 

এ সময় গাজীপুর সড়কের দুরবস্থা প্রসঙ্গে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘উন্নয়নের নির্মাণকাজের একটি যন্ত্রণাও রয়েছে। সেই যন্ত্রণাটা এই সড়কে একটু বেশি হয়েছে। ভোগান্তি হয়ে গেছে। ওই রাস্তার ড্রেনেজ ব্যবস্থা অত্যন্ত খারাপ। বাস র‍্যাপিড ট্রানজিটও বাংলাদেশে প্রথম। একটি কোম্পানি খুব লো প্রাইসে কাজটি নিয়েছে। যে কারণে কাজ করতে গিয়ে তারা ঘাটে ঘাটে আমাদের সমস্যায় ফেলেছে। প্রধানমন্ত্রী সেই দেশের সরকারের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। ফান্ডিংয়ের কিছু সমস্যা ছিল, তার সমাধান হয়েছে। আপনাদের বলতে পারি, এই বর্ষাই শেষ বর্ষা। আগামী বছর আপনাদের আর দুর্ভোগ পোহাতে হবে না।’ 

মন্ত্রী উল্লেখ করেন, ‘ছাত্রদের সঙ্গে দেওয়া প্রধানমন্ত্রী তাঁর কথা রেখেছেন। রমিজউদ্দিন কলেজের সেখানে আন্ডারপাস নির্মাণ হয়েছে। এটি উদ্বোধনের অপেক্ষায় আছে।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    যুক্তরাজ্যপ্রবাসী জাপার কেন্দ্রীয় নেতার মৃত্যু

    ইভিএমে টেকনিক্যাল সমস্যা হতেই পারে: স্থানীয় সরকারমন্ত্রী 

    দেশে মুখ বন্ধ রাখলেও, বিদেশিদের রাখা যাবে না: রিজভী 

    ছাত্রলীগ সভাপতি জয় ‘ছাত্রদল’ করতেন, দাবি সহসভাপতির

    উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ফের আগুন

    মেসিকে টপকে টানা দ্বিতীয়বার ফিফার বর্ষসেরা খেলোয়াড় হলেন লেভানডফস্কি

    করোনার সঙ্গে ইনফ্লুয়েঞ্জা ইউরোপে ‘টুইন্ডেমিক’

    অভিনয়শিল্পী শিমুর বস্তাবন্দী লাশ উদ্ধার

    চীনের নজর মধ্যপ্রাচ্যে বড় চ্যালেঞ্জ যুক্তরাষ্ট্র

    নীলফামারীতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ, যুবক আটক