Alexa
বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

সেই ভাঙা সেতু থেকে পড়ে প্রাণ গেল শিশুর

Tushar Miah
আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:৫৫

সুবর্ণচরের চরজুবিলীর মধ্য বাগ্যা গ্রামের সেতুটি দীর্ঘদিন ধরেই চলাচলের অনুপযোগী ছিল। দুই দিন আগে ঝড়ে একেবারে ভেঙে পড়ে। এই সেতু পার হতে গিয়েই একটি শিশু খালে পড়ে মৃত্যূবরণ করে। ছবি: আজকের পত্রিকা নোয়াখালীর সুবর্ণচরের সেই ভাঙা সেতু থেকে খালে পড়ে জায়েদ হাসান (৪) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় গতকাল রোববার দুপুরে চরজব্বর থানায় অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। নিহত জায়েদ হাসান উপজেলার মধ্যবাগ্যা গ্রামের মো. মাসুদের ছেলে।

এর আগে গত শনিবার সন্ধ্যায় উপজেলার চরজুবলি ইউনিয়নের মধ্য চরবাগ্যা গ্রামে শিশুমৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

সেতুটির দুর্দশা নিয়ে সম্প্রতি আজকের পত্রিকায় প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়।

নিহতের বাবা মো. মাসুদ বলেন, শনিবার বিকেলে জায়েদ বাড়ির পাশেই নানাবাড়ি যায়। পরে আবার নানাবাড়ি থেকে বাড়ি ফেরার পথে সড়কে থাকা ভেঙে যাওয়া সেতু দিয়ে খাল পার হতে গিয়ে খালে পড়ে সে পানিতে ডুবে যায়। পরে অনেক খোঁজাখুঁজির পর রাত সাড়ে ৯টার দিকে বাড়ির পাশের খাল থেকে তার ভাসমান মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মো. খলিল উল্যাহ বলেন, ‘নানাবাড়ি থেকে ফেরার পথে ভেঙে পড়া সেতু থেকে পা পিছলে পড়ে শিশুটি মারা গেছে। সেতুটি নিয়ে গত ৭ অক্টোবর আজকের পত্রিকায় ‘ভাঙা সেতুতে ঝুঁকিপূর্ণ চলাচল’ শিরোনামে খবর প্রকাশের পর আমি স্থানীয় চেয়ারম্যান, উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউএনওসহ সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করেছি। তাঁরা ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন। এর মধ্যে শিশুটি পরিবারের সদস্যদের অগোচরে একা সেতু পার হতে গিয়ে খালে পড়ে মারা গেল।’

চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জিয়াউল হক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

সুবর্ণচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) চৈতী সর্ববিদ্যা বলেন, ‘সেতুটি উপজেলা প্রকৌশল দপ্তরের। উপজেলা প্রকৌশলীকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তিনি সেতুটির কাজের ধরন অনুযায়ী প্রস্তাব তৈরি করে পাঠাবেন। উপজেলার সাধ্যের মধ্যে থাকলে সে অনুযায়ী আমরা ব্যবস্থা নেব। যদি এতেও কোনো জটিলতা থাকে, তাহলে জেলা পর্যায়ে কথা বলে সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। অতি গুরুত্বপূর্ণ সেতুটির ব্যাপারে প্রয়োজনে উপজেলা চেয়ারম্যান ও এমপি সাহেবের সঙ্গে কথা বলে ব্যবস্থা নেব।’

সুবর্ণচর উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী মো. শাহজালাল বলেন, সেতুটির ব্যাপারে আগে থেকেই পদক্ষেপ নেওয়া আছে। সেতুটি স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতাভুক্ত নয়। গত ডিসেম্বরে সেতুটি সার্ভে করে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের আওতাভুক্ত করতে অনুমোদনের জন্য পাঠানো হয়েছে। আওতাভুক্ত হলে সেতুটি বাস্তবায়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।’

সুবর্ণচর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক এ এইচ এম খায়রুল আনম সেলিম বলেন, ‘ভাঙা কাঠের সেতু থেকে পড়ে বাচ্চার মৃত্যুর বিষয়টি আমি শুনিনি। তবে এ বিষয়ে খবর নিচ্ছি। জনগণের সুবিধার্থে ওই স্থানে স্থায়ীভাবে সেতু নির্মাণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    জাল সনদে ১০ বছর ধরে শিক্ষকতার অভিযোগ

    বৃষ্টিতে সরিষার ক্ষতির শঙ্কা

    রোল নম্বর লেখার পর পরীক্ষা স্থগিত

    সুন্দরগঞ্জে সাবেক ইউপি সদস্যের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

    মুরাদকে যারা সহযোগিতা করেছে তাদেরও বিচার চাইলেন নজরুল ইসলাম খান

    মিরপুরে ই-কারখানার যাত্রা শুরু

    মুরাদ হাসানের পদত্যাগ যথেষ্ট নয়: মঈন খান

    ভারতে ফের আফস্পা বাতিলের দাবি

    দুদকের মামলায় মানিকগঞ্জ আওয়ামী লীগ নেতা মট্টুসহ দুজন গ্রেপ্তার