মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

সিঙ্গাইরে খাল ভরাট, কৃষি জমিতে জলাবদ্ধতা

আপডেট : ১৪ অক্টোবর ২০২১, ১৫:১১

সিঙ্গাইরে খাল ভরাট করে নির্মিত দোকান। ছবি: আজকের পত্রিকা মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরের একটি সরকারি খাল ভরাট করে দোকান নির্মাণ করায় শত শত বিঘা কৃষি জমিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। উপজেলার জামির্ত্তা ইউনিয়নের চাপড়াইল গ্রামের ওই খালটি ভরাটের কারণে দীর্ঘ দিন ধরে দুই গ্রামের কৃষকেরা চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। এ সমস্যা সমাধানে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন দুই গ্রামের কয়েক শ কৃষক।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ধলেশ্বরী নদীর একটি শাখা খাল জামির্ত্তা ইউনিয়নের চাপড়াইল ও জয়মন্টপ ইউনিয়নের খান বানিয়াড়া গ্রামের মধ্য দিয়ে বয়ে গেছে। চাপড়াইল গ্রামে ওই খালের একটি অংশ ভরাট করে দোকান নির্মাণ ও খান বানিয়াড়া গ্রামের অংশ ভরাট করে কলাবাগান করা হয়েছে। এতে খান বানিয়াড়া ও বাটি গ্রামের শত শত বিঘা কৃষি জমিতে বর্ষার পানি নিষ্কাশনে ব্যাঘাত ঘটছে। পানি আটকা থাকায় বর্ষার পরবর্তী কয়েক মাসেও চাষাবাদ করা যাচ্ছে না ওই কৃষি জমিগুলো।

গতকাল বুধবার সরেজমিনে দেখা যায়, খালটির চাপড়াইল গ্রামের একটি অংশ ভরাট করে ওই গ্রামের আবু বক্কর মুদি দোকান করেছেন। পাশেই আরও দুইটি পরিত্যক্ত দোকান রয়েছে। চাপড়াইল গ্রামের পাশে খান বানিয়াড়া অংশেও খালটি ভরাট করে কলাবাগান করেছেন মুন্নু ভূঁইয়া নামে এক ব্যক্তি। ওই খান বানিয়াড়া অংশে পানি নিষ্কাশনের জন্য পাইপ দিলেও তা কার্যকর হচ্ছে না। পাইপ ভেঙে পানি নিষ্কাশনে ব্যাঘাত ঘটছে।

খান বানিয়াড়া গ্রামের কৃষক মো. মুরাদ বলেন, ‘খান বানিয়াড়া গ্রামে আমার ৫ বিঘা কৃষি জমি রয়েছে। বর্ষার পানি আটকা পড়ে জমিগুলো বছরের বেশির ভাগ সময় পতিত পড়ে থাকে। দীর্ঘ দিন ধরে সমস্যাটি সমাধান হচ্ছে না। এ বিষয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।’

বাটি গ্রামের কৃষক লিয়াকত হোসেন বলেন, ‘বাটি চকে (ফসলের মাঠ) প্রায় শত বিঘা তিন ফসলি জমি রয়েছে। এই জমিগুলো পানিবন্দী থাকায় চাষাবাদ করতে পারছি না। চাপড়াইল ও খান বানিয়াড়া গ্রামের কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি খালটি ভরাট করায় দুই গ্রামের শত শত কৃষকের চাষাবাদে সমস্যা হচ্ছে।’

খাল ভরাট করে দোকান নির্মাণকারী আবু বক্কর বলেন, ‘দোকান নির্মাণ করায় পানি নিষ্কাশনে কোনো সমস্যা হচ্ছে না। খান বানিয়াড়া গ্রামের মুন্নু ভূঁইয়া খাল ভরাট করায় পানি নিষ্কাশনে বড় ধরনের সমস্যা হচ্ছে।’

সিঙ্গাইর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুনা লায়লা বলেন, ‘সরকারি খাল কোনোভাবেই কেউ ভরাট করতে পারবে না। বিষয়টি আমার জানা ছিল না। খাল ভরাটকারীদের বিরুদ্ধে খুব দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    সিমেন্ট বোঝাই ট্রাক পুকুরে

    টাঙ্গাইলে অপরাধ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

    সখীপুরে নিত্যসঙ্গী যানজট

    বিনা টিকিটে ট্রেনে ভ্রমণ জরিমানা

    বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল লিগ শুরু

    হাসপাতালে শব্দদূষণ ভোগান্তি রোগীদের

    এই অসুরকে বধ করতে হবে: মির্জা ফখরুল

    ঢাবিতে সাম্প্রদায়িক হামলার বিরুদ্ধে মশাল মিছিল 

    মহেশখালীতে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

    খেয়াঘাটে দুই বোনকে শ্লীলতাহানি ও মারধরের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

    পূজামণ্ডপ সংশ্লিষ্ট সহিংসতায় গ্রেপ্তার ৪৫০, মামলা ৭১

    সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন শাবকের জন্ম