মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

উন্মাদনার ‘স্কুইড গেম’ শুটিংয়ের চাপে ৬টি দাঁত হারিয়েছেন নির্মাতা

আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩৫

খেলাটা শিশুদের। কিন্তু জিতলে রাতারাতি মিলিয়নেয়ার বনে যাওয়ার সুযোগ। ছবি: আইএমডিবির সৌজন্যে ওটিটিতে সর্বকালের রেকর্ড গড়ার পথে কোরীয় সিরিজ ‘স্কুইড গেম’। হুলুস্থুল ফেলে দিয়েছে নেট দুনিয়ায়। প্রচার শুরুর এক মাস না পেরোতেই নেটফ্লিক্সের এযাবৎকালের সেরা সিরিজের তকমা জুটিয়েছে স্কুইড গেম। 

গত ১২ অক্টোবর রাতে এক টুইটে নেটফ্লিক্স জানায়, ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে স্ট্রিমিং শুরু হয় ‘স্কুইড গেম’-এর। এরই মধ্যে সবচেয়ে বেশিবার দেখা হয়েছে এ সিরিজ-১১ কোটি ১০ লাখ মানুষ দেখেছে এটি। মাত্র ১০ দিনের মাথায় ৯০টি দেশে সিরিজ র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠে এসেছে ‘স্কুইড গেম’। এর আগে সবচেয়ে বেশিবার দেখার রেকর্ডটি ছিল ব্রিটিশ রোমান্স সিরিজ ‘ব্রিজারটন’-এর দখলে। সিরিজটি প্রচার হওয়ার ২৮ দিনের মধ্যে ৮ কোটি ২০ লাখ মানুষ দেখেছিল। 

কিন্তু কেন এই সিরিজ নিয়ে এত মাতামাতি? খুবই আলাদা ও মৌলিক গল্প নিয়ে যে এটি নির্মিত এমনটা হয়তো নয়। কিন্তু রশি টানাটানির মতো শিশুদের খেলা, লালবাতি, সবুজ বাতি এমন কিছু সাধারণ বিষয় দর্শকের সামনে নতুন অর্থ নিয়ে হাজির হয়েছে। অত্যন্ত জীবনঘনিষ্ঠ এসব উপাদানই মানুষকে এই সিরিজ এত আকর্ষণ করছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। 

মূলত আধুনিক মানুষের জীবনযাপনের জটিলতাকেই রূপক আকারে এনেছেন নির্মাতা। জীবনযুদ্ধে পরাজিত, সমস্যাগ্রস্ত ও হতাশ কিছু মানুষের গল্প এই থ্রিলার। ঋণে জর্জরিত ৪৫৬ জন প্রতিযোগী বিশেষ একটা খেলায় অংশ নেন। খেলায় জিতলে বিজয়ী পাবেন ৩৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আর হারলে মৃত্যু। সংক্ষেপে এটিই স্কুইড গেমের গল্প। 

এই সিরিজের নির্মাতা হুয়াং দং হাইয়ুক। এই সিরিজ নাকি তাঁর শৈশবেরই গল্প। অর্থাৎ নির্মাতার একেবারেই ব্যক্তিগত গল্প এই স্কুইড গেম। সম্প্রতি তিনি মার্কিন সম্প্রচার মাধ্যম সিএনএনকে বলেন, আমরা সবাই-ই এই সাধারণ ও শিশুসুলভ খেলাগুলো খেলেছি। 

হুয়াং নিজেও ছোটবেলায় ‘স্কুইড গেম’ নামে একটি খেলা খেলেছেন। এটি একটি দলবদ্ধ খেলা। খেলার নিয়ম হলো-একটি ঝাপসা স্কুইড আকৃতির এলাকার ভেতর দিয়ে হামলাকারী বেরিয়ে যেতে চায়। কিন্তু রক্ষণভাগের খেলোয়াড়েরা তাদের বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে। হুয়াং বলেন, এটা শরীর দিয়ে খেলতে হয়। খেলতে বেশ শক্তি লাগে। খেলার সময় কেউ না কেউ জখম হতোই, কাপড় ছিঁড়ে যেত। কান্নাকাটি অবস্থা হয়ে যেত। সাধারণত আমাদের দিনের শেষ খেলা ছিল এটি।

যখন বড় হলাম তখন ভাবলাম, ছোটবেলার সেসব খেলা আমরা যদি আবার খেলতে শুরু করি তাহলে কেমন হয়? এমন ভাবনা থেকেই জন্ম নিল স্কুইড গেম সিরিজ। যোগ করেন নির্মাতা। 

স্কুইড গেমের নির্মাতা হুয়াং দং হাইয়ুক। ছবি:  সংগৃহীত নির্মাতা হুয়াং তাঁর নিজের প্রথম জীবনের অর্থনৈতিক সংকট ও সংগ্রাম এবং দক্ষিণ কোরিয়ার শ্রেণি বৈষম্য নিয়ে সাজিয়েছেন স্কুইড গেম-এর গল্প। চিত্রনাট্যটি লেখা হয়েছিল ২০০৮ সালে। কিন্তু হুয়াং কোনো প্রযোজক পাচ্ছিলেন না। অবশেষে ২০১৯ সালের দিকে নেটফ্লিক্স এটি নিয়ে সিরিজ করতে রাজি হয়। মূলত যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে প্রজেক্ট সম্প্রসারণ উদ্যোগের অংশ হিসেবেই তারা হুয়াংয়ের গল্পে আগ্রহ দেখায়। তারাও ভাবেনি যে এই অতি সাধারণ ও অতিরঞ্জিত গল্পটি এভাবে মানুষকে নাড়া দেবে। 

হুয়াংয়ে ব্যাখ্যায়, এই গল্পের মধ্যে আজকালকের ‘চরম প্রতিযোগিতামূলক সমাজ’-এর চিত্র উঠে এসেছে। এই গল্পটা মূলত ব্যর্থ মানুষদের। যারা দৈনন্দিন জীবনে সব সময় চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে রীতিমতো যুদ্ধ করেন এবং এরপরও বারবার পিছিয়েই থাকেন। আর যারা জিতে যান তাঁরা উঠে যান সমাজের ওপরের স্তরে। 

সেই সঙ্গে এটা একটা ব্যক্তিগত গল্পও বটে। সিরিজের প্রধান দুই চরিত্র সেওং গি হুন এবং চো সাং উ। নির্মাতা হুয়াংয়ের শৈশবের দুই বন্ধুর নামও এমন। তিনি বলেছেন, এই দুই চরিত্র হলো আমারই ভেতরের দুই মানুষ। 

হুয়াং বলেন, এরা দুজন আমার ভেতরের দুই আলাদা দিক। যেমন গি হুনের মতোই আমাকে বড় করেছেন একজন সিঙ্গেল মাদার। সাংমুন দংয়ে খুবই অর্থকষ্টের মধ্যে আমার বেড়ে ওঠা। একই সময় সাং উ-এর মতো আমি সিউল ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে পড়েছি এবং প্রতিবেশীরা আমার খুব প্রশংসা করতেন। আমার প্রতি তাঁদের খুবই উচ্চ ধারণা ছিল। 

এই সিরিজটি নির্মাণ ছিল হুয়াংয়ের জীবনের সবচেয়ে উত্তেজনা পূর্ণ এবং চরম এক অভিজ্ঞতা। প্রচণ্ড মানসিক চাপের কারণে শুটিংয়ের সময় ছয়টি দাঁত হারিয়েছেন হুয়াং। এরপরও দ্বিতীয় সিজন নির্মাণের পরিকল্পনা ছাড়ছেন না তিনি। 

দ্বিতীয় সিজন নির্মাণের গুজব সম্পর্কে হুয়াং বলেন, একটা সিরিজ একা লেখা, প্রযোজনা করা এবং নির্দেশনা দেওয়ার সোজা কথা না, অনেক বড় কাজ। আমি যখনই দ্বিতীয় সিজন করার কথা ভাবি সত্যিই খুব চিন্তায় পড়ে যাই। এই মুহূর্তেই কোনো কিছুই নিশ্চিত নয়। তবে অনেকেই জানতে আগ্রহী যে, আমি সত্যি সত্যি এটা নিয়ে সিরিয়াসলি ভাবছি। 

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    জনের মুখোমুখি আফসানা মিমি

    মানিকের তিন ছবিতে সাইমন

    ওয়েব সিরিজ দিয়ে শিলাজিতের বলিউডে অভিষেক

    ‘বিগ বস’ এর ঘরে প্রেমের হাওয়া

    আসছে ইমন- আইরিনের ‘কাগজ’

    ‘মানুষ আমাকে কতটা ভালোবাসে, কাছ থেকে অনুভব করতে পারছি’

    এই অসুরকে বধ করতে হবে: মির্জা ফখরুল

    ঢাবিতে সাম্প্রদায়িক হামলার বিরুদ্ধে মশাল মিছিল 

    মহেশখালীতে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

    খেয়াঘাটে দুই বোনকে শ্লীলতাহানি ও মারধরের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

    পূজামণ্ডপ সংশ্লিষ্ট সহিংসতায় গ্রেপ্তার ৪৫০, মামলা ৭১

    সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন শাবকের জন্ম