মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

প্রার্থিতা নিয়ে বেকায়দায় স্থানীয় বিএনপি

আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০২১, ১০:০৮

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না হলেও বিয়ানীবাজার উপজেলায় সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থীরা মাঠে নেমে পড়েছেন। উঠান বৈঠক, পোস্টার টাঙানোসহ বিভিন্নভাবে তাঁরা নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার জানান দিচ্ছেন।

নভেম্বর মাসের শেষ সপ্তাহে বিয়ানীবাজার উপজেলার ১০ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে পারে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

এ নির্বাচন ঘিরে সিদ্ধান্তহীনতায় ভুগছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) নেতারা। দল বর্তমান সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার ঘোষণায় স্থানীয় প্রার্থীরা অনেকটা বেকায়দায় পড়েছেন। তবে তাঁদের অনেকে ভিন্ন প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে অনেক নেতা জানিয়েছেন।

গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উপজেলার ১০ ইউনিয়নের মধ্যে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে আলীনগর ও কুড়ারবাজার ইউনিয়নে দুই প্রার্থী নির্বাচিত হন। আর স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েও নির্বাচিত হন তিলপাড়া ও মোল্লাপুর ইউনিয়নের দুজন। অন্য ইউনিয়নগুলোতে ধানের শীষের প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ছিলেন না। এসব বিষয় বিবেচনা করে এবং সরকারি দলের নির্বাচন কৌশল মাথায় রেখে সবগুলো ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী দেওয়া হবে। তবে এ ক্ষেত্রেও দলের স্বার্থ দেখা হবে বলে জানান একাধিক নেতা।

আলীনগর ইউনিয়নে মামুনুর রশিদ ও কুড়ারবাজার ইউনিয়নে এএফএম আবু তাহের বর্তমান চেয়ারম্যান। তাঁরা আবারও নির্বাচন করবেন, এটি প্রায় নিশ্চিত। তিলপাড়া ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান দলের মনোনয়ন চাইলে দেওয়া হবে।

চারখাইয়ে বিএনপি থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী অহিদ আহমদ তালুকদার, জামায়াত থেকে মিলাদ আহমদ চৌধুরী, শেওলায় আখতার হোসেন খান জাহেদ একক প্রার্থী হবেন। দুবাগ ইউনিয়নে এখনো কারও নাম শোনা যায়নি। তবে জামায়াত থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়তে পারেন মাহতাব আহমদ আর ফুলতলী সমর্থিত মাওলানা কমর উদ্দিন চৌধুরী। কুড়ারবাজার ইউনিয়নে আবু তাহের একক প্রার্থী হিসেবে এবারও নির্বাচন করবেন। মুড়িয়ায় স্বতন্ত্র থেকে প্রতিদ্বন্ধিতা করতে পারেন বর্তমান চেয়ারম্যান আবুল খায়ের অথবা ফরিদ আল মামুন। এই ইউনয়িনে বিএনপি সমর্থক কোনো প্রার্থী নেই। মাথিউরায় কছির আলী আব্দুর রব একক প্রার্থী হিসেবে স্বতন্ত্র নির্বাচন করবেন। তিলপাড়ায় বর্তমান চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান ও সাইফুল আলম খায়রুল নির্বাচন করতে আগ্রহী।

উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি নজমুল হোসেন পুতুল বলেন, ‘বিএনপি রাজনৈতিক দল। কেন্দ্র ও জেলার দায়িত্বশীলদের নির্দেশনা মেনে প্রার্থী নির্ধারণ করা হবে।’

উপজেলা বিএনপির আহবায়ক নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘বিএনপি দলের স্বার্থ রক্ষা করেই আগামী দিনের সিদ্ধান্ত নেবে। দলকে শক্তিশালী ও সুসংহত করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করবে বিএনপি। ভিন্ন কৌশল নিয়েই তৃণমূল বিএনপিকে শক্তিশালী করতে হবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক পুকুরে

    টাঙ্গাইলে অপরাধ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

    সখীপুরে নিত্যসঙ্গী যানজট

    এই অসুরকে বধ করতে হবে: মির্জা ফখরুল

    ঢাবিতে সাম্প্রদায়িক হামলার বিরুদ্ধে মশাল মিছিল 

    মহেশখালীতে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

    খেয়াঘাটে দুই বোনকে শ্লীলতাহানি ও মারধরের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

    পূজামণ্ডপ সংশ্লিষ্ট সহিংসতায় গ্রেপ্তার ৪৫০, মামলা ৭১

    সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন শাবকের জন্ম