মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

সেকশন

 

শ্রেণিকক্ষের সংকটের কারণে পরিত্যক্ত ভবনে চলছে প্রাথমিকের ক্লাস

আপডেট : ১৩ অক্টোবর ২০২১, ২০:২৮

শ্রেণিকক্ষ সংকটে মাধ্যমিকের পরিত্যক্ত ভবনে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের ক্লাস। ছবি: আজকের পত্রিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জরাজীর্ণ পরিত্যক্ত দুটি কক্ষ। ভাঙাচোরা টিনের দোচালা ঘরে জং ধরেছে। সামান্য বৃষ্টিতেই শ্রেণিকক্ষে পানি গড়িয়ে পড়ে। শ্রেণিকক্ষের সংকটের কারণে এমন দুটি পরিত্যক্ত কক্ষেই চলছে জুনিয়াদহ ইউনিয়নের পরানখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্লাস। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ এ পরিবেশে শিক্ষা কার্যক্রমে ব্যাঘাত ঘটছে। 
 
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শ্রেণিকক্ষের সংকটের কারণে বাধ্য হয়েই মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত টিনশেড ভবনে ক্লাস নিচ্ছেন শিক্ষকেরা। এখানে সামান্য বৃষ্টিতেই শ্রেণিকক্ষে পানি পড়ে। ফলে বই-খাতাসহ শিক্ষার্থীরা ভিজে যায়। বাধ্য হয়েই মাঝে মাঝে ক্লাস বন্ধ রাখতে হয়। 

উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, পিজিবি-২ প্রকল্পের ২০০৮-২০০৯ সালে নির্মিত দুই কক্ষ বিশিষ্ট একতলা ভবনের একটি কক্ষ শিক্ষকদের অফিস। অন্য একটি কক্ষে চলে পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস। এর বাইরে তিন কক্ষের আরও একটি জরাজীর্ণ টিনশেড ভবন রয়েছে। সেখানেও টিনের ফুটো দিয়ে পানি পড়ে। 

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা বলেন, 'বাধ্য হয়ে স্কুলের পাশে অবস্থিত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দুই কক্ষের টিনের ছাউনির জরাজীর্ণ পরিত্যক্ত ভবনকে ব্যবহার করা হচ্ছে। কোন রকমে ক্লাস নেওয়া হচ্ছে।' 

পরানখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাজিয়া সুলতানা বলেন, '২০১৮ সালে এ স্কুলে যোগদান করি। আমি আসার আগেই স্কুলের নতুন ভবনের জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিসে বিষয়টি লিখিতভাবে জানানো হয়।' 

প্রধান শিক্ষক রাজিয়া সুলতানা আরও বলেন, 'শিক্ষার্থীরা কষ্ট করে ক্লাস করছে। বৃষ্টির সময় ক্লাস বন্ধ রাখতে হয়। শ্রেণিকক্ষের সংকটের কারণে পরানখালি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জরাজীর্ণ টিনের ছাউনির একটি পরিত্যক্ত ভবনে কোন রকম ক্লাস নিচ্ছি।' 

এ বিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসার আহসান আরা বলেন, 'উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মাণের জন্য জেলার মাধ্যমে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে এরই মধ্যে জানানো হয়েছে।' 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীনেশ সরকার বলেন, 'এ বিষয়ে উপজেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২৩টি নতুন ভবন ও দুইটি ভবন ঊর্ধ্বমুখী সম্প্রসারণের জন্য জেলার মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে পাঠানো হয়েছে। তালিকায় ওই বিদ্যালয়টি রয়েছে। আশা করি দ্রুত ভবনের সমস্যা কেটে যাবে।' 

উল্লেখ্য, পরানখালি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি ১৯০১ সালে প্রতিষ্ঠা হলেও জাতীয়করণ হয় ১৯৭৩ সালে। বর্তমানে ওই বিদ্যালয়ে ৩৬২ জন শিক্ষার্থী রয়েছে।

মন্তব্য

আপনার পরিচয় গোপন রাখতে
আমি নীতিমালা মেনে মন্তব্য করছি।
Show
 
    সব মন্তব্য

    ইহাতে মন্তব্য প্রদান বন্ধ রয়েছে

    এলাকার খবর

    ঢাবিতে সাম্প্রদায়িক হামলার বিরুদ্ধে মশাল মিছিল 

    মহেশখালীতে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

    খেয়াঘাটে দুই বোনকে শ্লীলতাহানি ও মারধরের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

    সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন শাবকের জন্ম

    গাজীপুরে বিবস্ত্র অপ্রকৃতিস্থ অবস্থায় উদ্ধার স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

    চাকরির প্রলোভনে কিশোরীকে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২

    এই অসুরকে বধ করতে হবে: মির্জা ফখরুল

    ঢাবিতে সাম্প্রদায়িক হামলার বিরুদ্ধে মশাল মিছিল 

    মহেশখালীতে এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

    খেয়াঘাটে দুই বোনকে শ্লীলতাহানি ও মারধরের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১

    পূজামণ্ডপ সংশ্লিষ্ট সহিংসতায় গ্রেপ্তার ৪৫০, মামলা ৭১

    সাফারি পার্কে জেব্রা পরিবারে নতুন শাবকের জন্ম