Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

মদ খাওয়া নিয়ে বিতর্কে বারে হামলা-ভাঙচুর

আপডেট : ২৫ নভেম্বর ২০২১, ০১:৩৬

মদ খাওয়া নিয়ে বিতর্কে বারে হামলা-ভাঙচুর। ছবি: আজকের পত্রিকা মদ খাওয়া নিয়ে রাজধানীর উত্তরার কিং ফিশার বারে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় বার ও বারের সামনে থাকা মোটরসাইকেল ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে কয়েকজন আহত হয়েছেন। গতকাল বুধবার রাত ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, কিং ফিশার বারের মধ্যে মদ খাওয়ার সময় টেবিলে বসাকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক হয়। পরবর্তীতে তুরাগের বাউনিয়ার কিশোর গ্যাং লিডার সানির নেতৃত্বে দিয়াবাড়ি ও বাউনিয়া থেকে তিনটি লেগুনায় অর্ধ-শতাধিক কিশোর গ্যাং সদস্য এসে হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে। এ সময় বাইরে থাকা মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করে তারা। তবে অপর গ্রুপের কারও নাম পরিচয় জানা যায়নি। এতে বারের নারী সিকিউরিটি পারভীনসহ কয়েকজন আহত হয়েছেন। 

বারের সিকিউরিটি গার্ড পারভীন বলেন, ‘ডিউটিতে থাকা অবস্থায় বারের মধ্যে দুই গ্রুপের হাতাহাতি হয়। তখন বারের লোকজন মীমাংসা করে দেয়। এরপর এক গ্রুপের লোকজন বাইরে থেকে আরও লোকজন নিয়ে এসে বারে হামলা চালায়। এতে আমার মাথা ফেটে গেছে। এ ছাড়া শরীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত পেয়েছি।’ 

স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ, প্রকাশ্যেই থানা-পুলিশকে ম্যানেজ করে এই বার চালানো হচ্ছে। কিশোর-কিশোরীসহ স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাও এ বারে গিয়ে নিয়মিত মদ পান করে। প্রতিনিয়ত রাতে গরীবে নেওয়াজ অ্যাভিনিউ সড়কে মারামারি ও মাতলামির ঘটনা ঘটে। কিন্তু আশপাশে পুলিশ থাকলেও তারা কোন ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টো তাদের পাহারা দেয়। বিনিময়ে পুলিশ হাতিয়ে নেয় মোটা অঙ্কের ঘুষ। 

স্থানীয়রা জানান, রাত ১০টার পর থেকে সারা রাত মদ কেনাবেচা চলে। টাকা দিলেই সারা রাত মদ পাওয়া যায়। আর সারা রাতই চলে মাতালদের উত্তাপ। ফলে আবাসিক এলাকার বাসিন্দাদের রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে। 

হামলার বিষয়ে কিং ফিশার বারের ম্যানেজার ফরহাদ বলেন, বারের মধ্যে আসা কাস্টমারদের দুই গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। পরে তাদের শান্ত করা হয়। পরবর্তীতে একটি গ্রুপের লোকজন বাইরে থেকে তিন-চারটি লেগুনায় আরও লোকজন নিয়ে এসে বারের নিচ তলায় থাকা ফুলের টব, ফার্নিচার ও বাইরে থাকা মোটরসাইকেল ভাঙচুর করেছে। 

বারের বিরুদ্ধে অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন, ‘যাদের কাছে পারমিশন আছে, আমরা তাদের কাছেই মদ বিক্রি করি। অপ্রাপ্তবয়স্ক কাউকে ঢুকতে দেই না।’ 

এ বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই নিয়াজ মোহাম্মদ শরীফ আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষকে কেন্দ্র করে কিং ফিশার বারে ভাঙচুর করা হয়েছে। আমরা সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করেছি। মামলা করলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব। তবে কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ডিএনসিসিতে ৮ লাখের বেশি শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’

    শনিবার শিক্ষার্থীদের সংহতি সমাবেশ

    কুয়েট শিক্ষক মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্তের দাবিতে রাবি শিক্ষকদের মানববন্ধন

    চবিতে ইমামকে গণপিটুনির ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

    ভাঙ্গুড়ায় রোকেয়া দিবসে চার জয়িতাকে সংবর্ধনা

    ডিএনসিসিতে ৮ লাখের বেশি শিশুকে খাওয়ানো হবে ভিটামিন ‘এ’

    শনিবার শিক্ষার্থীদের সংহতি সমাবেশ

    কুয়েট শিক্ষক মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্তের দাবিতে রাবি শিক্ষকদের মানববন্ধন

    চবিতে ইমামকে গণপিটুনির ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

    ডাকাতির পর রাতভর ২ নারীকে ধর্ষণ, ৫ আসামির দুবার যাবজ্জীবন

    ভাঙ্গুড়ায় রোকেয়া দিবসে চার জয়িতাকে সংবর্ধনা