Alexa
সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১

সেকশন

 

লক্ষ্মীপুরে দুই মামলায় আসামি ৩০০

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১২:২১

লক্ষ্মীপুরের রামগতি ও রামগঞ্জে মন্দিরে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় পৃথক দুটি মামলায় প্রায় ৩০০ জনকে আসামি করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে থানায় মামলা দুটি করা হয়।

রামগতির চরসীতা শ্রী-শ্রী ঠাকুরাঙ্গন মন্দিরে হামলার ঘটনায় পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. ইছমাইল হোসেন এবং রামগঞ্জের সুন্দরা রাজেন্দ্রকুরী বাড়ির রাধা গোবিন্দ গৌর নিতাই মন্দিরে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় মামলার বাদী হয়েছেন মন্দিরের সভাপতি উত্তম ঘোষাল। রামগতি মন্দিরে হামলার ঘটনায় ২৫০ ও রামগঞ্জে ৪০ জনসহ দুটি মামলায় ২৯০ জনকে আসামি করা হয়। তবে এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

রামগঞ্জ থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন এবং রামগতি থানার ওসি সোলাইমান উদ্দিন মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দুটি মামলায় ৩০০ জন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তিকে আসামি করা হয়েছে। এসব ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ। এ বিষয়ে জড়িতদের ছাড় দেওয়া হবে না।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, কুমিল্লায় পবিত্র কোরআন শরিফ অবমাননার ঘটনার জের ধরে গত বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে মাস্ক পরা বিপুলসংখ্যক মানুষ রামগতি উপজেলার জমিদারহাটের শ্রী-শ্রী ঠাকুরাঙ্গন মন্দিরে হামলা চালায়। এ সময় মন্দিরের ভেতরের বাতিগুলো ভেঙে ফেলা হয়। পরে মন্দিরে ভাঙচুর চালানো হয়।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৪৬ রাউন্ড শটগানের গুলি ও রাবার বুলেট ছোড়ে পুলিশ। ইটপাটকেলের আঘাতে রামগতি থানা-পুলিশের এসআই আবদুর রাজ্জাক, ইকবাল হোসেন, কনস্টেবল অমর কান্তি চাকমা, মায়া কুমার চাকমা ও আজম খান আহত হন।

একপর্যায়ে মন্দিরের বাইরে একটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয় হামলাকারীরা। একই সময় রামগঞ্জ উপজেলার ইছাপুরের সুন্দরা এলাকায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের ব্যক্তিগত উপাসনালয়ে হামলা ও ভাঙচুর করা হয়।

খবর পেয়ে এসব স্থান পরিদর্শন করেন লক্ষ্মীপুর-১ আসনের সাংসদ ড. আনোয়ার খান, লক্ষ্মীপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) আনোয়ার হোসাইন আকন্দ, পুলিশ সুপার (এসপি) ড. এইচএম কামরুজ্জামান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, রামগতি পৌরসভার মেয়র এম মেজবাহ উদ্দিন মেজু এবং রামগতি থানার ওসি মোহাম্মদ সোলাইমান ও রামগঞ্জ থানার ওসি আনোয়ার হোসেন।

এ সময় জেলা প্রশাসক মো. আনোয়ার হোছাইন আকন্দ এবং পুলিশ সুপার ড. এএইচএম কামরুজ্জামান বলেন, ‘কেউ গুজবে কান দেবেন না। যারা এসব অপকর্মের সঙ্গে জড়িত এবং সমাজে অশান্তি সৃষ্টি করে অরাজকতা সৃষ্টি করতে চায়, তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে।’

রামগঞ্জের সুন্দরা রাজেন্দ্রকুরী বাড়ির রাধা গোবিন্দ গৌর নিতাই মন্দিরের সভাপতি উত্তম ঘোষাল। তিনি জানান, হঠাৎ তাঁদের পূজামণ্ডপে হামলা-ভাঙচুর করা হয়। এ ঘটনায় এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান তিনি।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    রসায়নের মূল হলো সমীকরণ

    কোনো বাধ্যতামূলক প্রশ্ন থাকবে না

    পাঁচটি অধ্যায় থেকে প্রশ্ন হবে

    সময়টা কাজে লাগাতে হবে

    সময়ের দিকে লক্ষ রাখবে

    তোমরাই সফল হবে

    ধুনটে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান হলেন যারা

    দেশে তামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপ বেড়েছে

    ডিএসইতে সাত মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন লেনদেন

    চলতি বছরে ঢাকার সড়কে প্রাণ ঝরেছে ১১৯টি

    নরসিংদীতে নির্বাচনী সহিংসতায় আরও একজনের মৃত্যু  

    উত্তরখানে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন ও পুলিশ ক্যাম্প তৈরির নির্দেশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর