Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

ব্যবসায়িক স্বার্থে দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়ে, শ্রমিকদের বেতন বাড়ে না: নজরুল ইসলাম খান

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৬:১৪

নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের ঊর্ধ্বগতিতে শ্রমজীবী মানুষের ভোগান্তির প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল। ছবি: আজকের পত্রিকা  চাল, ডাল ও তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতিতে শ্রমজীবী মানুষের ভোগান্তির প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দল। এক বছরে ৩৫ বার দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়লেও সাত বছরে একবার শ্রমিকদের বেতন বাড়ে না। ব্যবসায়ীদের লোকসান কমাতে তেলের দাম বাড়াল সরকার কিন্তু শ্রমিকদের কষ্ট লাঘবে তাদের বেতন বাড়াল না ক্যান? মানববন্ধনের প্রধান অতিথির বক্তব্যে এমন প্রশ্ন রাখেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ও শ্রমিক নেতা নজরুল ইসলাম খান। 

আজ বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এই মানববন্ধনে তিনি বলেন, সয়াবিনের দাম প্রতি লিটারে একবারে ৭ টাকা বাড়ানো হয়েছে। ফেব্রুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত সাতবার দাম বাড়ানো হয়েছে। এই পর্যায়ে এসে প্রতি লিটার সয়াবিনের দাম বেড়েছে ৪৫ টাকা। ব্যবসায়ীরা যুক্তি দেখিয়েছেন করোনার কারণে তাদের অনেক লোকসান হয়েছে বলে তেলের দাম বাড়ানো হয়েছে। অথচ যে পরিমাণ তেল এখনো মজুত রয়েছে সেটা দিয়ে আরও তিন মাস চলার কথা। সরকার ব্যবসায়ীদের লোকসান কমাতে তেলের দাম বাড়াল কিন্তু শ্রমিকদের বেতন বাড়াল না কেন? এক বছরে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়েছে পঁয়ত্রিশ বার। কিন্তু গত সাত বছরে শ্রমিকের বেতন বাড়েনি একবারও। এই সরকার যদি আরও ক্ষমতায় থাকে তাহলে দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়বে ছাড়া কমবে না। কারণ এই সরকার বিনা ভোটের সরকার। বিনা ভোটের সরকার কারও কাছে দায়বদ্ধ না, জনগণের ভোটে নির্বাচিত হলে তারা জনগণের কথা ভাবত। জনগণের সরকারের জন্য গণতান্ত্রিক ও গণ আন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকার হটিয়ে গণতান্ত্রিক সরকার ক্ষমতায় আনতে হবে। আগামী দিনে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন হবে এবং সেটা বিএনপির নেতৃত্বের হবে। 

প্রতিবাদ শব্দটিকে নির্বাসনে পাঠিয়েছে এই সরকার উল্লেখ করে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রাহুল কবির রাজি বলেন, যাদের কারসাজিতে নিত্যপণ্যের দাম বাড়ে তাদের তো বিদেশে বাড়ি আছে, ঘর আছে, উন্নত জীবনের নিশ্চয়তা আছে। এই দেশের নিম্ন, মধ্য ও অল্প আয়ের মানুষ বাঁচল কী মরল সেটা তাদের দেখার বিষয় না। আপনি যখন লাগামহীন দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদ করতে যাবেন তখন সবার সামনে ধরিয়ে দেওয়া হয় নতুন ইস্যু। আপনি যখন এসব নিয়ে কথা বলবেন তখন আপনাকে ব্যস্ত রাখা হয়েছে কুমিল্লা, হাজীগঞ্জ ও পীরগঞ্জ দিয়ে। নানা কূটকৌশলের মধ্য দিয়ে এই সরকার জনগণকে মূল আলোচনার বাইরে রাখতে চায়। 

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন। এ ছাড়া ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণসহ ঢাকার আশপাশের জেলা থেকে আসা শ্রমিক নেতারা মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি থেকে বাঁচতে এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামানোর জন্য গণ-আন্দোলন দরকার এবং এই আন্দোলন বিএনপির নেতৃত্বেই হবে বলে মনে করেন বক্তারা। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে রিজভীর ‘শেষ কথা’ 

    স্বামী বদলানো যায় কিন্তু প্রতিবেশী না—ভারত সম্পর্কে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী    

    খালেদার চিকিৎসা নিয়ে আইন মন্ত্রণালয় থেকে কোনো ইঙ্গিত আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

    আলালকে ক্ষমা চাইতে বললেন কাদের 

    খালেদা জিয়ার প্রতি প্রধানমন্ত্রী যথেষ্ট সহানুভূতি দেখিয়েছেন: তথ্যমন্ত্রী 

    ‘আলালকে যেখানে পাওয়া যাবে সেখানে গণধোলাই দেওয়া হবে’

    শনিবার শিক্ষার্থীদের সংহতি সমাবেশ

    কুয়েট শিক্ষক মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্তের দাবিতে রাবি শিক্ষকদের মানববন্ধন

    চবিতে ইমামকে গণপিটুনির ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন

    ডাকাতির পর রাতভর ২ নারীকে ধর্ষণ, ৫ আসামির দুবার যাবজ্জীবন

    ভাঙ্গুড়ায় রোকেয়া দিবসে চার জয়িতাকে সংবর্ধনা

    ম্যানইউর জার্সিতে ইতিহাস গড়লেন পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত জিদান