Alexa
বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

ঠোঁট থাক সজীব

আপডেট : ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৩:৩৬

ঠোঁট শুষ্ক হতে শুরু করেছে। তাই ঠোঁটের যত্নে এখন চাই বাড়তি কিছু। মডেল: ফোয়ারা ফারুক। ছবি: রনি বাউল চলছে হেমন্তকাল। ইতিমধ্যে অনেকের ঠোঁট শুষ্ক হতে শুরু করেছে। হাত-পা ও ঠোঁট শুষ্ক হয়ে আসে। ঠোঁটের শুষ্কতা দূর করতে কিছু ঘরোয়া টিপস মেনে চলতে পারেন এ সময়। স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলথ লাইন অবলম্বনে জানাচ্ছেন রিক্তা রিচি। 

ঠোঁট কালচে হওয়ার কারণ
ঠোঁট কালচে হওয়ার অনেক কারণ আছে। গুরুত্বপূর্ণ কারণগুলো হলো–সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির প্রভাব, অতিরিক্ত চা-কফি পান, ধূমপান ও অ্যালকোহল গ্রহণ, পানি কম পান করা, বারবার জিব দিয়ে ঠোঁট ভেজানো। আবার কখনো কখনো লিপস্টিক কিংবা টুথপেস্টের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থেকেও ঠোঁটে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। কালচে ঠোঁট চেহারার সৌন্দর্য ম্লান করে দেয়। 

যেভাবে ঠোঁটের যত্ন নেবেন
লেবু
২০০২ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে, সাইট্রাসজাতীয় ফল ত্বকের মেলানিন দূর করতে সাহায্য করে। প্রতি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ঠোঁটে লেবুর রস লাগাতে পারেন। লেবুর টুকরো নিয়ে ঠোঁটে ধীরে ধীরে ঘষতে পারেন। এতে ঠোঁটের মরা চামড়া দূর হবে। ঠোঁট হবে সতেজ।

মডেল: অদিতি বৈরাগী। ছবি: সৈয়দ মাহামুদুর রহমান লেবু ও চিনি
লেবু ত্বক সুন্দর রাখতে ভূমিকা রাখে। চিনিও তাই। ত্বকের মরা চামড়া দূর করে ত্বককে সজীব রাখতে চিনি কাজ করে। লেবু ও চিনি একসঙ্গে স্ক্র্যাবারের মতো কাজ করে। তাই ঠোঁট সুন্দর রাখতে লেবু ও চিনি দিয়ে ম্যাসাজ করতে পারেন। এ জন্য একটি লেবুর টুকরোর ওপর চিনি লাগিয়ে সেটি দিয়ে ঠোঁট ঘুষুন। পাঁচ-ছয় মিনিট ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। এতে ঠোঁটের শুষ্ক অবস্থা থাকবে না।  

হলুদ
হলুদ মেলানিন কমাতে সাহায্য করে। ঠোঁট সুন্দর রাখতে ১ টেবিল চামচ দুধের সঙ্গে পরিমাণমতো হলুদের গুঁড়ো মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। মিশ্রণটি থেকে সামান্য পরিমাণ হাতের আঙুলে নিয়ে ঠোঁটে লাগিয়ে রাখুন। কয়েক মিনিট রেখে ঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তারপর ভালো মানের ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন। এতে ঠোঁট তার হারিয়ে যাওয়া সৌন্দর্য ফিরে পাবে। 

অ্যালোভেরা
অ্যালোভেরার গুণ অনেক। এটি ত্বক ও চুলের যত্নে ভীষণ ভালো কাজ করে। ত্বকের কালো দাগ দূর করতেও অ্যালোভেরার জুড়ি নেই। ঠোঁটের সৌন্দর্য বাড়াতে অ্যালোভেরার পাতা থেকে রসটুকু বের করে তা ঠোঁটে লাগান। কয়েক মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। ব্যস, ঠোঁটের কালচে দাগ দূর হবে। সেই সঙ্গে ঠোঁট হবে কোমল ও নরম।

গোলাপজল ও মধু
ছয় ফোঁটা মধুর সঙ্গে কয়েক ফোঁটা গোলাপজল মিশিয়ে নিন। এটি প্রতিদিন ঠোঁটে লাগান। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগেও এটি ব্যবহার করতে পারেন। গোলাপজল ও মধুর ব্যবহারে ঠোঁট কোমল থাকবে।

ভালো মানের লিপবাম
ঠোঁট সতেজ রাখতে ভালো মানের লিপবাম ব্যবহার করুন। বাজারে অনেক ধরনের ভ্যাসলিন ও লিপবাম পাওয়া যায়। মান ভালো না হলে সেগুলো ব্যবহারে ঠোঁট কালচে হয়ে যেতে পারে। তাই ভালো মানের ভ্যাসলিন অথবা লিপবাম বেছে নিন। এতে শীতেও কোমল থাকবে ঠোঁট।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ‘অবসর’ নেওয়ার ধারণা আবিষ্কার হলো কবে

    আজকের রাশিফল

    বিশ্বে সবচেয়ে জনপ্রিয় সবজি কোনটি

    ফ্যাশন শিল্প, মাছের চামড়া এবং তিন ফরাসি তরুণের গল্প 

    সুখবর

    স্মরণশক্তি ও মনোযোগ বাড়ায় মেডিটেশন

    চুলের যত্ন কীভাবে নেবেন

    যে কারণে স্টোকস-আর্চারকে দলে রাখেনি রাজস্থান 

    নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের ১১ দফা

    নিরাপদ সড়কের দাবিতে আজও সড়কে নেমেছে শিক্ষার্থীরা

    চিকিৎসক সংকটে পাথরঘাটা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স

    শ্রীবরদীতে গৃহবধূকে গণধর্ষণের অভিযোগে তিনজন গ্রেপ্তার