Alexa
সোমবার, ১৭ জানুয়ারি ২০২২

সেকশন

epaper
 

‘বিএনপির গণ-অনশনের সময় খাবারের দোকানগুলোতে ভালো বেচাবিক্রি হয়েছে’

আপডেট : ২১ নভেম্বর ২০২১, ২১:৫৩

চ্যানেল ওনার্স-অ্যাটকো আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে  তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ছবি: পিআইডি  খালেদা জিয়াকে বিদেশ নেওয়ার দাবিতে বিএনপির গণ-অনশনের সময় নয়া পল্টন দলীয় কার্যালয়ের সামনের খাবারের দোকানগুলোতে ভালো বেচাবিক্রি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আজ রোববার দুপুরে রাজধানীর বনানীতে একটি অভিজাত হোটেলে বিশ্ব টেলিভিশন দিবস উপলক্ষে অ্যাসোসিয়েশন অব টেলিভিশন চ্যানেল ওনার্স-অ্যাটকো আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন তিনি। 

মন্ত্রী বলেন, বিএনপির উদ্দেশ্য বেগম জিয়ার স্বাস্থ্য ভালো করা নয়, তারা চায় বেগম জিয়া সব সময় অসুস্থ থাকুক। তাহলে তারা সব সময় বলতে পারবে তাঁকে বিদেশ পাঠাতে হবে। তারা বেগম জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে রাজনীতি করছে, যেটি অনভিপ্রেত। 

এর আগে অ্যাটকো আয়োজিত গোলটেবিল আলোচনায় বিশ্ব টেলিভিশন দিবস প্রসঙ্গে বক্তব্য রাখতে গিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘অনেকের ঘরে টেলিভিশন না থাকলেও দেখা যায় চায়ের দোকানে বসে টেলিভিশনে নাটক, সিনেমা দেখছে। আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি মানুষের জীবনের ওপর টেলিভিশনের একটা প্রভাব আছে। পুরো টেলিভিশন শিল্পটা জীবন গঠনে ভূমিকা রাখবে। টেলিভিশন জীবন, সমাজ, দেশ গঠনে এবং রাষ্ট্রকে লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য টেলিভিশন কাজ করবে, এটিই বিশ্ব টেলিভিশন দিবসে আমার প্রত্যাশা।’ 

টেলিভিশন শিল্পের উন্নয়নে সরকারের দৃঢ় পদক্ষেপগুলো নিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে সম্প্রচারের জন্য বিদেশি চ্যানেলকে আইন অনুযায়ী ক্লিন ফিড পাঠাতে হবে। বাংলাদেশের কেউ কেউ বিদেশি চ্যানেলগুলোর ফিড ক্লিন করার দায়িত্ব নেওয়ার চেষ্টা করছে। এর প্রয়োজন আছে বলে মনে করি না। কারণ, আইন অনুযায়ী ক্লিন ফিড পাঠানো বিদেশি চ্যানেলগুলোরই দায়িত্ব। তারা নেপাল, শ্রীলঙ্কা, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে পাঠায়, সেখানে বাজার অনেক ছোট। আর আমাদের দেশে পাঠাবে না, আমরা দায়িত্ব নিয়ে ক্লিন ফিড করব, তার প্রয়োজন নেই। 

‘দেশে টেলিভিশনগুলোর রেটিং বা টিআরপি একটা সংস্থা করত, অন্যান্য দেশে কীভাবে করা হয়, বিশেষ করে ভারতে কীভাবে করা হয় অনেকগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আমরা একটা সিদ্ধান্তে এসেছি এবং সহসা এতে শৃঙ্খলা আনব,’ বলেও জানান তিনি। 

গোলটেবিল আলোচনায় আরও বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আখতারুজ্জামান, সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান নাছিমা বেগম, প্রেস কাউন্সিলের চেয়ারম্যান নিজামুল হক, তথ্য কমিশনের চেয়ারম্যান মরতুজা আহমদ, বাংলাদেশ টেলিভিশনের মহাপরিচালক সোহরাব হোসেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহজাহান মাহমুদসহ আরও অনেকে। এ ছাড়াও বিভিন্ন বেসরকারি টিভি চ্যানেলের মালিকেরা এই আলোচনায় অংশ নেন। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন অ্যাটকোর সভাপতি ও মাছরাঙা টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অঞ্জন চৌধুরী। পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন অ্যাটকোর সিনিয়র সহসভাপতি ইকবাল সোবহান চৌধুরী।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

     
     

    ছাত্রলীগ সভাপতি জয় ‘ছাত্রদল’ করতেন, দাবি সহসভাপতির

    দেশকে বিরোধী দলশূন্য করতে চায় সরকার: রিজভী

    প্রশাসনের দিকে অভিযোগের তির নৌকার ১০ প্রার্থীর

    ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এমপি উকিল আবদুস সাত্তার করোনা আক্রান্ত

    রাষ্ট্রপতিকে ধন্যবাদ দিতে সংসদে প্রস্তাব

    মমেক করোনা ইউনিটে ২ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৯৪ জন

    অতি আত্মবিশ্বাসই কি ভোগাল বাংলাদেশকে

    ফ্যাক্টচেক

    ‘ইভিএমে নৌকা ছাড়া মার্কা নেই’ দাবিতে ভাইরাল ভিডিওটি নাসিক নির্বাচনের নয়