Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

আগাম শীতের সবজি চাষ

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১৪:১৯

শিবপুরে শীতকালীন সবজির পরিচর্যায় ব্যস্ত কৃষক। ছবি : আজকের পত্রিকা নরসিংদীর শিবপুর উপজেলার কৃষকেরা এখন আগাম শীতকালীন সবজি চাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন। আর কয়েক দিন পরই শুরু হবে শীত। তাই শীতকালীন সবজি চাষের জন্য এখনই চলছে উপযুক্ত সময়। স্থানীয় কৃষকেরা বলছেন, শীতকালীন সবজি আগাম চাষ করলে বাজারে ভালো দাম পাওয়া যায়।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলায় চলতি মৌসুমে ১৪ শ হেক্টর জমিতে শীতকালীন সবজি চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে গিয়ে দেখা যায়, এরই মধ্যে সবজির চারা প্রস্তুত হয়ে গেছে। চলছে জমি তৈরির কাজ ও চারা রোপণ। কোথাও কোথাও বিস্তীর্ণ মাঠজুড়ে শোভা পাচ্ছে সারি সারি শিমগাছ, ফুলকপি, বাঁধাকপি, লাউ, বেগুন, মুলা, করলা, পটোল, পালং ও লালশাকসহ হরেকরকম শীতকালীন সবজির চারা।

স্থানীয় কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, রোপণের ৬০ দিনের মধ্যে বাজারে আসবে ফুলকপি ও বাঁধাকপি। লাউ, ঝিঙ্গা, মুলা বাজারে উঠতে শুরু করেছে। শিম, টমেটো কিছুদিনের মধ্যেই বাজারে উঠবে। বেশির ভাগ কৃষকই আধুনিক পদ্ধতি ব্যবহার করে কীটনাশকমুক্ত সবজি চাষ করছেন। এতে করে সবজির গুণগত মান ভালো থাকে এবং বাজারে চাহিদাও বেশি থাকে।

উপজেলার খড়কমারা গ্রামের কৃষক আমির হোসেন বলেন, সবজির চারা রোপণের আগে জমি তৈরি করে কিছুদিন রাখা হয়। ফলে চারাগুলো রোগবালাই প্রতিরোধের ক্ষমতা সঞ্চয় করে এবং গাছগুলো সবল হয়। এ বছর বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কম হওয়ায় চারা নষ্ট হয়নি। ফলে উৎপাদন খরচ অন্য বছরের চেয়ে অনেকটা কম হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ব্রাহ্মন্দী গ্রামের কৃষক মজিবুর রহমান বলেন, আমি প্রতিবছর চার বিঘা জমিতে আগাম সবজির চাষ করি। তবে এ বছর আর্থিক সংকটের কারণে আমি তিন বিঘা জমিতে ফুলকপি চাষ করেছি। আশা করছি লাভবান হতে পারব।

গ্রামের সবজিচাষি তোফাজ্জল হোসেন জানান, তিনি ফুলকপি, মুলা ও লাউয়ের চারা রোপণ করেছেন। ক্ষেতের নমুনা দেখে ফলন আশানুরূপ ফলন হবে বলে ভাবছেন। এ বছর দুই বিঘা জমিতে সবজি চাষ করেছেন তিনি।

শিবপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোহাম্মদ বিন সাদেক জানান, শীতের সবজি আগাম চাষ করতে পারলে ভালো দাম পাওয়া যায়।

এ কারণে উপজেলার কৃষকেরা প্রত্যেক বছর আগাম বিভিন্ন ধরনের শীতকালীন সবজি চাষ করে থাকেন। কৃষকদের সবজি চাষে উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার সম্পর্কে প্রশিক্ষণ দিয়ে সহায়তা করছেন কৃষি কর্মকর্তারা। প্রাকৃতিক পরিবেশ অনুকূলে থাকলে উৎপাদিত ফসলের ফলন ও দাম বেশ ভালো পাবেন কৃষকেরা।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    বিজ্ঞান মেলায় খুদে শিক্ষার্থীদের যত উদ্ভাবন

    মাভাবিপ্রবিসাসের কমিটি বাতিলের দাবি

    সখীপুরে ৬ জুয়াড়ি গ্রেপ্তার

    টেকনাফে নবজাতকের পরিত্যক্ত মরদেহ উদ্ধার

    করোনায় আরও একটি মৃত্যুশূন্য দিন

    স্বামী বদলানো যায় কিন্তু প্রতিবেশী না—ভারত সম্পর্কে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী    

    দৌলতদিয়া ঘাটে ফেরি পারের অপেক্ষায় যানবাহনের দীর্ঘ সারি

    চাটমোহরে ৪ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান

    প্রিয় বালিশ নিয়েই দেশে ফিরলেন রিজওয়ান