Alexa
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

শিক্ষক লাঞ্ছিত, বিচার দাবিতে মানববন্ধন

আপডেট : ২৬ নভেম্বর ২০২১, ১৬:৫৩

 ঘাটাইলে শিক্ষককে লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে গতকাল মানববন্ধন। আজকের পত্রিকা ঘাটাইলে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রধান শিক্ষককে লাঞ্ছিতের ঘটনার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছেন বিদ্যালয়টির শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার শালিয়াবহ চৌরাস্তা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এ মানববন্ধন করে। এ সময় বিদ্যালয় মাঠ থেকে শুরু করে বাজারের বিশেষ সড়ক প্রদক্ষিণ করে একটি মৌন মিছিল। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও দুজন ইউপি চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে গত বুধবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, বুধবার বিকেলে উপজেলার শালিয়াবহ চৌরাস্তা পাবলিক উচ্চবিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচন করতে সভা ডাকেন প্রধান শিক্ষক আবু হানিফ। ওই সভায় উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শফিকুল ইসলাম, রসুলপুর ও লক্ষিন্দর ইউপির চেয়ারম্যান যথাক্রমে মো. এমদাদ সরকার, একাব্বর আলীসহ বিদ্যালয়ের অভিভাবক ও অন্য সদস্যরা উপস্থিত হন। সভার শুরুতে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সরকারি বিধি মোতাবেক কীভাবে সভাপতি নির্বাচিত হবেন এ নিয়ে আলোচনা শুরু করেন। আলোচনার একপর্যায়ে স্থানীয় পেচারআটা মাটিয়াআটা দাখিল মাদ্রাসার অফিস সহকারী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ চুন্নু তাঁর কথা থামিয়ে দেন। তিনি হাজি আব্দুল মজিদকে সভাপতি নির্বাচিত করার জন্য চাপ দেন।

এ সময় সভায় উপস্থিত আব্দুল কুদ্দুস মিয়া তাঁর কথায় সাড়া না দিয়ে বিধি মোতাবেক কমিটির সভাপতি নির্বাচিত করার প্রস্তাব দেন। এ নিয়ে উভয়পক্ষের লোকজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি শুরু হয়। একপর্যায়ে মাদ্রাসার অফিস সহকারী জিন্নাহ ক্ষিপ্ত হয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের টেবিলে থাকা কাগজপত্র ছিঁড়ে ফেলার চেষ্টা করেন। এতে প্রধান শিক্ষক বাধা দিলে তাঁকে মারধর করেন।

পরে এ নিয়ে এলাকায় স্থানীয় দুটি পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয়। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) বিষয়টি জানান এবং সভাপতি নির্বাচন স্থগিত করে দেন।

এ ব্যাপারে রসুলপুর ইউপি চেয়ারম্যান এমদাদ সরকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘ঘটনাটি আমার উপস্থিতিতে ঘটেছে। আমি বিষয়টি ইউএনওকে জানিয়েছি।’

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ চুন্নুর মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে, তিনি রিসিভ করেননি।

তবে প্রধান শিক্ষক আবু হানিফ বলেন, ‘অফিসের কাগজপত্র ছিঁড়ে ফেলা ও আমাকে মারধরের ঘটনাটি সত্য। এ বিষয়ে ঘাটাইল থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ক্যারম প্র‌তি‌যো‌গিতার ফাইনাল

    ভর্তুকি মূল্যে কৃষি যন্ত্র বিতরণ

    শেরপুরে স্বেচ্ছাসেবক দলের মশাল মিছিলে পুলিশের বাধা

    ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে কলেজছাত্র নিহত

    উড়োজাহাজের ধাক্কায় কক্সবাজারে ২ গরুর মৃত্যু, রক্ষা পেলেন ৯৪ জন যাত্রী

    পটুয়াখালীতে ইউনিয়ন আ. লীগের কমিটি নিয়ে উত্তাপ, কাল অর্ধদিবস হরতাল

    তথ্যমন্ত্রীকে নিয়ে ফেসবুকে অপপ্রচার: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

    পরের ব্যালন ডি’অর বেনজেমার হাতে দেখছেন রিয়াল কোচ