Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

প্রেমের টানে চাচির হাত ধরে পালাল কিশোর

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৫৬

গাজীপুর জেলার নামি একটি স্কুলে অষ্টম শ্রেণিতে পড়ে ১৪ বছরের কিশোর অয়ন (ছদ্মনাম)। ওই স্কুল থেকে ট্যালেন্টপুলে বৃত্তিও পেয়েছে সে। বাড়ি কালীগঞ্জ উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের দেওতলা গ্রামে। বাবা সৌদিপ্রবাসী। দুই ভাই এক বোনের মধ্যে অয়নই সবার বড়। সেই অয়ন কুড়ি বছরের চাচির হাত ধরে বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে।

শুরুতে বিষয়টি বুঝতে না পারলেও থানা-পুলিশ ওই কিশোর ও চাচিকে উদ্ধারের পর ঘটনা জানাজানি হয়। এ ঘটনায় দুই পরিবারই বেশ বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়েছে। 

থানা ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ২৩ অক্টোবর বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় কিশোর অয়ন। পরদিন পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় নিখোঁজের সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। জিডির সূত্র ধরে প্রযুক্তি ব্যবহার করে মোবাইল ট্র্যাকিংয়ের মাধ্যমে তাদের রাজধানী ঢাকার নাখালপাড়া থেকে উদ্ধার করা হয়। সেখানে তারা বাসা ভাড়া নেওয়ার চেষ্টা করছিল। 

অয়নের এক স্বজন জানান, ওই নারীর স্বামী গাজীপুরে বিকাশের এজেন্ট। বছরখানেক আগে ফোনে এক অপরিচিত ছেলের সঙ্গে সম্পর্ক করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর চলে যান ওই নারী। সেখানে গিয়ে সেই ছেলেকে না পেয়ে বাড়ি ফিরে আসেন। ওই ঘটনার পর দুই পরিবারের মধ্যস্থতায় আবার সংসার শুরু করেন তাঁরা। কিন্তু বছর না ঘুরতেই কিশোরকে নিয়ে পালিয়ে গেলেন তিনি। 

কিশোর অয়ন জানায়, করোনার সময় প্রতিবেশীর বাড়িতে যেত সে। ওই বাড়ির দম্পতিকে চাচা-চাচি ডাকত। মূলত ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে মোবাইল ফোনে গেম খেলতে যেত সে। মোবাইল ফোনে গেম খেলার জন্য প্রতিদিনই যেত। চাচি বাসায় একা থাকতেন। একদিন চাচিই তাকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। অয়নও রাজি হয়ে যায়। তিন-চার মাস চুটিয়ে প্রেম করে তারা। চাচিকে নিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘুরতেও যায় ওই কিশোর। 

এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘থানায় নিখোঁজের জিডির অনুসন্ধানে গিয়ে তাদের রাজধানী ঢাকার নাখালপাড়া থেকে উদ্ধার করি। প্রাথমিকভাবে তারা স্বীকার করেছে প্রেমের টানে ঘর ছেড়েছে। দুই পক্ষের অভিভাবকের কাছে দুজনকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।’ 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    শিবচরে কুপিয়ে পা বিচ্ছিন্ন করে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১ 

    বন্ধুর সহযোগিতায় এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী চয়ন

    দেশে বহু গণমাধ্যম গড়ে উঠলেও পেশাদারিত্ব নিশ্চিত হয়নি: টিআইবি 

    দুর্গাপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী অধ্যাপক আরজ আলী স্মৃতি রক্ষায় মানববন্ধন

    মেলান্দহে সরিষা ফুলে ছেয়ে গেছে মাঠ

    প্রিয় বালিশ নিয়েই দেশে ফিরলেন রিজওয়ান

    হেডের সেঞ্চুরিতে বড় লিড অস্ট্রেলিয়ার

    শিবচরে কুপিয়ে পা বিচ্ছিন্ন করে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১ 

    খালেদার চিকিৎসা নিয়ে আইন মন্ত্রণালয় থেকে কোনো ইঙ্গিত আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

    আলালকে ক্ষমা চাইতে বললেন কাদের 

    ল্যাবেক্স মিলয়ন স্কলারশিপ