Alexa
বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১

সেকশন

 

ক্লাস শুরুর প্রথম দিনেই মধুর ক্যান্টিনে মুখোমুখি ছাত্রলীগ-ছাত্রদল

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪১

মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদল-ছাত্রলীগ। ছবি: সংগৃহীত করোনাভাইরাসের কারণে দীর্ঘ দেড় বছর বন্ধ থাকার পর আজ রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে ক্লাস শুরু হয়েছে। সশরীরে ক্লাস শুরুর প্রথম দিনেই বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছেন ছাত্রলীগ ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

এ সময় উভয় পক্ষ মুহুর্মুহু স্লোগান দিতে থাকে। এতে ক্যাম্পাসে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রদলের একটি অংশ ঢুকতে পারলেও অপর একটি অংশ ঢুকতে পারেনি। এ সময় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা '৭১-এর হাতিয়ার, গর্জে উঠুক আরেকবার', 'সন্ত্রাসীদের আস্তানা, বাংলাদেশে হবে না' স্লোগান দিতে থাকেন। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ৯টা থেকে বিভিন্ন হল থেকে মিছিল নিয়ে মধুর ক্যান্টিনে আসতে শুরু করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে সেখানে জড়ো হয়ে স্লোগান দিতে থাকেন। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মধুর ক্যান্টিনে প্রবেশ করেন ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নেতাকর্মীরা। এ সময় তাঁরাও স্লোগান দিতে শুরু করেন। দুই পক্ষের স্লোগান ও পাল্টা স্লোগানে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে পুরো এলাকায়। তবে বেলা ১১টা নাগাদ দুই সংগঠনেরই নেতাকর্মীরা মধুর ক্যান্টিন ছেড়ে গেলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। 

এর আগে বেলা ১১টার দিকে মধুর ক্যান্টিন থেকে বেরিয়ে ক্যাম্পাসে মিছিল বের করে ছাত্রদল। সংগঠনটির নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে টিএসসিতে চলে যান। সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন বক্তব্য দেন। 

ছাত্রদলের সভাপতি বলেন, `আমরা এখন থেকে নিয়মিত মধুর ক্যান্টিনে বসব। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে অনুরোধ করব ক্যাম্পাসে শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য। এ ক্ষেত্রে ছাত্রদল বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সব ধরনের সহযোগিতা করতে প্রস্তুত।' 

মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসেনসহ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক বরিকুল ইসলাম বাঁধন, সাহিত্য সম্পাদক আসিফ তালুকদার এবং বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির নেতারা।

এ ব্যাপারে সাদ্দাম হোসেন বলেন, ক্যাম্পাসে সব ছাত্র সংগঠনের সহাবস্থান আমরা সব সময় প্রত্যাশা করি। গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় থাকুক এটাই আমাদের চাওয়া। তবে কেউ যদি ক্যাম্পাসে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে চায় এবং জামায়াত-শিবিরের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করতে চায়, তাহলে সাধারণ শিক্ষার্থীরা তা রুখে দেবে।

ঘটনার সময় ছাত্রদলের নেতাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির আহ্বায়ক রাকিবুল ইসলাম রাকিব, সদস্যসচিব আমান উল্লাহ আমানসহ তিন শতাধিক নেতাকর্মী। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে রিজভীর ‘শেষ কথা’ 

    স্বামী বদলানো যায় কিন্তু প্রতিবেশী না—ভারত সম্পর্কে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী    

    খালেদার চিকিৎসা নিয়ে আইন মন্ত্রণালয় থেকে কোনো ইঙ্গিত আসেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

    আলালকে ক্ষমা চাইতে বললেন কাদের 

    খালেদা জিয়ার প্রতি প্রধানমন্ত্রী যথেষ্ট সহানুভূতি দেখিয়েছেন: তথ্যমন্ত্রী 

    ‘আলালকে যেখানে পাওয়া যাবে সেখানে গণধোলাই দেওয়া হবে’

    কড়াকড়িতেও ক্যাটরিনা- ভিকির বিয়ের ছবি ভাইরাল

    প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে রিজভীর ‘শেষ কথা’ 

    ওমিক্রন উদ্বেগজনক হলেও মোকাবিলা সম্ভব

    ঘুমন্ত অবস্থায় এসআইয়ের ‘বিশেষ অঙ্গ’ কেটে দিলেন স্ত্রী

    'টাকা না দিয়ে ষড়যন্ত্র করায় আত্মহত্যার পথ বেছে নিলাম'

    টেকনাফে নবজাতকের পরিত্যক্ত মরদেহ উদ্ধার