Alexa
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১

সেকশন

 

পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ ঝুঁকির বিষয়ও মাথায় রাখতে হবে: অর্থমন্ত্রী  

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩৩

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ফাইল ছবি পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের সতর্ক করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। এখানে বিনিয়োগ করলে লাভের পাশাপাশি যে ঝুঁকিও রয়েছে, তা মাথায় রাখতে বিনিয়োগকারীদের পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। মন্ত্রী বলছেন, পুঁজিবাজারের সরকারের যে সাপোর্ট দরকার, সেটা দেওয়া হবে।

বুধবার সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে অর্থমন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজার সারা বিশ্বে একইভাবে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। লাভের জন্য আপনি আসবেন, কিন্তু রিস্কের বিষয়টিও আপনার মাথায় রাখতে হবে। পুঁজিবাজারকে সরকার সাপোর্ট দিয়ে যাবে। তবে কেউ যদি অনেক লাভের জন্য কোনো চিন্তাভাবনা করে সেটা তো হবে না। 

অর্থনীতি শক্তিশালী হলে পুঁজিবাজার শক্তিশালী হবে বলে মত দেন অর্থমন্ত্রী। তিনি বলেন, অন্য কোনোকিছু দিয়ে এটিকে ইফেক্ট করার সুযোগ নেই। আমি সব সময় বলি সবাই বুঝেশুনে পুঁজিবাজারে আসবেন। বাজারটিতে দৈনিক লেনদেন হচ্ছে, দৈনিক ওঠানামা করছে। সুতরাং এটা অনেক বেশি সেনসিটিভ। এই জায়গাটিতে আমাদের লক্ষ্য রাখতে হবে। যারা বাজারটির সঙ্গে জড়িত তারা এটি সম্পর্কে বুঝেশুনেই এসেছেন। 

সরকারি ২৬ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার বাজারে আনার উদ্যোগ নিয়ে আরেক প্রশ্নে অর্থমন্ত্রী বলেন, একবার উদ্যোগ নিয়েছিলাম, বিভিন্ন কারণে সেটি হয়নি। বাজারে যখন কোনো ভালো শেয়ার থাকে না তখন একদিকে মার্কেট বেশি চলে যায়। সারা বিশ্বে এটি হয়। সে জন্য এমন সমস্যা থাকলে সরকার বাজেট দিয়ে বাজার স্ট্যাবল রাখে। সে জন্য আমরা উদ্যোগটি নিয়েছিলাম। দেখা গেল যে আমাদের মার্কেটে যে পরিমাণ শেয়ার থাকা দরকার ছিল সেটি আছে। সে জন্য সরকারকে আর সেই কাজ করতে হয়নি। 

জ্বালানির সঙ্গে খাদ্যশস্যের দামও বাড়ছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী। এলএমজি নিয়ে এক প্রশ্নে তিনি বলেন, আমরা যে ধারণা করেছিলাম বর্তমানে মুদ্রাস্ফীতি তার মধ্যেই আছে, ওভার অল বাড়েনি। মুদ্রাস্ফীতি আমরা প্রতিনিয়ত পর্যালোচনা করে আপডেট নেই। এখন পর্যন্ত কোনো সমস্যা হয়নি। তবে জ্বালানির যেভাবে দাম বাড়ছে সেভাবে খাদ্যশস্যের দামও বাড়ছে। 

ডলারের দাম নির্ধারণ করে রাখা হয় না জানিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, এটা ডিমান্ড ও সাপ্লাইয়ের ওপর ডিপেন্ড করে। ডিমান্ড যদি বেশি থাকে আর সাপ্লাই যদি কম থাকে তাহলে ডলারের দাম বাড়বে। এটা স্বাভাবিকভাবেই অ্যাডজাস্ট করে নেয়। অতীত থেকে আমরা যেভাবে করে আসছি, সেভাবেই হয়ে আসছে। ব্যাংকগুলোর কাছে যখন ডলারের পরিমাণ বেশি থাকে তখন বাংলাদেশ ব্যাংক কিছু ডলার কিনতে পারে। অন্য দেশেও এটা করা হয়ে থাকে। অন্যান্য দেশে এটা ফিক্সড করা থাকে, মার্কেট আপগ্রেড করুক বা না করুক ফিক্সড রেটেই নিতে হবে। আমাদের দেশে এমন নয়। 

রাশিয়া থেকে ২টি হেলিকপ্টার কিনবে সরকার

রাশিয়ার একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান ‘জেএসসি রাশিয়ান হেলিকপ্টারের’ কাছ থেকে ৪২৮ কোটি ১২ লাখ ৪৯ হাজার ৩১৬ টাকা ব্যয়ে এমআই-১৭১ এ ২ মডেলের দুইটি হেলিকপ্টার কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। 

কেনা হবে ৯০ হাজার টন সার

চট্টগ্রামের কাফকো, কাতারের মুনতাজাত ও সৌদি আরবের সৌদি বেসিক ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের কাছ থেকে ৫৬৫ কোটি ৫০ লাখ ৩০ হাজার ১৯৫ টাকায় ৯০ হাজার মেট্রিক টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে ক্রয় কমিটি। 

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব সামসুল আরেফিন জানান, বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (বিসিআইসি) কাফকোর কাছ থেকে ১৮৫ কোটি ৮৫ লাখ ১১ হাজার ৬২৫ টাকায়, কাতারের মুনতাজাত থেকে ১৮৯ কোটি ৩৯ লাখ ৭৮ হাজার ৫৭০ টাকায় এবং সৌদি বেসিক ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের কাছ থেকে ১৯০ কোটি ২৫ লাখ ৪০ হাজার টাকায় ৩০ হাজার মেট্রিক টন করে ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার কিনবে। 

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যায়ের অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের নির্মাণকাজ যৌথভাবে ভেঞ্চার দি বিল্ডারস ইঞ্জিনিয়ারস অ্যাসোসিয়েট লিমিটেড, ইলেকট্রো গ্লোবাল, মাহেন্দ্রি বেসিন পাওয়ার লিমিটেড এবং অ্যাডভান্স টেকনোলজি কনসোটিয়াম লিমিটেডকে ১০০ কোটি ৬১ লাখ ১৫ হাজার ১৩৩ টাকায় দেওয়া হয়েছে। 

এদিন অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি দেশের ১১ জেলায় শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার নির্মাণে পণ্য ও পূর্ত কাজ সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে কেনার প্রস্তাব নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে। 

সামসুল আরেফিন জানান, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ ১১টি শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার স্থাপনে পণ্যের ৮টি ও পূর্ত কাজের ৫৪ প্যাকেজের ক্রয় কাজ সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পরিচালিত বাংলাদেশ ডিজেল প্ল্যান্ট লিমিটেডকে দিয়ে বাস্তবায়নের প্রস্তাব নীতিগত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। 

এ ছাড়া রাজশাহী ওয়াসা বাস্তবায়নাধীন রাজশাহী ওয়াসা ভূ-উপরিস্থিত পানি শোধনাগার প্রকল্পের আওতায় পরামর্শক প্রতিষ্ঠান হিসেবে যৌথভাবে বিআরটিসি, বিইউইটি এবং এএমইসি ইন্টারন্যাসনাল পিটিওয়াই এলটিডিকে নিয়োগের নীতিগত প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    দেশে তামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপ বেড়েছে

    ডিএসইতে সাত মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

    বাংলাদেশে বিনিয়োগে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে, জানালেন জাপানের উপমন্ত্রী

    আবারও দেশের শীর্ষ করদাতা হলেন সৈয়দ আবুল হোসেন

    ধুনটে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান হলেন যারা

    দেশে তামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপ বেড়েছে

    ডিএসইতে সাত মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

    চলতি বছরে ঢাকার সড়কে প্রাণ ঝরেছে ১১৯টি

    নরসিংদীতে নির্বাচনী সহিংসতায় আরও একজনের মৃত্যু  

    উত্তরখানে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন ও পুলিশ ক্যাম্প তৈরির নির্দেশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর