Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

নবরূপে এল আলতাফ শাহনেওয়াজের ‘আলাদিনের গ্রামে’

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৬:৪৯

কবি আলতাফ শাহনেওয়াজের চতুর্দশপদী কাব্যগ্রন্থ ‘আলাদিনের গ্রামে’-এর মোড়ক উন্মোচন হয়েছে। ছবি: আজকের পত্রিকা কবি আলতাফ শাহনেওয়াজের চতুর্দশপদী কাব্যগ্রন্থ ‘আলাদিনের গ্রামে’র মোড়ক উন্মোচন হয়েছে। গতকাল শনিবার রাজধানীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের বাতিঘরে এ অনুষ্ঠান হয়। 

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে বইটি নিয়ে আলোচনা করেন কবি সাজ্জাদ শরিফ, সুমন রহমান, শামীম রেজা, মোহাম্মদ আজম ও মাহবুব মোর্শেদ। 

অনুষ্ঠানের আয়োজকেরা জানান, বইটি ২০১৬ সালে চৈতন্য প্রকাশনী থেকে প্রকাশ হয়েছিল। পরে দুটি সংস্করণ পাঠকমহলে সমাদৃত হয়। এবার নবরূপে বইটি প্রকাশ করেছে আদর্শ প্রকাশনী। 

অনুষ্ঠানে কবি সাজ্জাদ শরিফ বলেন, ‘আরব্য রজনী থেকে বইটির নাম নিলেও বইটির কবিতার মধ্যে বাঙালি আলাদিনের স্বাদ আছে। বাংলার জমিনের মতো ছড়ানো কবিতা আছে। কবিতায় একটি চিত্রকল্প তৈরি করে তার দিকে যেমন এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা আছে, তেমনি আছে চাঞ্চল্যকর আবেদন।’ 

‘বইটির কবিতায় এক নতুন ধারার শান্ত ভাষা আছে’ বলে মন্তব্য করেন কবি শামীম রেজা। আর কথাসাহিত্যিক মাহবুব মোর্শেদ বলেন, ``বইটির পুনর্মুদ্রণে বিস্মিত হয়েছি। আমাদের এখানে কবিতার পাঠক নেই এমন একটি ধারণা প্রচলিত আছে। অথচ ‘আলাদিনের গ্রামে’ বইটির দুটি সংস্করণ শেষ হওয়ার পর এখন আবার নবরূপে প্রকাশিত হয়েছে। এটা আনন্দের খবর।'' 

মোহাম্মদ আজম বলেন, সাজানো-গোছানো, মার্জিত ও অভিজাত কবিতাগুলোতে প্রাত্যহিক জীবনের বাস্তবতা রয়েছে। বিমূর্ত কবিতাগুলোর মধ্যেও একটা লিপ্ততার বিষয় আছে। বিশেষ করে বিমূর্ততার সঙ্গে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে মূর্ততাকেও। 

সুমন রহমান বলেন, নতুন ধাঁচের কবিতার সঙ্গে আদি বা পুরোনো ধাচের কবিতা কতটা যুদ্ধ করছে, তার একটা প্রতিফলন এই কবির কবিতায় দেখতে পাই। অন্য তরুণেরাও সেটির জন্য এগিয়ে আসবেন বলে প্রত্যাশা করি। 

আলোচনার শেষ অংশে বইটি নিয়ে কথা বলেন এর লেখক আলতাফ শাহনেওয়াজ। তিনি বলেন, ‘কবিতা জীবনেরই অংশ। ২০১২ বা ২০১৩ সালের দিকে এটি লেখা। জীবনের বিমূর্ত সময়ে এই বইয়ের কবিতাগুলো আসে। আমার শুধু একটা জিনিসই মনে হচ্ছিল—এই নগর, এই শহর মানুষের যেটা কেড়ে নেয়, সেটা হচ্ছে তার মুখের ভাষা। আর এই জায়গাটি থেকে আমি আলাদিনকে দেখতে চেয়েছি।’ 

আয়োজনে বইটির প্রকাশক মাহবুব রহমান বলেন, ‘আমরা গল্প-কবিতায় ইনভেস্ট করতে চাই। কিন্তু ফিকশনের দিক থেকে যে মান আমরা প্রত্যাশা করি, সেটা পাই না। পাণ্ডুলিপি পাই না। তবুও আমরা আমাদের দিক থেকে চেষ্টা করে যাচ্ছি। একজন-দুজনের পক্ষে সবকিছু সম্ভব না। তরুণদের এ বিষয়ে আরও এগিয়ে আসা প্রয়োজন।’ 

মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে কাব্যগ্রন্থটি থেকে কবিতা পাঠ করা হয়। ছবি: আজকের পত্রিকা আলাপচারিতার পাশাপাশি আয়োজনে ছিল ‘আলাদিনের গ্রামে’ থেকে পাঠ ও গান। এ সময় গান পরিবেশন করেন ডড়িস হেলালী ও ভাষা। কবিতা পাঠ করেন বিশিষ্ট অনুবাদক ও সাহিত্যবোদ্ধা জাভেদ হুসেন। 

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাতিঘরের স্বত্বাধিকারী দীপঙ্কর দাশ, কবি জুয়েল মাজহারসহ বিশিষ্টজনেরা। তাঁরা সবাই কবি আলতাফ শাহনেওয়াজকে শুভেচ্ছা জানান। 

নবরূপে ‘আলাদিনের গ্রামে’ প্রকাশ সম্পর্কে কবি আলতাফ শাহনেওয়াজ আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘কবিতা তো আসলে একটা আদর, একটা যত্ন দাবি করে। আমার কাছে মনে হয়, লেখ্যরূপের পাশাপাশি একটা দৃশ্যরূপও থাকে কবিতার। এ কারণে এবার কবিতাগুলো অলংকৃত করে পাঠকের সামনে হাজির করার একটা চেষ্টা করা হয়েছে। আগের প্রকাশে এমনটা ছিল না। পাঠকের চাহিদার কথা মাথায় রেখে শুধু সংস্করণ না করে তাই একেবারে নবরূপে হাজির করা হলো বইটি।’ 

আদর্শ প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত ‘আলাদিনের গ্রামে’ কাব্যগ্রন্থটির প্রচ্ছদ করেছেন সব্যসাচী মিস্ত্রী। বইটির দাম ২৪০ টাকা। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    দৌলতদিয়া ঘাটে ফেরি পারের অপেক্ষায় যানবাহনের দীর্ঘ সারি

    চাটমোহরে ৪ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান

    শিবচরে কুপিয়ে পা বিচ্ছিন্ন করে হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১ 

    বন্ধুর সহযোগিতায় এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেন দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী চয়ন

    দেশে বহু গণমাধ্যম গড়ে উঠলেও পেশাদারত্ব নিশ্চিত হয়নি: টিআইবি 

    টেকনাফে নবজাতকের পরিত্যক্ত মরদেহ উদ্ধার

    করোনায় আরও একটি মৃত্যুশূন্য দিন

    স্বামী বদলানো যায় কিন্তু প্রতিবেশী না—ভারত সম্পর্কে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী    

    দৌলতদিয়া ঘাটে ফেরি পারের অপেক্ষায় যানবাহনের দীর্ঘ সারি

    চাটমোহরে ৪ জয়িতাকে সম্মাননা প্রদান

    প্রিয় বালিশ নিয়েই দেশে ফিরলেন রিজওয়ান