Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

পাকিস্তানে নিষিদ্ধ ইসলামি গোষ্ঠী টিএলপির সঙ্গে সংঘর্ষে ৪ পুলিশ নিহত, আহত দুই শতাধিক

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪৯

পাকিস্তানে পুলিশ-টিএলপি সংঘর্ষ। ছবি: এপির সৌজন্যে পাকিস্তানে নিষিদ্ধ ইসলামি গোষ্ঠী তেহরিক-ই-লাব্বাইক পাকিস্তানের (টিএলপি) সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। গতকাল বুধবার ব্লাসফেমি-বিরোধী বিক্ষোভে দেশটির পাঞ্জাব প্রদেশের গুজরানওয়ালা জেলায় সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে। এতে কমপক্ষে চার পুলিশ নিহত ও ২৬৩ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম দ্য ডন এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। 

পাঞ্জাব পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন, টিএলপির সদস্যদের একটি সমাবেশকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের শুরু। তাঁরা রাজধানী ইসলামাবাদের দিকে যাচ্ছিলেন। 

পাঞ্জাব পুলিশের একজন মুখপাত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, টিএলপির কর্মীরা পুলিশের বিরুদ্ধে একে-৪৭, এসএমজি ও পিস্তল ব্যবহার করেছেন। এ কারণেই পুলিশ বাহিনীতে হতাহতের পরিমাণ এত বেশি। 

সাদ রিজভির মুখপাত্র সাজিদ সাইফি দাবি করেছেন, পুলিশের গুলিতে টিএলপির দুই সমর্থকও নিহত হয়েছেন। তবে পুলিশ বলছে, বিক্ষোভকারীদের মধ্যে কেউ নিহত হয়েছেন এমন কোনো সংবাদ তাঁদের কাছে নেই। 

পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, রাজধানীতে টিএলপির সমাবেশ রুখতে প্রয়োজনে আরও কঠোর হবে সরকার। 

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আমরা ধৈর্যের পরিচয় দিয়েছি। কিন্তু ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে যাচ্ছে। যদি রাষ্ট্রের কর্তৃত্বকে চ্যালেঞ্জ করা হয়, তবে কঠিন জবাব দেওয়া হবে।’ 

আলজাজিরার এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, টিএলপি তাদের নেতা সাদ রিজভির মুক্তির জন্য আন্দোলন করছে। সাদ রিজভিকে গত এপ্রিলে গ্রেপ্তার করা হয়। তখন দলটিকেও নিষিদ্ধ করা হয়। টিএলপির দাবি, ফ্রান্সের ম্যাগাজিনে বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশের জন্য ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতকে বহিষ্কার করতে হবে।   

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    মিয়ানমারে ১১ জনকে পুড়িয়ে হত্যা 

    বিপিন রাওয়াতের শেষকৃত্য শুক্রবার

    বাংলাদেশি কিশোরকে বিজিবির কাছে হস্তান্তর করল বিএসএফ

    ওমিক্রনের বিরুদ্ধে টিকার তৃতীয় ডোজ ‘কার্যকরী’, দাবি ফাইজারের

    সাংবাদিকদের সবচেয়ে বড় কারাগার চীন

    ওমিক্রন উদ্বেগজনক হলেও মোকাবিলা সম্ভব

    ঘুমন্ত অবস্থায় এসআইয়ের ‘বিশেষ অঙ্গ’ কেটে দিলেন স্ত্রী

    'টাকা না দিয়ে ষড়যন্ত্র করায় আত্মহত্যার পথ বেছে নিলাম'

    টেকনাফে নবজাতকের পরিত্যক্ত মরদেহ উদ্ধার

    করোনায় আরও একটি মৃত্যুশূন্য দিন

    স্বামী বদলানো যায় কিন্তু প্রতিবেশী না—ভারত সম্পর্কে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী